"প্রেমানন্দ দত্ত" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

নতুন সূত্র যোগ
(সূত্র)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা
(নতুন সূত্র যোগ)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা
 
== প্রফুল্ল রায় হত্যা ==
চট্টগ্রামে বিপ্লবীদের ওপর নজর রাখার জন্যে ব্রিটিশ পুলিশের গোয়েন্দা সাব-ইন্সপেক্টর প্রফুল্ল রায় কুখ্যাত ছিল। এই ব্যক্তি অনন্ত সিংহকে গ্রেপ্তার করলে প্রেমানন্দ দত্ত প্রতিশোধ নিতে সচেষ্ট হন। প্রফুল্ল রায়ের সাথে বন্ধুত্ব করে চট্টগ্রাম পল্টনের মাঠে নির্জন জায়গায় নিয়ে ১৯২৪ এর ২৪শে মে তাকে গুলি করে হত্যা করেন। প্রফুল্ল [[মৃত্যুকালীন জবানবন্দী]]<nowiki/>তে প্রেমানন্দের নাম বলে যায় এবং তিনি গ্রেপ্তার হন।<ref>{{বই উদ্ধৃতি|title=Chittagong Summer 1930|last=Manasi Bhattacharya|first=|publisher=HarperCollins publishers|year=|isbn=|location=|pages=Timeline}}</ref> ব্যারিস্টার [[যতীন্দ্রমোহন সেনগুপ্ত]] তার হয়ে মামলা লড়েন। মামলার প্রধান সাক্ষী রায়বাহাদুর সতীশ রায়কে সুকৌশলে জেরা করে, আইনি জটিলতার মারপ্যাঁচে ফেলে প্রেমানন্দ দত্তকে বেকসুর খালাস করেন যতীন্দ্রমোহন।<ref>{{বই উদ্ধৃতি|title=চট্টগ্রাম সশস্ত্র বিপ্লবে দেশপ্রিয় যতীন্দ্রমোহনের ভূমিকা|last=প্রসাদ দাস মুখোপাধ্যায়|first=সূর্যসেন ও স্বাধীনতা সংগ্রাম|publisher=সূর্যসেনা প্রকাশনী|year=১৯৯৫|isbn=|location=বহরমপুর|pages=৭৪}}</ref> হাইকোর্টে এপিলে গেলে সেখানেও নিরপরাধ প্রমানিত হন তিনি<ref>{{বই উদ্ধৃতি|title=অগ্নিগর্ভ চট্টগ্রাম প্রথম খন্ড|last=অনন্ত সিংহ|first=|publisher=বিদ্যোদয় লাইব্রেরী প্রা: লি:|year=১৯৬৮|isbn=|location=কলকাতা|pages=২১৫, ২১৬}}</ref>।
 
== মৃত্যু ==
প্রফুল্ল রায় হত্যা মামলায় মুক্তি পেলেও অন্যঅঅন্যায়ভাবে মামলায়১ নং বেঙ্গল অর্ডিন্যান্স এক্ট অনুসারে তাকে পুলিশ আবার গ্রেপ্তার করে জেলে পাঠায়। জেলে থাকার সময় তার মানসিক অবস্থার অবনতি ঘটে। তাকে [[রাঁচি]]<nowiki/>র মানসিক হসপিটালে পাঠানো হয়। সেখানেই এই বিপ্লবীর মৃত্যু হয়।<ref>{{বই উদ্ধৃতি|title=সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান|last=প্রমথ খন্ড|first=সুবোধচন্দ্র সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত|publisher=সাহিত্য সংসদ|year=২০০২|isbn=81-85626-65-0|location=কলকাতা|pages=৩২০}}</ref>
 
== তথ্যসূত্র ==