প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সংজ্ঞার্থ নিরূপণ
(সম্প্রসারণ করা হয়েছে)
(সংজ্ঞার্থ নিরূপণ)
[[টেস্ট ক্রিকেট]] খেলা ক্রিকেটের সর্বোচ্চ স্তরের ও আদর্শ মানদণ্ডরূপে বিবেচিত এবং এটি স্বয়ংক্রীয়ভাবে নিজেই প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট হিসেবে পরিগণিত। তারপরও ''প্রথম-শ্রেণী'' [[পরিভাষা|পরিভাষাটি]] সচরাচর ও কেবলমাত্র ঘরোয়া [[প্রতিযোগিতা|প্রতিযোগিতাতেই]] সর্বাধিক ব্যবহৃত হয়ে আসছে। একজন [[ক্রিকেট|ক্রিকেটারের]] প্রথম-শ্রেণীর পরিসংখ্যানেও টেস্ট খেলায় সংগৃহীত ব্যক্তিগত পরিসংখ্যান অন্তর্ভূক্ত করা হয়।
 
সাধারণতঃ প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলাগুলোয় উভয় দলে এগারোজন করে খেলোয়াড় থাকে। কিন্তু কিছু কিছু ব্যতিক্রমও লক্ষ্য করা যায়। কমপক্ষে তিনদিনব্যাপী এ ধরনের খেলা পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক অনুষ্ঠিত হলেও ক্রিকেটের ইতিহাসে এর ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। সময়ের দাবী হিসেবে প্রথম-শ্রেণীর প্রতিযোগিতায় প্রায় সকল খেলোয়াড়ই পেশাদারী মনোভাব নিয়ে খেলে থাকেন। কিন্তু পূর্বে অনেক খেলোয়াড়ই সৌখিন খেলোয়াড়রূপে মাঠে নামতেন। প্রথম-শ্রেণীর দল বলতে [[English county|ইংরেজ কাউন্টি]], [[Australian state|অস্ট্রেলীয় রাজ্য]], [[Provinces of South Africa|দক্ষিণ আফ্রিকান প্রদেশ]], নিউজিল্যান্ড প্রদেশ, কিংবা [[ওয়েস্ট ইন্ডিজ|ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেশগুলোর]] ন্যায় ভূ-রাজনৈতিক অঞ্চলের খেলাগুলো বোঝানো হয়ে থাকে।
 
== সংজ্ঞার্থ নিরূপণ ==
=== জিএইচকে ১৮৯৫ ===
১৯৪৭ সালের পূর্ব-পর্যন্ত প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটের সংজ্ঞা ভিন্ন ছিল। মে, ১৮৯৪ সালে গ্রেট ব্রিটেনের [[লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ড|লর্ডসে]] [[Marylebone Cricket Club|মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব]] (এমসিসি)’র কমিটি ও ১৮৯০ সালে থেকে শুরু হওয়া [[County Championship|কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের]] সাথে জড়িত ক্লাবগুলোর সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ক্লাবগুলোর খেলাগুলো ১৮৯৫ সাল থেকে প্রথম-শ্রেণীর বলে গণ্য করা হয়। এ ক্লাবগুলোর পাশাপাশি এমসিসি, [[Cambridge University Cricket Club|ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়]], [[Oxford University Cricket Club|অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়সহ]] সফরকারী জাতীয় ক্রিকেট দল ও এমসিসি অনুমোদিত অন্যান্য দলগুলোর খেলা প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট হিসেবে বিবেচিত হয়।
 
=== আইসিসি ১৯৪৭ ===
<!--
== তথ্যসূত্র ==
৭৭,৩৫৯টি

সম্পাদনা