"কেলেচি ইহিয়ানাচো" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
{{কাজ চলছে}}
 
কেলেচি প্রোমাইস ইহিয়ানাচো (জন্ম: ৩ অক্টোবর ১৯৯৬) একজন নাইজেরিয়ান পেশাদার ফুটবলার, যিনি প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব [[ম্যানচেস্টার সিটি ফুটবল ক্লাব|ম্যানচেস্টার সিটি]] এবং [[নাইজেরিয়া জাতীয় ফুটবল দল|নাইজেরিয়া জাতীয় ফুটবল দলের]] হয়ে খেলেন।
 
== ক্লাব ক্যারিয়ার ==
ইহিয়ানাচো [[নাইজেরিয়া|নাইজেরিয়ার]] ইমো রাজ্যে জন্মগ্রহন করেন। সেখানে স্থানীয় টায়ে ফুটবল একাডেমীতে খেলা শুরু করেন।
 
=== ম্যানচেস্টার সিটি ===
ইহিয়ানাচো ২০১৪ সালের ১০ জানুয়ারিতে [[ম্যানচেস্টার সিটি একাডেমি|ম্যানচেস্টার সিটি একাডেমিতে]] যোগ দেন। ২০১৪-১৫ মৌসুমের আগে ম্যানচেস্টার সিটির যুবদল প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে [[মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র|যুক্তরাষ্ট্রে]] যায়, তখন তিনি প্রথমবার দলে সুযোগ পায়। [[স্পোর্টিং কানসাস সিটি]]'র বিপক্ষে সেবার অভিষেক হয়ে কেলেচির, সেই ম্যাচে তার দেয়া একটি গোলের সুবাদে ৪-১ গোলের বিশাল জয় পায় ম্যানচেস্টার সিটি। উয়েফা যুব লিগে [[ম্যানচেস্টার সিটি অনুর্ধ-১৯ দল|ম্যানচেস্টার সিটি অনুর্ধ-১৯ দলের]] হয়ে তিনি খেলেন, তবে প্রথম ম্যাচেই মাত্র ১১ মিনিট সময়ে তিনি ইনজুরি হন।
 
==== ২০১৫-১৬ মৌসুম ====
২০১৫ সালের জুলাইয়ে নতুন মৌসুমের প্রস্তুতির জন্য ম্যানচেস্টার সিটি [[অস্ট্রেলিয়া|অস্ট্রেলিয়ার]] খেলতে যায়, সেখানে সিনিয়র দলে ডাক পান। সেখানে ২০১৫ [[ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়েন্স কাপ|ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়েন্স কাপে]] রোমার বিপক্ষে ১ টি গোল দেন।
 
২০১৫ সালের ১০ আগস্ট কেলেচি প্রিমিয়ার লিগের ১ম ম্যাচের স্কোয়াডে অন্তর্ভুক্ত হন। সেই ম্যাচে ওয়েস্ট ব্রোমের বিপক্ষে বদলি খেলোয়ার হিসেবে নামে, ম্যাচটি ৩-০ গোলে জয়লাভ করে ম্যানচেস্টার সিটি। এর ১৯ দিন পর রাহিম স্টারর্লিং এর বদলে প্রথমবারের মত একাদশে জায়গা পায়, [[ইতিহাদ স্টেডিয়াম|ইতিহাদ স্টেডিয়ামে]] সেই ম্যাচে [[ওয়ার্টফোর্ট|ওয়ার্টফোর্টের]] বিপক্ষে ২-০ গোলে জয়লাভ করে ম্যানচেস্টার সিটি। ১২ সেপ্টেম্বরে [[উইলফ্রেড বনি|উইলফ্রেড বনির]] বদলি হিসেবে নেমে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে শেষ মুহুর্তে দলের একমাত্র গোলটি করেন।
 
২০১৬ সালের জানুয়ারিতে [[এফএ কাপেরকাপ|এফএ কাপে]]<nowiki/>র ৪র্থ পর্বে [[অ্যাস্টন ভিলা ফুটবল ক্লাব|অ্যাস্টন ভিলা]] ম্যাচে কেলেচি তার প্রথম হ্যাট্রিক করেন। সেই মাসে [[সামির নাসরি|সামির নাসরির]] ইনজুরির কারনে [[উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ|উয়েফা চ্যাম্পিয়েন্স লিগে]] দলে সুযোগ পান।
 
২০১৬ সালের ২৩ এপ্রিল [[স্টোক সিটি ফুটবল ক্লাব|স্টোক সিটির]] বিপক্ষে তার দেয়া জোড়া গোলের সুবাদে ৪-০ গোলে জয়লাভ করে ম্যান সিটি। ২৬ এপ্রিল উয়েফা চ্যাম্পিয়েন্স লিগে সেমিফাইনালে বদলি হিসেবে নামেন। এর ৫ দিন পর
 
[[সাউথহ্যাম্পটন ফুটবল ক্লাব|সাউথহ্যাম্পটনের]] বিপক্ষে জোড়া গোল দেন, সেই ম্যাচটি ৪-২ গোলে জায় পায় ম্যানচেস্টার সিটি। কেলেচি ইহিয়ানাচো প্রিমিয়ার লিগে ৮ টি গোল দিয়ে ২০১৫-১৬ মৌসুম শেষ করেন। সেবার প্রতি ৯৩.৯ মিনিটে ১ টি করে গোল দেন কেলেচি, যা লিগের সেরা। ২০১৫-১৬ মৌসুমের সব ম্যাচ মিলিয়ে ১৪ টি গোল এবং ৫ টি এসিস্ট করেন, যা তাকে ম্যানচেস্টার সিটির ৩য় সর্বোচ্চ গোলদাতা খেতাব এনে দেয়।