"রাগ (সংগীত)" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিচয়: মা কড়ি এবং বাকি সব স্বর শুদ্ধ ব্যবহৃত হয় অর্থাৎ বিলাবলের শুদ্ধ মা এর পরিবর্তে কড়ি মা এর আগমন।এর চলন বক্রগতি সম্পন্ন।এ রাগের সাথে বিলাবল ঠাটের প্রচুর সাদৃশ্য আছে। এই রাগের সমপ্রকৃতির ইমন কল্যান নামে আরো একটি রাগ আছে যেখানে শুদ্ধ মধ্যম প্রয়োগ করা হয় এবং ইমন অপেক্ষা ঋষভ এর প্রাধান্যও এতে বেশী থাকে। তবে শুদ্ধ মধ্যম এর ব্যবহার গুরুর নিকট শিখেই প্রয়োগ করা উচিৎ, অন্যান্য স্বরের ব্যবহার ইমন এর মতই। সৌন্দর্য বা বৈচিত্র আনয়ন কল্পে প স্বরটিকে এড়িয়ে ব্যবহার করা হলেও মনে রাখতে হবে পা স্বরটি ইমন রাগে গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি ন্যস স্বর।
 
ঠাট: কল্যানকল্যান।
জাতি: সম্পূর্ণ-সম্পূর্ণসম্পূর্ণ।
আরোহী: ( ন্ )সা রা গা ক্ষা পা ধা না র্সার্সা।
অবরোহী: র্সা না ধা পা ক্ষা গা রা সাসা।
চলন: ন্ র গ র ,গ ক্ষ ধ ন, র্স ন ধ প ক্ষ গ, প র গ র ন র স।
পকড়: ন্ র গ র ন্ র সা, বা ন্ র গ র স , প ক্ষ গ র স।
বাদী স্বর: গ।
সমবাদী স্বর: ন।
অঙ্গ: পূর্বাঙ্গপূর্বাঙ্গ।
প্রকৃতি: শান্তশান্ত।
সময়: সন্ধিপ্রকাশ রাগ (গোধুলীলগ্ন থেকে রাত ০৯ টা)
 
== তথ্যসূত্র ==