"আন্দালুস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যা?
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যা?)
[[উমাইয়াদের হিস্পানিয়া বিজয়|উমাইয়াদের হিস্পানিয়া বিজয়ের]] পর আন্দালুসকে পাঁচটি প্রশাসনিক ইউনিটে ভাগ করা হয়। এগুলো মোটামুটি আধুনিক [[আন্দালুসিয়া]], [[গেলিসিয়া]] ও [[পর্তুগাল]], [[কাস্টিল]] ও [[লিওন]], [[আরাগন]], বার্সেলোনা কাউন্টি ও [[সেপ্টিমেনিয়া]] নিয়ে গঠিত ছিল।<ref>[[Joseph F. O'Callaghan]], ''A History of Medieval Spain'', Cornell University Press, 1983, p.142</ref> রাজনৈতিক পরিচিতির দিক থেকে এটি যথাক্রমে [[উমাইয়া খিলাফত|উমাইয়া খিলাফতের]] প্রদেশ (৭১১-৭৫০), [[কর্ডোবা আমিরাত]] (৭৫০-৯২৯), [[কর্ডোবা খিলাফত]] (৯২৯-১০৩১) ও [[কর্ডোবা খিলাফত|কর্ডো‌বা খিলাফতের]] [[তাইফা]] রাজ্য হিসেবে ছিল। এসকল শাসনের সময় মুসলিম, খ্রিষ্টান ও ইহুদিদের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় লক্ষ্য করা যায়। [[খ্রিষ্টান]] ও [[ইহুদি|ইহুদিরা]] [[জিজিয়া]] দেয়ার বিনিময়ে স্বায়ত্তশাসন ভোগ করত।<ref>Lewis, Bernard. The Jews of Islam. PrincetMeyrick, Fredrick. The Doctrine of the Church of England on the Holy Communion.on, NJ: Princeton University Press, 1984.pg. 14. "Under the ruling Caliph (the descendant of Mohammed--the prophet of G-d on earth), the Jews were able to preserve their rites and traditions. Peaceful coexistence led to their economic and social expansion. Their status was that of [[Dhimmis]], non-Muslims living in a land governed by Muslims. The Jews had limited autonomy, but full rights to practice their religion, as well as full protection by their Muslim rulers, but this did not occur for free. There was a specific tax called the jizya that Dhimmis had to pay to receive these benefits. Having its origin in the Qur'an, it states Dhimmis who did not pay this tax, should either convert to Islam, or face the death penalty (Qur'an 9, 29). This tax, higher than the tax Muslims had to pay, was in several occasions one of the most important sources of income for the kingdom. The jizya was not only a tax, but also a symbolic expression of subordination (Lewis 14)."It is a common misapprehension that the holy war meant that the Muslims gave their opponents a choice 'between Islam and the sword'. This was sometimes the case, but only when the opponents were polytheist and idol-worshippers. For Jews, Christians, and other 'People of the Book', there was a third possibility, they might become a 'protected group', paying a tax or tribute to the Muslims but enjoying internal autonomy" (Watt 144)</ref> করডোবা খিলাফতের সময় আন্দালুস জ্ঞানের আলোকে পরিণত হয় এবং [[কর্ডো‌বা, আন্দালুসিয়া|কর্ডো‌বা]] ইউরোপসহ ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল ও মুসলিম বিশ্বের অন্যতম সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক কেন্দ্রে পরিণত হয়। [[জাবির ইবনে আফলা]], [[আবু ইশাক ইবরাহিম আল জারকালি]], [[আবুল কাসিম আল জাহরাউয়ি]], ও [[ইবনে জুহর]]দের [[ত্রিকোণমিতি]], [[জ্যোতির্বিজ্ঞান]], [[শল্যচিকিৎসা]], [[ওষুধ]] ও অন্যান্য নানা বিষয় সংক্রান্ত গবেষণার ফলে ইসলামি ও পশ্চিমা সমাজ অগ্রগতি অর্জন করে। আন্দালুস ইউরোপ ও ভূমধ্যসাগর অঞ্চলের প্রধান শিক্ষাকেন্দ্রের অন্যতম পরিগণিত হত এবং তা মুসলিম ও খ্রিষ্টান বিশ্বের মধ্যে সাংস্কৃতিক ও বৈজ্ঞানিক আদানপ্রদানের স্থল হয়ে উঠে।
 
ইতিহাসের অধিকাংশ সময়জুড়ে আন্দালুসের সাথে উত্তরের খ্রিষ্টান রাজ্যগুলোর বিরোধ চলেছিল। উমাইয়া খিলাফতের পতনের পর আন্দালুস কয়েকটি রাজ্যে বিভক্ত হয়ে পড়ে যার মধ্যে [[গ্রানাডা আমিরাত]] উল্লেখযোগ্য। খ্রিষ্টান কাস্টিলিয়ানদের হামলা বৃদ্ধি পেতে থাকে। [[আলমোরাভি রাজবংশ|আলমোরাভি সাম্রাজ্য]] হস্তক্ষেপ করে খ্রিষ্টান হামলা প্রতিহত করে, দুর্বল আন্দালুসিয়ান মুসলিম রাজাদের সরিয়ে আন্দালুসকে সরাসরি [[বার্বার জাতি|বার্বার]] শাসনের আওতায় আনা হয়। পরবর্তী শতাব্দীগুলোতে আন্দালুস [[মারাকেশ]] ভিত্তিক [[বার্বার জাতি|বার্বার]] মুসলিম সাম্রাজ্য [[আলমোরাভি রাজবংশ|আলমোরাভি]] ও [[আলমোহাদ খিলাফত|আলমোহাদের]] প্রদেশে পরিণত হয়।
 
শেষপর্যন্ত উত্তরের খ্রিষ্টান রাজ্যগুলো তাদের মুসলিম প্রতিবেশি রাজ্যগুলোকে উৎখাত করতে সক্ষম হয়। ১০৮৫ সালে ষষ্ঠ অলফেনসো [[টলেডো, স্পেন|টলেডো]] দখল করেন। এরপর মুসলিমদের ধীরে ধীরে পতনের সূচনা হয়। ১২৩৬ সালে করডোবার পতনের পর [[গ্রানাডা আমিরাত]] বর্তমান স্পেনের একমাত্র মুসলিম অঞ্চল হিসেবে টিকে ছিল। ১২৪৯ পর্তুগিজ [[রিকনকোয়েস্টা]] শুরু হয় এবং পর্তুগালের তৃতীয় অলফেনসো [[আলগারভ]] জয় করেন। ১২৩৮ সালে [[গ্রানাডা আমিরাত]] [[কাস্টিল রাজ্য|কাস্টিল রাজ্যের]] করদ রাজ্যে পরিণত হয়। অবশেষে ১৪৯২ সালের ২ জানুয়ারি [[আমির]] [[দ্বাদশ মুহাম্মদ (গ্রানাডা)|দ্বাদশ মুহাম্মদ]] কাস্টিলের রাণী [[প্রথম ইসাবেলা|প্রথম ইসাবেলার]] কাছে আত্মসমর্পণ করেন। ইসাবেলা ও তার স্বামী [[দ্বিতীয় ফার্ডিনেন্ড (আরাগন)|দ্বিতীয় ফার্ডিনেন্ড]] একত্রে "ক্যাথলিক সম্রাট" বলা হত। আত্মসমর্পণের পর আন্দালুসের রাজনৈতিক পরিচিতির অবসান ঘটে। এ অঞ্চলে ইসলামি সংস্কৃতির চিহ্ন এখনও বিদ্যমান রয়েছে।
 
==আরও দেখুন==
১,৭৪,২৯৯টি

সম্পাদনা