"ইভা পেরন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

Robot: es:Eva Perón is a featured article; কসমেটিক পরিবর্তন
(Robot: es:Eva Perón is a featured article; কসমেটিক পরিবর্তন)
== ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে ==
=== জুয়ান পেরনের গ্রেফতার ===
=== ১৯৪৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ===
== ইউরোপ ভ্রমণ ==
== সমাজসেবা ও নারীবাদী কর্মকাণ্ড ==
=== ইভা পেরন ফাউন্ডেশন ===
=== নারীবাদী পেরনিস্ট পার্টি ===
== ১৯৫১ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ==
=== ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রতিদ্বন্দীতা ===
=== পুণঃনির্বাচন ===
== ইভা পেরন; ক্যান্সার ও মৃত্যু ==
== লাশ নিয়ে রাজনীতি ==
== ইতালিতে স্থানান্তর ==
== স্পেনে সমাধিস্থ হওয়ার পর পুণরায় আর্জেন্টিনায় প্রত্যাগমণ ==
== জীবন ও কর্ম ==
=== আর্জেন্টিনা ও ল্যাতিন আমেরিকা ===
=== বিশ্ব সভ্যতা ===
== আকর্ষণীয় ফিগার ও ব্যক্তিত্ব ==
আর্জেন্টিনীয় মেয়েদের চেয়ে লম্বা ছিলেন তিনি। উচ্চতা ছিলো ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি। মধুর রঙের মতো ঘন সোনালি চুল ছিলো আর বড় বড় কালো-পিঙ্গল চোখ। শরীরটা কিছুটা মুটিয়ে গেলেও ফিগার ঠিক রাখার ব্যাপারে তিনি ছিলেন সচেতন। অতযত্নের সঙ্গে নিজেকে ফিট রাখতেন ইভা। লেখাপড়া ছিলো খুবই সামান্য। জুয়ান পেরনের সঙ্গে সাক্ষাতের পর তার মনের উচ্চাশা আরও বেড়ে যায়। ক্ষমতা দখল করে জুয়ান পেরন আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট-[[ডিকটেটর]] হওয়ার পর, ইভা তাকে ছায়ার মতো সঙ্গ দেন। গতানুগতিক প্রেসিডেন্টের স্ত্রীর মর্যাদার বাইরে তিনি তার গরিব ও নিম্নশ্রেণির জনগণের জন্য কাজ শুরু করেন। [[রাজনীতিতে]] অবতীর্ণ হয়ে তিনি ধনিকশ্রেণি ও তার ব্যক্তিগত শত্রুদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে চলেন। পেরন [[দম্পতির]] শাসনে আর্জেন্টিনায় কিছু সংস্কারমূলক কর্মসূচি গৃহীত হয়। আর্জেন্টিনাবাসীর স্পেনীয় ভাষায় ইভা যাদেরকে বলতেন, লস দেস শামিসাদস’ বস্ত্রহীন সেই গরিবদের অন্তররাজ্যের [[সম্রাজ্ঞী]] হয়ে উঠেন। একদার [[কৃষককন্যা]] ইভা তার ভক্ত প্রজাকুলের সামনে দাঁড়াতেন রাজকীয় পোষাক পরে। গায়ে পড়তেন দামি [[হীরার]] গহনা। ইভা মেয়েদের [[ভোটাধিকারের]] প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে কথা বলেন। শ্রমিকদের সংগঠিত করে ইভা পেরন ফাউন্ডেশনের’ নামে সরকারি কোষাগারের কোটি কোটি টাকা জনকল্যাণ কর্মসূচিতে (এবং নিজের [[সুইস ব্যাংক]] একাউন্টে) ঢালেন; আর এতে গরিব জনগণ তাকে স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থন দেয়।
 
[[বিষয়শ্রেণী:অভিনেত্রী]]
 
{{Link FA|es}}
৭৩,৬২০টি

সম্পাদনা