"জেমস ক্যামেরন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
("টেমপ্লেট:Persondata" অপসারণ)
| goldenglobeawards = '''সেরা পরিচালক - চলচ্চিত্র''' <br /> ১৯৯৮ ''[[টাইটানিক (১৯৯৭-এর চলচ্চিত্র)|টাইটানিক]]''
| goldenraspberryawards = '''নিকৃষ্টতম চিত্রনাট্য''' <br /> ১৯৮৫ ''Rambo: First Blood Part II''
| awards = '''[[স্যাটার্ন পুরস্কার]] - সেরা রচনা''' <br /> ১৯৮৪ ''[[দ্য টার্মিনেটরটারমিনেটর]]'' <br /> 1986 ''[[এলিয়েন্‌স]]'' <br /> '''[[স্যাটার্ন পুরস্কার]] - সেরা পরিচালক''' <br /> ১৯৮৬ ''[[এলিয়েন্‌স]]'' <br /> ১৯৮৯ ''[[দ্য অ্যাবিস]]'' <br /> ১৯৯১ ''[[টার্মিনেটর ২: জাজমেন্ট ডে]]'' <br /> ১৯৯৪ ''[[ট্রু লাইস]]''
| spouse = শ্যারন উইলিয়াম্‌স (১৯৭৮-৮৪)<br />গেইল অ্যান হার্ড (১৯৮৫-৮৯)<br />ক্যাথরিন বিগেলাউ (১৯৮৯-৯১)<br />লিন্ডা হ্যামিল্টন (১৯৯৭-৯৯)<br />সুজি অ্যামিস (২০০০-)
| website =
'''জেমস ফ্রান্সিস ক্যামেরন''' (জন্ম: [[১৬ই আগস্ট]], [[১৯৫৪]]) [[একাডেমি পুরস্কার]] বিজয়ী কানাডীয়-মার্কিন [[চলচ্চিত্র পরিচালক]], [[চলচ্চিত্র প্রযোজক|প্রযোজক]] ও [[চিত্রনাট্য]] লেখক। মূলত অ্যাকশনধর্মী ও [[বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী|বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীমূলক]] চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য তিনি বিখ্যাত। এ ধরনের ছবিগুলোতে তাঁর উদ্ভাবনী শক্তির পরিচয় পাওয়া যায়। একই সাথে সেগুলোর ব্যবসায়িক সফলতাও লক্ষণীয়। তার চলচ্চিত্র নির্মাণের মুখ্য বিষয়বস্তু হল মানুষের সাথে প্রযুক্তির সম্পর্ক। ক্যামেরন ''[[টাইটানিক (১৯৯৭-এর চলচ্চিত্র)|টাইটানিক]]'' ছবিটি রচনা, পরিচালনা ও সম্পাদনা করেছেন। ১১টি বিষয়শ্রেণীতে [[অস্কার]] জয়ের পাশাপাশি এই ছবিটি বিশ্বব্যাপী বিপুল আয় করেছিল। মুদ্রাস্ফীতি বাদ দিলে এটিই পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি আয় করা [[চলচ্চিত্র]]। এর মোট আয়ের পরিমাণ ছিল ১.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
 
এছাড়া ক্যামেরন ''টার্মিনেটর'' ফ্রানচাইজ নির্মাণ করেছেন। নিজেই ''[[দিদ্য টার্মিনেটরটারমিনেটর]]'' ও ''[[টার্মিনেটর ২: জাজমেন্ট ডে]]'' ছবি দুটির পরিচালক ও লেখক ছিলেন। মুদ্রাস্ফীতির বিবেচনা না করলে সিনেমা নির্মাণ করে তিনি এখন পর্যন্ত আয় করেছেন প্রায় ১.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।<ref>http://boxofficemojo.com/people/chart/?id=jamescameron.htm</ref> ''টাইটানিক''-এর বিপুল সফলতার পর ক্যামেরন মূলত [[প্রামাণ্যচিত্র]] নির্মাণে মনোযোগ দিয়েছেন। এর পাশাপাশি তিনি ত্রিমাত্রিক ক্যামেরন/পেইস ফিউশন ক্যামেরা সিস্টেমের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। ''[[অ্যাভাটর (চলচ্চিত্র)|অ্যাভাটর]]'' ছবি নির্মাণের মাধ্যমে তিনি পুণরায় পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবি নির্মাণের ধারায় ফিরে আসবেন। এই ছবি নির্মাণের ক্ষেত্রে ফিউশন ক্যামেরা সিস্টেমের ত্রিমাত্রিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। ২০০৯-এর ডিসেম্বরে এর মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।<ref>http://boxofficemojo.com/movies/?id=avatar.htm</ref>
 
= পরিচালিত চলচ্চিত্রসমূহ =
* ''জেনোজেনেসিস'' (১৯৭৮) স্বল্পদৈর্ঘ্য
* ''পিরানহা ২: দ্য স্পনিং'' (১৯৮১)
* ''[[দ্য টার্মিনেটরটারমিনেটর]]'' (১৯৮৪)
* ''[[এলিয়েন্‌স]]'' (১৯৮৬)
* ''[[দ্য অ্যাবিস]]'' (১৯৮৯)
১১৬টি

সম্পাদনা