"দিমিত্রি মেন্দেলিয়েভ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

 
==ছেলে বেলা ও পড়াশুনা==
মেন্ডেলিফ এর জন্ম [[সাইবেরিয়ার|সাইবেরিয়া|সাইবেরিয়ার]] তবলস্কের ভার্খিনি আরেমজিয়েনি গ্রামে। তাঁর বাবা ইভান পাভলোভিচ মেন্ডেলিফ এবং মা মারিয়া দিমিত্রিয়েভনা মেন্ডেলিভা। মেন্ডেলিভের দাদা পাভেল ম্যাক্সিমোভিচ রাশিয়ান অর্থোডোক্স চার্চের একজন ধর্ম যাজক ছিলেন। ইভানোভিচ তাঁর ভাল নামটি পান ধর্মতাত্বিক শিক্ষা গ্রহণের সময়। তিনি একজন অর্থোডক্স খ্রিস্টান ছিলেন যা তাঁর পছন্দ ছিলনা। পরবর্তিতে তিনি ধর্ম ত্যাগ করেন এবং যৌক্তিক একেশ্বর বাদে বিশ্বাসী হোন।<ref>http://starina.library.tver.ru/us-35-1.htm</ref>
 
মেন্ডেলিফের সম্ভবত ১৪ বা ১৭ জন ভাই-বোন ছিল যার মধ্যে উনি ছিলেন সবচাইতে ছোট। তাঁর বাবা ছিলেন চারুকলা, দর্শন ও [[রাষ্ট্রবিজ্ঞানের|রাষ্ট্রবিজ্ঞান|রাষ্ট্রবিজ্ঞানের]] শিক্ষক ছিলেন। তাঁর বাবা মাঝ বয়সেই অন্ধ হয়ে যান এবং তাঁর চাকুরী হারান। তাঁর মায়ের কাধে সংসারের হাল ধরার দায়িত্ব বর্তায়। তিনি গ্লাস ফ্যাক্টরিতে চাকুরী নেন। মেন্ডেলিফের তের বছর বয়সে তিনি তাঁর পিতাকে হারান, যিনি দুর্ভাগ্যক্রমে মেন্ডেলিফের মায়ের ফ্যাক্টরিতে আগুনে পুড়ে মারা যান। মেন্ডেলিফ তবলস্কের জিমনেশিয়াম স্কুলে ভর্তি হন।
 
১৮৪৯ সনে মেন্ডেলিফের মা তাকেতাঁকে সাইবেরিয়া থেকে মস্কো নিয়ে যান উচ্চ শিক্ষার জন্যে। [[মস্কো বিশ্ববিদ্যালয়]] তাঁকে ছাত্র হিসেবে গ্রহণ করেনি। তিনি সেন্ট পিটার্সবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন, যেখানে তিনি পেডালজিক্যাল ইন্সটিটিউট এ পড়াশোনা করেন। তাঁর পুরো পরিবার তাঁর সাথে সেন্ট পিটার্সবার্গে চলে আসে। গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করার পরে তাঁর যক্ষা হয় এবং যার ফলে তিনি ক্রিমিন পেনিনসুলায় চলে যান, জায়গাটা ছিল [[কৃষ্ণ সাগরেরসাগর|কৃষ্ণ সাগরসাগরের]] এর দক্ষিণে। সেখানে থাকাকালীন সময়ে তিনি একটি বিদ্যালয়ে বিজ্ঞানের শিক্ষক হিসেবে কিছুকাল শিক্ষকতা করেন। ১৮৫৭ সনে তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে সেন্ট পিটার্সবার্গে ফিরে আসেন।
 
==পরবর্তি জীবন==
৮৪টি

সম্পাদনা