"বেন হিলফেনহস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট বানান ঠিক করছে, কোনো সমস্যায় তানভিরের আলাপ পাতায় বার্তা রাখুন
(Nahid.rajbd-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে NahidSultanBot-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণে ফেরত)
(বট বানান ঠিক করছে, কোনো সমস্যায় তানভিরের আলাপ পাতায় বার্তা রাখুন)
পরবর্তীতে জুনে জিম্বাবুয়ে সফরে অস্ট্রেলিয়া এ দলের সদস্য মনোনীত হন। শ্রীলঙ্কা সফর ও পরের বছর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্যে নিজেকে মেলে ধরার ক্ষেত্র সৃষ্টি হয়। দলের সদস্য হিসেবে [[মিচেল স্টার্ক]], [[জেমস ফকনার]] ও [[Trent Copeland|ট্রেন্ট কোপল্যান্ড]] ছিলেন। ধারণা করা হয়েছিল যে, হিলফেনহসের অভিজ্ঞতালদ্ধ জ্ঞান উদীয়মান ফাস্ট বোলারদের জন্য সুবিধা বয়ে নিয়ে আসবে। বিশেষতঃ স্টার্ক ও ফকনারের বলকে সুইং করার ক্ষমতা ছিল।<ref>{{cite web |url=http://www.espncricinfo.com/australia/content/story/516358.html |title=Hilfenhaus not done&nbsp;– Chappell |first=Daniel |last=Brettig |date=23 May 2011 |accessdate=2 November 2011}}</ref> কিন্তু জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য দল ঘোষণা করা হলে হিলফেনহসকে বাদ দেয়া হয়। দল নির্বাচক [[গ্রেগ চ্যাপেল]] এর কারণ হিসেবে তার পর্যাপ্ত যোগ্যতার অভাবকে দায়ী করেন।<ref>{{cite web |url=http://www.espncricinfo.com/australia/content/story/525441.html |title=Copeland, Lyon bring confidence, freshness&nbsp;– Chappell |publisher=ESPNcricinfo |date=31 July 2011 |accessdate=2 November 2011}}</ref>
 
ডিসেম্বরে দুই টেস্টের সফরে নিউজিল্যান্ড দল আসলে হিলফেনহসের দলে ফেরার সুযোগ সৃষ্টি হয়। কিন্ত দল নির্বাচকমণ্ডলী তরুণদের সুযোগ দিতে কম অভিজ্ঞতাসম্পন্ন খেলোয়াড়দেরকে প্রাধান্য দেয়। পরের মাসে ভারত দল অস্ট্রেলিয়া সফরে গেলে প্রথম টেস্টের জন্য ১৩-সদস্যের দলে তাকে অন্তর্ভূক্তঅন্তর্ভুক্ত করে। এ প্রসঙ্গে দল নির্বাচক [[জন ইনভারারিটি]] বলেন যে, আমি মনে করি হিলফেনহসের শারীরিক ভঙ্গীমা ভালো ও গত বছরের তুলনায় উত্তরণ ঘটিয়েছেন। তিনি ছন্দ ফিরে পেয়েছেন ও ভালো অবস্থানে রয়েছেন। তিনি শক্ত, সামর্থ্যবান, দীর্ঘস্থায়ী ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন বোলার।<ref>{{cite web |url=http://www.espncricinfo.com/australia-v-india-2011/content/story/546342.html |title=Cowan, Marsh, Hilfenhaus named for Boxing Day |first=Daniel |last=Brettig |publisher=ESPNcricinfo |date=21 December 2011 |accessdate=21 December 2011}}</ref>
 
প্রথম টেস্ট হিসেবে [[বক্সিং ডে টেস্ট|বক্সিং ডে টেস্টের]] তিনি খেলার সুযোগ পান ও [[ভারত জাতীয় ক্রিকেট দল|ভারতের]] প্রথম ইনিংসে ৫/৭৫ পান যা তার প্রথম পাঁচ উইকেট লাভ।<ref>{{cite news|url=http://www.foxsports.com.au/cricket/australia/ben-hilfenhaus-credits-a-tough-off-season-and-adjustments-to-his-action-for-first-five-wicket-haul/story-fn2mcu3x-1226232175457|title=Ben Hilfenhaus credits a tough off-season and adjustments to his action for first five-wicket haul|last=Lienert|first=Sam|date=28 December 2011|publisher=Fox Sports (Australia)|accessdate=28 December 2011}}</ref> পরের টেস্টেও তিনি দ্বিতীয়বারের মতো পাঁচ উইকেট পান ও দলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে রাখতে সাহায্য করেন।<ref>{{cite web |url=http://www.espncricinfo.com/australia-v-india-2011/content/story/548231.html |title=Hilfenhaus takes five in Australia's innings win |first=Brydon |last=Coverdale|publisher=ESPNcricinfo |date=6 January 2012 |accessdate=6 January 2012}}</ref> তৃতীয় টেস্টে ইনিংসের ব্যবধানে জয়লাভ করে অস্ট্রেলিয়া দল [[Border–Gavaskar Trophy|বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি]] জয় করে। ঐ টেস্টের উভয় ইনিংসে চারটি করে উইকেট পান। এরফলে তিনি প্রথমবারের মতো [[আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ|আইসিসি’র র‌্যাঙ্কিংয়ে]] শীর্ষ দশে অন্তর্ভূক্তঅন্তর্ভুক্ত হন।<ref>{{cite web |url=http://icc-cricket.yahoo.net/newsdetails.php?newsId=18645_1326688200 |title=Opportunity for England to win jackpot in series against Pakistan |publisher=ICC |date=16 January 2012 |accessdate=17 January 2012}}</ref> সিরিজে তিনি সর্বাধিক [[উইকেট]] সংগ্রাহক হন। ১৭.২২ গড়ে ২৭ উইকেট পান হিলফেনহস।<ref>{{cite web|url=http://stats.espncricinfo.com/ci/engine/records/bowling/most_wickets_career.html?id=6636;type=series|title=Records / Border-Gavaskar Trophy, 2011/12 / Most wickets|publisher=ESPNcricinfo|accessdate=28 January 2012}}</ref>
 
== ব্যক্তিগত জীবন ==
১,০৬,৮১২টি

সম্পাদনা