"ই-৯ (দেশসমূহ)" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

+
(+)
ই-৯ (E-9) হচ্ছে বিশ্বের ৯-টি দেশ নিয়ে গঠিত একটি আন্তর্জাতিক ফোরাম যার লক্ষ্য হচ্ছে ইউনেস্কোর “সবার জন্য শিক্ষা (Education for All)” উদ্যোগের লক্ষ্যসমূহ অর্জন করা। <ref>{{cite news|title=E-9 meet begins today, India to lay road map|url=http://www.hindustantimes.com/India-news/NewDelhi/e-9-meet-begins-today-India-to-lay-road-map/Article1-956429.aspx|accessdate=22 November 2012|newspaper=Hindustan Times|date=8 November 2012}}</ref> এই ই-৯ (E-9) এর E হচ্ছে Education এবং ৯ দ্বারা নয়টি দেশকে উপস্থাপন করে। এই নয়টি দেশ হচ্ছেঃ [[বাংলাদেশ]], [[ব্রাজিল]], [[চীন]], [[মিশর]], [[ভারত]], [[ইন্দোনেশিয়া]], [[মেক্সিকো]], [[নাইজেরিয়া]] এবং [[পাকিস্তান]]<ref>{{cite web|title=E9 Initiative|url=http://www.unesco.org/new/en/cairo/education/e9-initiative/|publisher=UNESCO|accessdate=22 November 2012}}</ref>। এই দেশগুলো পৃথিবীর অর্ধেক জনসংখ্যাকে উপস্থাপন করে এবং পৃথিবীর প্রাপ্ত বয়স্ক নিরক্ষর লোকের ৭০% এই দেশগুলোতে বাস করে। এই উদ্যোগের সম্মেলন ১৯৯৩ সালে ভারতের নতুন দিল্লিতে শুরু করা হয়। এই উদ্যোগ বর্তমানে একটি ফোরামে পরিণত হয়েছে যা সদস্য দেশগুলোর মধ্যে শিক্ষা সম্পর্কিত অভিজ্ঞতা নিয়ে আলোচনা করে। এই ফোরাম তাদের নিজেদের মধ্যে সু-অনুশীলন বিনিময় করে এবং “সবার জন্য শিক্ষা” সম্পর্কিত অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করেন।
 
==আর্থ-সামাজিক অবস্থা==
ই-৯ দেশসমূহ আর্থসামাজিকভাবে অনেক গুরুত্বপূর্ণ আগ্রগতি করেছে। ব্রাজিল, চীন, ইন্দোনেশিয়া এবং মেক্সিকো জি-২০ এর সদস্য। এর মধ্যে মেক্সিকো ওইসিডি সদস্য এবং চীন বর্তমানে পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ। ব্রাজিল এবং ভারতও সেরা দশ অর্থনীতির দুইটি দেশ। ইন্দোনেশিয়ার উন্নয়নও খুব দ্রত হচ্ছে। ১৯৯৩ এই ফোরামের সদস্য দেশসমূহের নমিনাল জিডিপি ছিলো পৃথিবীর মোট নমিনাল জিডিপির ১৬.৫% যা বর্তমানে বেড়ে হয়েছে ৩০%।<ref>{{cite web|title=E-9 Initiative Background|url=http://www.teindia.nic.in/e9/background.html|publisher=E-9 Initiative|accessdate=22 November 2012}}</ref>
 
==তথ্যসূত্র==