"টিম ব্রেসনান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট বানান ঠিক করছে, কোনো সমস্যায় তানভিরের আলাপ পাতায় বার্তা রাখুন
(বট বানান ঠিক করছে, কোনো সমস্যায় তানভিরের আলাপ পাতায় বার্তা রাখুন)
জুন, ২০০৬ সালে তিনি ইংল্যান্ডের [[একদিনের আন্তর্জাতিক]] দলে খেলার জন্য আমন্ত্রিত হন ও আয়ারল্যান্ড এবং শ্রীলঙ্কা সফরে যান। ১৫ জুন, ২০০৬ তারিখে [[Rose Bowl, Hampshire|রোজ বোলে]] অনুষ্ঠিত [[টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক|টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে]] [[শ্রীলঙ্কা জাতীয় ক্রিকেট দল|শ্রীলঙ্কার]] বিপক্ষে অভিষেক ঘটে তার। খেলায় তিনি ৬* রানে অপরাজিত ছিলেন ও ২ ওভারে ২০ রান দেন। দুইদিন পর [[লর্ড’স ক্রিকেট গ্রাউন্ড|লর্ডসে]] অনুষ্ঠিত একদিনের আন্তর্জাতিকে একই দলের বিপক্ষে ৯ ওভারে ৪৪ রান দিয়ে ১ উইকেট লাভ করেন। খেলায় তার দল ২০ রানের ব্যবধানে পরাজিত হয়।
 
এরপর ২৯ এপ্রিল, ২০০৯ তারিখে [[টেস্ট ক্রিকেট|টেস্ট দলের]] সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্তঅন্তর্ভুক্ত করা হয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে বিপক্ষে আঘাতপ্রাপ্ত অ্যান্ড্রু ফ্লিনটসের বিপরীতে তার এ অন্তর্ভূক্তি।অন্তর্ভুক্তি। এক সপ্তাহ পর লর্ডসে [[Graham Onions|গ্রাহাম অনিয়ন্সের]] সাথে তারও টেস্ট অভিষেক ঘটে। খেলায় তিনি ৯ রান সংগ্রহ করেছিলেন ও কোন উইকেট লাভ করতে সক্ষমতা দেখাতে পারেননি। দ্বিতীয় খেলায় [[Brendan Nash|ব্রেন্ডন ন্যাশকে]] আউট করার মাধ্যমে তিনি তার প্রথম উইকেট লাভ করেন।<ref>{{cite web |url=http://content.cricinfo.com/engvwi2009/content/current/story/404858.html |title=Bresnan and Anderson swing through Windies |last=Miller |first=Andrew |date=18 May 2009 |publisher=Cricinfo |accessdate=18 May 2009}}</ref> পরের বলেই [[দীনেশ রামদিন|দীনেশ রামদিনকে]] আউট করেন। খেলায় তিনি তিন উইকেট লাভ করেন। [[২০১০-১১ অ্যাশেজ সিরিজ|২০১০-১১]] মৌসুমে অনুষ্ঠিত [[দি অ্যাশেজ|অ্যাশেজ]] সিরিজে দলের সদস্য হিসেবে মনোনীত হন। [[মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড|এমসিজিতে]] অনুষ্ঠিত [[বক্সিং ডে]] [[বক্সিং ডে টেস্ট|টেস্টে]] ৬ [[উইকেট]] লাভ করেন। তন্মধ্যে শেষ উইকেটটি দখল করে ইংল্যান্ডকে বিজয়ে নিয়ে যান ও ইংল্যান্ড অ্যাশেজ [[ট্রফি]] ফিরে পায়। এ সময়ে ইংল্যান্ড একটিমাত্র টেস্টে পরাজিত হয়। ২০০৯ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে প্রথম ১৩ টেস্টে জয়ী হয়, ১৪তম টেস্ট ড্র এবং পরেরটি [[দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ক্রিকেট দল|দক্ষিণ আফ্রিকা দলের]] কাছে ১৯ জুলাই, ২০১২ তারিখে পরাভূত হয়েছিল।<ref>{{cite web|url=http://stats.espncricinfo.com/ci/engine/player/9310.html?class=1;template=results;type=allround;view=results|title=Statistics: TT Bresnan |publisher=Cricinfo |accessdate=8 April 2012}}</ref><ref>[http://www.bbc.co.uk/sport/0/hi/english/static/cricket/statistics/scorecards/2012/07/87008/html/scorecard.stm;class=1;template=results;type=allround;view=results]</ref>
 
== তথ্যসূত্র ==
৭০,৫৩৩টি

সম্পাদনা