"সাটিরপাড়া কে কে ইন্সটিটিউশন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(তথ্যসূত্র প্রদান ও পরিবর্ধন করা হলো)
 
==[[স্বদেশী আন্দোলন|স্বদেশী আন্দোলনে]] অবদান==
এই স্কুল থেকে যেসব ছাত্র গুরুত্বপূর্ণ তাদের একজন হচ্ছেন [[ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী]]। তিনি [[স্বদেশী আন্দোলন|স্বদেশী আন্দোলনের]] সময় সেখানকার ছাত্র ছিলেন। সেসময় এখানে দুজন শিক্ষক ছিলেন মহিম চন্দ্র নন্দী এবং শীতল চক্রবর্তী। মহিম চন্দ্র নন্দী বিলাতী লবণ ফেলার অপরাধে [[ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার|ঢাকা জেলে]] বন্দি ছিলেন কিছুদিন। ১৯০৯ সালে ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী প্রথমবার জেল থেকে ছাড়া পেলে জেলগেটে শীতল চক্রবর্তী উপস্থিত ছিলেন।<ref>[[ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী]], ''জেলে ত্রিশ বছর'', ধ্রুপদ সাহিত্যাঙ্গন, ঢাকা, ঢাকা বইমেলা ২০০৪, পৃষ্ঠা ১৮৪।৪৬-৪৭।</ref>
 
==তথ্যসূত্র==
৩২,৪৬৫টি

সম্পাদনা