"লাইলাতুল মেরাজ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

103.242.218.9-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে আনু আনোয়ার-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সং...
(103.242.218.9-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে আনু আনোয়ার-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সং...)
ইসলামে মেরাজের বিশেষ গুরুত্ব আছে, কেননা এই মেরাজের মাধ্যমেই ইসলাম ধর্মের পঞ্চস্তম্ভের দ্বিতীয় স্তম্ভ অর্থাৎ [[নামায]], মুসলমানদের জন্য অত্যাবশ্যক ([[ফরজ]]) করা হয় এবং এই রাতেই দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামায মুসলমানদের জন্য নিয়ে আসেন নবী মুহাম্মদ। তবে কোনো কোনো ইসলামী চিন্তাবিদের মতে, এটা দৈহিক নয়, বরং ছিল আত্মিক আরোহণ&mdash; মুহাম্মদের স্ত্রী [[আয়েশা]] এবং [[আবু সুফিয়ান]] এই মতে বিশ্বাসী ছিলেন।<ref name="book-mhd">ইসলামের ধারাবাহিক ইতিহাস: প্রথম খন্ড: ''মহানবী (স:)'', ডক্টর ওসমান গনী, মল্লিক ব্রাদার্স, কলকাতা থেকে ১৯৯১ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত। সংগ্রহের তারিখ: ১৭ জুন ২০১২ খ্রিস্টাব্দ।</ref>
যদিও মেরাজের ঘটনা ইসলামে যথেষ্ট অর্থবহ তবুও মেরাজ উপলক্ষে বিশেষ রাত পালনের নিয়মকে ইসলামী চিন্তাবিদগণ গ্রহণ করেন না; কেননা ঠিক কত তারিখে মেরাজ ঘটেছিল তার কোনো নির্ধারিত বিবরণ পাওয়া যায় না, এব্যাপারে সাহাবাদের মধ্যেই মতভেদ ছিল। শুধুমাত্র এতটুকু সঠিক করে বলা যায় যে, নবুয়্যতের দশম থেকে ত্রয়োদশ বছরের মধ্যে কোনো এক রাতে ঘটেছে মেরাজের ঘটনা।<ref name="book-mhd"/>
মেরাজের ঘটনার দিন তারিখ কোন হাদিস এ নেই ।
 
== তথ্যসূত্র ==