"হামিদুর রহমান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ)
== মুক্তিযুদ্ধে ভূমিকা ==
[[File:12122009 Virshreshto Sipahi Hamidur Rahman Grave photo1 RanadipamBasu.jpg|thumb|কবর]]
[[১৯৭১]] সালের [[মার্চ ২৫|২৫ মার্চ]] [[পাকিস্তান]] সেনাবাহিনীর আক্রমণের মুখে চাকরীস্থল থেকে নিজ গ্রামে চলে আসেন। বাড়ীতে একদিন থেকে পরদিনই মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেওয়ার জন্য চলে যান [[সিলেট জেলা|সিলেট জেলার]] [[শ্রীমঙ্গল উপজেলা|শ্রীমঙ্গল]] থানার ধলই চা বাগানের পূর্ব প্রান্তে অবস্থিত ধলই বর্ডার আউটপোস্টে। তিনি ৪নং সেক্টরে যুদ্ধ করেন। ১৯৭১ সালের অক্টোবর মাসে হামিদুর রহমান ১ম ইস্টবেঙ্গলের সি কোম্পানির হয়ে ধলই সীমান্তের ফাঁড়ি দখল করার অভিযানে অংশ নেন। ভোর চারটায় মুক্তিবাহিনী লক্ষ্যস্থলের কাছে পৌছে অবস্থান নেয়। সামনে দু প্লাটুন ও পেছনে এক প্লাটুন সৈন্য অবস্থান নিয়ে অগ্রসর হতে থাকে শত্রু অভিমুখে। শত্রু অবস্থানের কাছাকাছি এলে একটি মাইন বিস্ফোরিত হয়। মুক্তিবাহিনী সীমান্ত ফাঁড়ির খুব কাছে পৌছে গেলেও ফাঁড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্ত হতে পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর মেশিনগানের গুলিবর্ষণের জন্য আর অগ্রসর হতে পারছিলো না। অক্টোবরের ২৮ তারিখে ১ম ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট ও পাকিস্তান বাহিনীর ৩০এ ফ্রন্টিয়ার রেজিমেন্টের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ বাধে। ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের ১২৫ জন মুক্তিযোদ্ধা যুদ্ধে অংশ নেয়। মুক্তিবাহিনী পাকিস্তান বাহিনীর মেশিনগান পোস্টে গ্রেনেড হামলার সিদ্ধান্ত নেয়। [[গ্রেনেড]] ছোড়ার দায়িত্ব দেয়া হয় হামিদুর রহমানকে। তিনি পাহাড়ি খালের মধ্য দিয়ে বুকে হেঁটে গ্রেনেড নিয়ে আক্রমণ শুরু করেন। দুটি গ্রেনেড সফলভাবে মেশিনগান পোস্টে আঘাত হানে, কিন্তু তার পরপরই হামিদুর রহমান গুলিবিদ্ধ হন।<ref name="ChutirDine">{{cite news
| title =বীর হামিদুরের ঘরে ফেরা | work =Chutir Dine, [[Prothom Alo]] | pages =4-6 | language =Bengali
 
== পুরস্কার ও সম্মাননা ==
মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সামরিক পদক [[বীরশ্রেষ্ঠ]] [[পদক]] দেয়া হয় সিপাহী হামিদুর রহমানকে। এছাড়া তাঁর নিজের গ্রাম 'খোর্দ খালিশপুর'-এর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় হামিদনগর৷ এই গ্রামে তাঁর নামে রয়েছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়৷ [[ঝিনাইদহ জেলা|ঝিনাইদহ]] সদরে রয়েছে একটি [[স্টেডিয়াম]]<ref>{{cite web|last1=Staff|title=Ershad denies calling any party hated|url=http://www.thefinancialexpress-bd.com/old/index.php?ref=MjBfMDlfMjlfMTNfMV8zXzE4NTE1MA==|website=thefinancialexpress-bd.com|publisher=The Financial Express|accessdate=18 June 2015}}</ref>।একটি ফেরিও তাঁর নামে রাখা হয়েছে।<ref>{{cite web|last1=Star Report|title=Ferry services go haywire|url=http://archive.thedailystar.net/newDesign/news-details.php?nid=201960|website=archive.thedailystar.net|publisher=The Daily Star|accessdate=18 June 2015}}</ref> [[১৯৯৯]] সালে খালিশপুর বাজারে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে একটি কলেজ ৷ স্বাধীনতার ৩৬ বছর পর এই শহীদের স্মৃতি রক্ষার্থে তাঁর গ্রামে লাইব্রেরি ও স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণের কাজ শুরু করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়৷মন্ত্রণালয়<ref>{{cite web|last1=Correspondent|title=Birshrestha Hamidur museum opens|url=http://archive.thedailystar.net/newDesign/latest_news.php?nid=26924|website=archive.thedailystar.net|publisher=The Daily Star|accessdate=18 June 2015}}</ref> ৷ [[জুন ১২|১২ জুন]] [[২০০৭]] সালে এই কলেজ প্রাঙ্গণে ৬২ লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে শুরু হয় এই নির্মাণ কাজ৷
 
== তথ্যসূত্র ==
২,৭৮২টি

সম্পাদনা