"শতক (ক্রিকেট)" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট ওয়েব লিঙ্ক ঠিক করেছে
(বট কসমেটিক পরিবর্তন করছে; কোনো সমস্যা?)
(বট ওয়েব লিঙ্ক ঠিক করেছে)
[[চিত্র:Master Blaster at work.jpg|right|thumb|250px|টেস্ট ক্রিকেট ও একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক রান ও সর্বাধিক সেঞ্চুরির বিশ্বরেকর্ড ধারণ করে আছেন ভারতের [[সচিন তেন্ডুলকর]]।]]
'''শতক''' বা '''শতরান''' ({{lang-en|Century}}) বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় খেলা [[ক্রিকেট|ক্রিকেটের]] অন্যতম অনুসঙ্গ বিষয় ও [[ক্রিকেটের পরিভাষা|ক্রিকেটীয় পরিভাষা]]। ব্যাটিংকারী দলের কোন [[ব্যাটসম্যান]] কর্তৃক একটি ইনিংসে ১০০ বা তদূর্ধ্ব [[রান (ক্রিকেট)|রান]] সংগ্রহের মাধ্যমে সেঞ্চুরি লাভ করেছেন বলে স্কোরকার্ডে তুলে ধরা হয়। এছাড়াও এ পরিভাষাটি দুইজন ব্যাটসম্যানের অংশীদারিত্বে গঠিত জুটিতে প্রয়োগ করা হয় ‘সেঞ্চুরি পার্টনারশিপ’ হিসেবে। সেঞ্চুরি একজন ব্যাটসম্যানের পরম আরাধ্য বিষয় ও গুরুত্বপূর্ণ পদচারণা হিসেবে স্বীকৃত। সাধারণতঃ একজন [[খেলোয়াড়|খেলোয়াড়ের]] ব্যক্তিগত পরিসংখ্যানে সংখ্যাগতভাবে তুলে ধরা হয়। একজন ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিকে একজন [[বোলার (ক্রিকেট)|বোলার]] কর্তৃক এক ইনিংসে সংগৃহীত ৫ [[উইকেট|উইকেটের]] সমমান হিসেবে খসড়াভাবে মনে করা হয়। ২০০, ৩০০, ৪০০ কিংবা ৫০০ রানও সেঞ্চুরি হিসেবে গণ্য যদিও এ রানগুলো যথাক্রমে ডাবল সেঞ্চুরি (দ্বি-শতক = ২০০-২৯৯), ট্রিপল সেঞ্চুরি (ত্রি-শতক = ৩০০-৩৯৯), কোয়াড্রপল সেঞ্চুরি (৪০০-৪৯৯) নামে পরিচিত। যদি কোন ব্যাটসম্যান ৫০-৯৯ রান সংগ্রহ করেন, তাহলে তিনি অর্ধ-শতরান বা অর্ধ-শতক বা হাফ-সেঞ্চুরি করেছেন। এভাবে ৯৯ রান থেকে যদি ব্যাটসম্যান ১০০ রান করেন, তাহলেই তা পরিসংখ্যানে শতরান হিসেবে গণ্য করা হয়।<ref>"[http://www.smh.com.au/news/SPORT/England-gives-it-to-Aussies-at-Ashes/2006/12/02/1164777827419.html England gives it to Aussies at Ashes]", ''Sydney Morning Herald'', Dec. 2, 2006.</ref>
 
বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বাপেক্ষা সফল সাবেক [[ভারত জাতীয় ক্রিকেট দল|ভারতীয়]] ব্যাটসম্যান [[সচিন তেন্ডুলকর]] [[টেস্ট ক্রিকেট|টেস্ট ক্রিকেটে]] সবচেয়ে বেশী [[আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শচীন তেন্ডুলকরের শতরানের তালিকা#টেস্ট ক্রিকেটে শতরানের তালিকা|৫১টি]] সেঞ্চুরি করেছেন।<ref>[http://stats.cricinfo.com/ci/content/records/227046.html Test centuries]</ref>
 
== দ্রুততম সেঞ্চুরি ==
২৩ এপ্রিল, ২০১৩ সালে [[ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল|ওয়েস্ট ইন্ডিজের]] মারকুটে ব্যাটসম্যান [[ক্রিস গেইল]] [[আন্তর্জাতিক ক্রিকেট|আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের]] ৩টি পদ্ধতির (টেস্ট, একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এবং টুয়েন্টি২০) যে-কোনটিতে দ্রুততম সেঞ্চুরি করেন। [[ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ|ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের]] টি২০ ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে পুনে ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে তিনি মাত্র ৩০ [[বল (ক্রিকেট)|বলে]] এ কীর্তিগাঁথা রচনা করেন।<ref>[http://wwwarchive.prothom-alo.com/detail/date/2013-04-23/news/347094 ‘অতিমানবীয়’ গেইল, প্রথম আলো, ২৩ এপ্রিল ২০১৩]</ref> পূর্বতন রেকর্ডটি ছিল অস্ট্রেলিয়ার [[Andrew Symonds|অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের]] ৩৪ বলে। এছাড়াও তিনি [[টুয়েন্টি২০]] ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশী ১১টি সেঞ্চুরি করেন।
 
একদিনের ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্রুততম সেঞ্চুরির [[বিশ্বরেকর্ড]] গড়েন [[নিউজিল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দল|নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের]] অল-রাউন্ডার [[কোরে অ্যান্ডারসন]]। ১ জানুয়ারি, ২০১৪ তারিখে [[কুইন্সটাউন ইভেন্টস সেন্টার]] স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত তৃতীয় ওডিআইয়ে [[ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল|ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের]] বিরুদ্ধে এ রেকর্ড স্থাপন করেন। মাত্র ৩৬ বলে দ্রুততম সেঞ্চুরি করার ফলে তিনি শহীদ আফ্রিদি’র ১৯৯৬ সালে ৩৭ বলের সেঞ্চুরির ১৭ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙ্গে দেন।<ref>[http://www.abc.net.au/news/2014-01-01/anderson-smashes-odi-century-record/5181234 "Corey Anderson smashes ODI world record bringing up century against West Indies in 36 balls"। ABC Grandstand (Australian Broadcasting Corporation)। 1 January 2014। সংগৃহীত 1 January 2014।]</ref>
৩,৪২,৭০০টি

সম্পাদনা