"মোশি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎জন্ম ও শৈশব: বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে, কোন সমস্যা?
(বট কসমেটিক পরিবর্তন করছে; কোনো সমস্যা?)
(→‎জন্ম ও শৈশব: বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে, কোন সমস্যা?)
[[চিত্র:Edwin Long 002.jpg|right|thumb|250px| ১৮৮৬ সালে [[Edwin Long|এডুয়ার্ড লং]] এর আঁকা স্নানরত বিত্য শিশু মুসাকে খুঁজে পেয়েছেন।]]
 
হিব্রু বাইবেল অনুসারে মুসা মিশরে লিবাইট নামের ইসরাইলি গোত্রে জন্মগ্রহন করেছিলেন। তার পিতার নাম আমরাম আর মায়ের নাম জোশিবেদ। তখন মিশরের সম্রাট ছিল ফেরাউন রামেসিস। কয়েকজন জ্যোতিষী গণনা করে রামেসিসকে বলেছিলেন, ইহুদি পরিবারের মধ্যে এমন এক সন্তান জন্মগ্রহণ করবে যে ভবিষ্যতে মিসরের পক্ষে বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে। তাই ‘ফেরাউন’ আদেশ দিলেন কোনো ইহুদি পরিবারে সন্তান জন্মগ্রহণ করলেই যেন তাকে হত্যা করা হয়।
 
 
ফলে শিশু মুসা জন্মের পর মা জোশিবিদ সকলের চোখের আড়ালে সম্পূর্ণ গোপনে শিশুসন্তানকে বড় করে তুলতে লাগলেন। এভাবে তিন মাস যাওয়ার পর সন্তানকে গোপন রাখা আর সম্ভব পর হচ্ছিল না তখন আমরাম এবং জোশিবেদ শিশু মুসাকে একটা ছোট ঝুড়িতে করে নীল নদে ভাসিয়ে দিল । নদীর পাড় ধরে শিশু বাহী ঝুড়িটিকে অনুসরণ করে চললেন মুসা বোন মিরিয়াম। ঝুড়িটি গিয়ে পৌছল এমন একটি ঘাটে যেখানে ফারাও রাজকণ্যা বাত্য (Batya) গোসল করছিলেন। ফুটফুটে সুন্দর একটা বাচ্চাকে একা পড়ে থাকতে দেখে তার মায়া হলো। তাকে তুলে নিয়ে এলো রাজপ্রাসাদে। সেটা দেখতে পেল মিরিয়াম। মিরিয়অম রাজকণ্যার কাছে গিয়ে জানতে চাইলো বাচ্চাটার লালন পালনের জন্য তার কোন হিব্রু মহিলা প্রয়োজন হবে কিন, রাজকন্যা বাত্য সম্মত হলে জোশিবেদকেই মুসার ধাত্রী হিসেবে নিযু্ক্ত হল। নিজের পরিচয় গোপন করে রাজপ্রাসাদে মুসাকে দেখাশোনা করতে থাকে জোশিবেদ। ফারাও রাজ প্রাসাদে বড় হতে থাকে মোজেস।
১,৭৬,৪২২টি

সম্পাদনা