"পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(বিষয়শ্রেণী:বাংলার ইতিহাস যোগ হটক্যাটের মাধ্যমে)
১৯৯০-এর দশকের মধ্যভাগে [[ভারত সরকার|ভারত সরকারের]] [[ভারতে অর্থনৈতিক সংস্কার|অর্থনৈতিক সংস্কার]] এবং ২০০০ সালে সংস্কারপন্থী নতুন মুখ্যমন্ত্রী [[বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য|বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের]] নির্বাচনের পর রাজ্যের অর্থনৈতিক উন্নতি ত্বরান্বিত হয়। বর্তমানে রাজ্যের বিভিন্ন অংশে ছোটোবড়ো বেশ কয়েকটি সশস্ত্র জঙ্গিহানার ঘটনা ঘটেছে।<ref name="voamaoist">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|url=http://www.voanews.com/bangla/archive/2005-07/2005-07-22-voa10.cfm|title=Maoist on Rise in West Bengal|accessdate=2006-09-11|last=Ghosh Roy|first=Paramasish|date=2005-07-22|work=VOA Bangla|publisher=[[Voice of America]]}}</ref><ref name="satpmcc">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|url=http://www.satp.org/satporgtp/countries/india/terroristoutfits/MCC.htm|title=Maoist Communist Centre (MCC)|accessdate=2006-09-11|work=Left-wing Extremist group|publisher=South Asia Terrorism Portal}}</ref> আবার শিল্পায়নের জন্য জমি অধিগ্রহণকে কেন্দ্র করে প্রশাসনের সঙ্গে স্থানীয় অধিবাসীদের একাধিক সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।<ref name="singur1">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|title=Several hurt in Singur clash|url=http://www.rediff.com/news/2007/jan/28singur.htm|work=rediff News|publisher=Rediff.com India Limited|date=28 January 2007|accessdate=2007-03-15}}</ref><ref name="nandi1">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|title=Red-hand Buddha: 14 killed in Nandigram re-entry bid|url=http://www.telegraphindia.com/1070315/asp/frontpage/story_7519166.asp|publisher=[[The Telegraph (Kolkata)|The Telegraph]]|date=15 March 2007|accessdate=2007-03-15}}</ref>
 
২০০৬ সালে [[হুগলি জেলা|হুগলির]] [[সিঙ্গুর|সিঙ্গুরে]] [[টাটা ন্যানো]] কারখানার জন্য জমি অধিগ্রহণকে কেন্দ্র করে স্থানীয় কৃষকদের মধ্যে তীব্র গণ-অসন্তোষ দেখা যায়। জমি অধিগ্রহণ বিতর্কের প্রেক্ষিতে সিঙ্গুর থেকে টাটা গোষ্ঠী কারখানা প্রত্যাহার করে নিলে, তা রাজ্য রাজনীতিতে গভীর প্রভাব বিস্তার করে।<ref>[http://www.blonnet.com/2006/11/26/stories/2006112604380300.htm The Hindu Business Line, 26 November 2006]</ref> ২০০৭ সালে [[পূর্ব মেদিনীপুর জেলা|পূর্ব মেদিনীপুরের]] [[নন্দীগ্রাম|নন্দীগ্রামে]] একটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য জমি অধিগ্রহণকে কেন্দ্র করে অশান্তির জেরে পুলিশের গুলিতে ১৪ জন মারা গেলে রাজ্য রাজনীতি ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। এরপর ২০০৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচন, ২০০৯ সালের লোকসভা নির্বাচন ও ২০১০ সালের পৌরনির্বাচনে শাসক বামফ্রন্টের আসন সংখ্যা ক্রমশ হ্রাস পেতে থাকে। অবশেষে ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে [[তৃণমূল কংগ্রেস|তৃণমূল কংগ্রেসের]] কাছে বিপুল ভোটে পরাজিত হয়ে রাজ্যের ৩৪ বছরের বামফ্রন্ট শাসনের অবসান হয়।
 
== রাজনৈতিক ইতিহাস ==
১৯৬৯এ রাজ্যে পুনরায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সিপিআই(এম) পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার সর্ববৃহৎ দলরূপে আত্মপ্রকাশ করে।<ref> Indian National Congress had won 55 seats, Bangla Congress 33 and CPI 30. CPI(M) allies also won several seats.ECI: Statistical Report on the 1969 West Bengal Legislative Election</ref> কিন্তু সিপিআই ও বাংলা কংগ্রেসের সক্রিয় সমর্থনে অজয় মুখোপাধ্যায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর পদে পুনঃবহাল হন। ১৯৭০এর ১৬ই মার্চ তিনি পদত্যাগ করলে রাজ্যে আবার রাষ্ট্রপতি শাসন ফিরে আসে।
== সিদ্ধার্থশঙ্কর রায় যুগ (১৯৭২-১৯৭৭)==
ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ১৯৭২ সালের বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করে এবং বিজয়ী নেতা সিদ্ধার্থশঙ্কর রায় মুখ্যমন্ত্রী হন। এই পর্যায়ে, ১৯৭৫ সালে, ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দেশজুড়ে জরুরী অবস্থা লাগুজারি করেন।
এই সময়কাল রাজ্যে পুলিশবাহিনীর সঙ্গে নকশালপন্থীদের চরম হিংসাত্মক লড়াই ও শেষ পর্যন্ত আন্দোলন দমনের জন্য চিহ্নিত হয়ে আছে।
==বামফ্রন্ট যুগ==
বেনামী ব্যবহারকারী