সুত্তপিটক: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

corrected
(Bodhisattwa ব্যবহারকারী সূত্র পিটক পাতাটিকে সুত্তপিটক শিরোনামে স্থানান্তর করেছেন: পালি)
(corrected)
{{PaliCanon}}
'''সূত্র পিটক''' [[বৌদ্ধ ধর্ম|বৌদ্ধ ধর্মের]] [[ত্রিপিটক|ত্রিপিটকের]] তিনটি ভাগের মধ্যে একটি। এই পিটক [[পালি ভাষা|পালি ভাষায়]] রচিত [[থেরবাদ]] [[তিপিটক|তিপিটকের]] [[সুত্ত পিটক|সুত্ত পিটকের]] অনুরূপ।
'''সুত্তপিটক''' ({{lang-pi|सुत्तपिटक}}) বা '''সূত্রপিটক''' ({{lang-sa|सुत्रपिटक}}) [[পালি]] ভাষায় রচিত [[বৌদ্ধ ধর্ম|বৌদ্ধ ধর্ম গ্রন্থ]] [[তিপিটক|তিপিটকের]] দ্বিতীয় পিটক। এই পিটকে [[গৌতম বুদ্ধ]] ও তাঁর প্রধান শিষ্যদের দ্বারা ব্যক্ত দশ সহস্রাধিক [[সুত্ত]] রয়েছে।<ref>{{cite web|title=Sutta Pitaka: The Basket of Suttas"||publisher=Access to Insight (Legacy Edition)|date=30 November 2013|url=http://www.accesstoinsight.org/tipitaka/sutta.html|accessdate= ২৪শে মে, ২০১৫}}</ref>
 
== উৎস ==
সূত্র শব্দের অর্থ সত্যের প্রকাশ । সেই সত্য হলো তথাগত [[গৌতম বুদ্ধ]] সম্বোধির প্রভাবে জ্ঞাত সত্যের প্রকাশ। অন্যভাবে বলা যায় [[চতুরার্য সত্য|চতুরার্য সত্যের]] সূচনা করে বলেই সূত্র। <ref>DR. Shukomal Barua and Suman Kanti Barua - ত্রিপিটক পরিচিতি , Page 24 , Chapter - Sutro Pitok. Bangla Academy December 2000.</ref>
 
== বিশ্লেষণ ==
যে কথা স্বয়ং বুদ্ধ বলেছেন " চারি আর্য্য সত্য বর্জিত কোন ধর্ম নেই।" সুতরাং - দুঃখ , দুঃখের কারণ (সমুদয়) , দুঃখ নিরোধ ও দুঃখ নিরোধের উপায় - এই চারি সত্যের ব্যখামুলক প্রকাশ [[বুদ্ধ]] বচনের যেই অংশে নিহিত তাই সূত্র। সূত্র জাতীয় বুদ্ধ বচন সমুহ ত্রিপিটকের যে বিভাগে একত্রীকরণ করা হয়েছে তাকে সুত্ত পিটক বলে।Prof. Winternitz লিখেছেন " the suttapitak is our mose reliable source for the Dhamma , the religion of Buddha and his earliest disciples" <ref>M Winternitz: A History of Indian Literature , Vol 11 page 34</ref>
 
== আগম ==
{{main|আগম }}
 
সূত্র পিটক পাঁচটি [[আগম|আগমে]] বিভক্ত। এই পাঁচটি আগম হল -
* [[দীর্ঘ আগম]]
* [[মধ্যম আগম]]
* [[সংযুক্ত আগম]]
* [[একোত্তর আগম]]
* [[খুদ্রক আগম]]
 
== নিকায় ==
[[থেরবাদ]] সুত্তপিটক পাঁচটি [[নিকায়|নিকায়ে]] বিভক্ত।<ref>Bhikkhu Bodhi, Connected Discourses of the Buddha (Somerville, Mass.: Wisdom Publications, 2000), p.31</ref><ref>Joy Manné's "Categories of Sutta in the Pali Nikayas and Their Implications for Our Appreciation of the Buddhist Teaching and Literature," Journal of the Pali Text Society 15 (1990): 29-87.</ref> এই পাঁচটি নিকায় হল-
 
* [[দীঘনিকায়]] - এই নিকায়ে সুত্তপিটকের দীর্ঘতম চৌত্রিশটি সুত্তগুলি লিপিবদ্ধ রয়েছে।
[[থেরবাদ]] সুত্ত পিটক পাঁচটি নিকায়ে বিভক্ত। এই নিকায় গুলি সূত্র পিটকের পাঁচটি আগমের অনুরূপ। এই পাঁচটি নিকায় হল-
* [[মজ্ঝিমনিকায়]] - এই নিকায়ে সুত্তপিটকের একশত বাহান্নটি সুত্ত লিপিবদ্ধ রয়েছে।
* [[দীঘ নিকায়]]
* [[সংযুত্তনিকায়]] - এই নিকায়ে দুই হাজার আটশত উননব্বইটি সুত্ত ছাপ্পান্নটি সংযুত্তে বিভক্ত রয়েছে।
* [[মজ্ঝিম নিকায়]]
* [[অঙ্গুত্তরনিকায়]] - এই নিকায়ে এগারোটি নিপাতে সহস্রাধিক সুত্ত লিপিবদ্ধ রয়েছে।
* [[সংযুত্ত নিকায়]]
* [[খুদ্দকনিকায়]] - এই নিকায় [[খুদ্দকপাঠ]], [[ধম্মপদ]], [[উদান]], [[ইতিবুত্তক]], [[সুত্তনিপাত]], [[বিমানবত্থু]], [[পেতবত্থু]], [[থেরগাথা]], [[থেরীগাথা]], [[অপদান]], [[বুদ্ধবংস]], [[চরিয়াপিটক]], [[জাতক]], [[মহানিদ্দেস]], [[চূলনিদ্দেস]] এবং [[পটিসম্ভিদামগ্গ]] নামক পনেরোটি গ্রন্থে বিভক্ত।
* [[অঙ্গুত্তর নিকায়]]
* [[খুদ্দক নিকায়]] (১৬ টি স্বতন্ত্র গ্রন্থ আছে) যথাঃ
# [[খুদ্দকপথ]]
# [[ধম্মপদ]]
# [[উদান]]
# [[ইতিবুত্তক]]
# [[সত্তনিপাত]]
# [[বিমান বুত্থু]]
# [[পেত বুত্থু]]
# [[থের গাথা]]
# [[থেরী গাথা]]
# [[জাতক]]
# [[নিদ্দেশ]]
# [[পতিসম্ভিদমগ্গ]]
# [[অপদান]]
# [[বুদ্ধবংস]]
# [[চরিয়া পিটক]]
# [[নেত্তিপকরন]]
# [[পেটকোপদেশ]]
# [[মিলিন্দ পহ্ন]]
 
== তথ্যসূত্র ==
{{reflist}}
 
{{সুত্তপিটক}}
[[বিষয়শ্রেণী:বৌদ্ধ ধর্ম]]
 
[[বিষয়শ্রেণী:ধর্মগ্রন্থ]]
[[বিষয়শ্রেণী:ত্রিপিটকতিপিটক]]