জাখসেন: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

 
জ্যাক্সোনির [[লাইপজিগ]] অঞ্চলে বেকারত্বের হার সবচেয়ে বেশি। এখানে [[বিএমডব্লিউ]] ও [[পোর্শা]]-এর বিনিয়োগের পরেও বেকারত্ব খুব একটা হ্রাস পায়নি। মোটরগাড়ি নির্মাণ শিল্প জ্যাক্সোনির অর্থনীতির অন্যতম চালিকা শক্তি। জ্যাক্সোনির ফ্রাইবার্গ আগে খনি শিল্পভিত্তিক ছিল, তবে এটি বর্তমানে সৌর শক্তি সম্পর্কিত প্রযুক্তির জন্যে সুপরিচিত। [[ড্রেসডেন]] এবং আশেপাশের কিছু এলাকা জৈবপ্রযুক্তির ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিকভাবে সুপরিচিত। এসব উচ্চ-প্রযুক্তিগত খাত খুব বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি না করলেও তা জ্যাক্সোনির মেধা-স্থানান্তর বা ব্রেইন-ড্রেন নিরসণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। স্থানীয় শিল্প-কারখানাগুলির সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে এখানকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলি তাদের মান উন্নয়ন করছে। ড্রেসডেন ও লাইপজিগের জনসংখ্যা হার ক্রমবর্ধমান হলেও জ্যাক্সোনির অন্যান্য ছোট শহরের জনসংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে।<ref>[http://de.statista.com/statistik/daten/studie/36651/umfrage/arbeitslosenquote-in-deutschland-nach-bundeslaendern/ • Arbeitslosenquote in Deutschland nach Bundesländern 2013 | Statistik]. De.statista.com. Retrieved on 2013-07-16.</ref>
 
==ধর্ম==
২০০৯ সা; নাগাদ জ্যাক্সোনির ২০.৫% মানুষ জার্মান ইভাঞ্জেলিক্যাল চার্চে বিশ্বাসী। ৩.৬% মানুষ ক্যাথলিক চার্চে বিশ্বাসী এবং বাকি ৭৫.৯% মানুষ অন্যান্য ধর্মে বিশ্বাসী কিংবা নাস্তিক।
 
== তথ্যসূত্র==