"একুশে টেলিভিশন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
'''একুশে টেলিভিশন''' বা '''ইটিভি''' ({{lang-en|Ekushey Television বা ETV}}) বাংলাদেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশন সম্প্রচার কেন্দ্র। ২০০০ সালের ১৪ই এপ্রিল এটি সম্প্রচার কার্যক্রম শুরু করে। প্রথমদিকে এটি উন্মুক্ত টেরিষ্টোরিয়াল টেলিভিশন কেন্দ্র হিসেবে সম্প্রচার শুরু করে। টিভি চ্যানেলটির খবরে নতুনত্ব ও অভিনবত্ব থাকার কারণে দর্শকদের কাছে বিপুল জনপ্রিয়তা লাভ করে। শুরুতে টিভি চ্যানেলটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন [[সাইমন ড্রিং]] এবং বার্তা প্রধান ও পরিচালক ছিলেন [[মিশুক মুনীর]]।<ref>[http://news.bbc.co.uk/1/hi/world/south_asia/2289982.stm BBC News]</ref> টিভি সাংবাদিক হিসেবে জ ই মামুন, মুন্নী সাহা, সামিয়া জামান, সামিয়া রহমান প্রমুখ জনপ্রিয়তা অর্জন লাভ করেন।
 
২০০২ সালের ২৯শে আগস্ট টিভি কেন্দ্রটি সম্প্রচার আইন লঙ্ঘনজনিত মামলার কারণে বন্ধ করে দেয়া হয়। স্বাধীনতা বিরোধি অপশক্তি বি.এন.পি জামায়াত জোট খমতায় আসার পরে ষড়যন্তমূলকভাবে টিভি কেন্দ্রটি বন্ধ করে দেয় , এরপর আমাদের স্বাধীনতার অকৃতিম বন্ধু সাইমন ড্রিং ও একুশে টেলিভিশনের তিনজন নির্বাহিকে দেশ ছাড়তে বাধ্য় করে পরবর্তীতে ২০০৫ সালের ১৪ই এপ্রিল পুণরায় সম্প্রচারের অনুমতি লাভ করলেও উন্মুক্ত সম্প্রচার ক্ষমতা বিলোপ করা হয়। ২০০৭ সালের ২৯শে মার্চ থেকে টিভি কেন্দ্রটি বর্তমানে পূর্ণাঙ্গভাবে তাদের সম্প্রচার কার্যক্রম চালাচ্ছে।<ref name="Daily Star">[http://www.thedailystar.net/2006/12/02/d6120201159.htm Daily Star]</ref> টেলিভিশন চ্যানেলটির বর্তমান চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন - আব্দুস সালাম ও অনুষ্ঠান পরিচালক আতিকুল ইসলাম খান।<ref name="Daily Star"/>
 
== সদর দপ্তর ==
বেনামী ব্যবহারকারী