"গারফিল্ড সোবার্স" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

খেলোয়াড়ী জীবন - নতুন পরিচ্ছেদ সৃষ্টি
(+ 11 categories using HotCat)
(খেলোয়াড়ী জীবন - নতুন পরিচ্ছেদ সৃষ্টি)
| heightft = ৫
| heightinch = ১১
| batting = [[ব্যাটসম্যান|বামহাতি ব্যাটসম্যান]]
| bowling = বামহাতি [[Fast bowling|ফাস্ট মিডিয়াম]] <br>[[Left-arm orthodox spin|স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স]]<br>[[Left-arm unorthodox spin|স্লো লেফট-আর্ম চায়নাম্যান]]
| role = [[all-rounder|অল-রাউন্ডার]]
| source = http://content-uk.cricinfo.com/ci/content/player/52946.html Cricinfo
}}
'''স্যার গারফিল্ড সেন্ট আব্রানঅব্রান সোবার্স''' বা '''গ্যারি সোবার্স''' ({{lang-en|Garfield Sobers}}; [[জন্ম]]: [[২৮ জুলাই]], [[১৯৩৬]]) [[বার্বাডোস|বার্বাডোসের]] ব্রিজটাউনে জন্মগ্রহণকারী [[ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল|ওয়েস্ট ইন্ডিজের]] বিখ্যাত [[ক্রিকেটার]]। ক্রিকেট বোদ্ধাদের অনেকেই তাঁকে [[টেস্ট ক্রিকেট|টেস্ট ক্রিকেটের]] ইতিহাসে সর্বকালের সেরা [[অল-রাউন্ডার]] হিসেবে বিবেচনা করে থাকেন।
 
[[ব্যাটিং (ক্রিকেট)|ব্যাটিং]]-[[বোলিং (ক্রিকেট)|বোলিং]] উভয়ক্ষেত্রেই তিনি সমান পারদর্শীতা দেখিয়েছেন। ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি ছিলেন খুবই উঁচুমানের এবং বোলিংয়েও কার্যকারিতা প্রদর্শন করেছেন। ফাস্ট বোলিং এবং স্পিনার - উভয়ভাবেই বোলিং করেছেন।
 
== খেলোয়াড়ী জীবন ==
বার্বাডোসের বে সেন্ট স্কুলে পড়াশোনা করেন। ক্রিকেট খেলায় তিনি মূলতঃ বামহাতি ব্যাটসম্যান ও বামহাতি বোলার হিসেবে পরিচিত ছিলেন। ব্যতিক্রমধর্মী বোলার হিসেবে পরিচিত ছিলেন সোবার্স। ওভারের এক-একটি বলকে মিডিয়াম পেস থেকে শুরু করে বামহাতি স্পিন করতেন। ফিল্ডার হিসেবেও যে-কোন অবস্থানে থেকে তিনি সফলতা দেখিয়েছেন। তবে উইকেটের কাছাকাছি এলাকাতেই ফিল্ডিং করতে পছন্দ করতেন।
 
১৬ বছর বয়সে [[প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট|প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে]] যোগ দেন। ১৯৫৩-৫৪ মৌসুমে [[ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল|ইংল্যান্ডের]] বিপক্ষে বোলিং করেন। তার দল [[অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ক্রিকেট দল|অস্ট্রেলিয়াকে]] পরাভূত করে। ১৯৫৭-৫৮ মৌসুমে [[পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দল|পাকিস্তানের]] বিপক্ষে অনুষ্ঠিত টেস্টের এক ইনিংসে সোবার্স [[অপরাজিত (ক্রিকেট)|অপরাজিত]] ৩৬৫ রান করেন। এ রান করার ফলে তিনি [[বিশ্বরেকর্ড]] করেন যা ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত অক্ষত ছিল। তারপর ১৯৬৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ করতে দলকে সহায়তা করেন।
 
== কীর্তিগাঁথা ==
টেস্ট ক্রিকেটে তিনি প্রায় বিশ বছর জড়িত ছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে ৩৯বার [[অধিনায়ক (ক্রিকেট)|নেতৃত্ব]] দেন। এছাড়াও তিনি ১৯৬৮ থেকে ১৯৭৪ সাল পর্যন্ত [[কাউন্টি ক্রিকেট|কাউন্টিতে]] [[নটিংহ্যামশায়ার ক্রিকেট দল|নটিংহ্যামশায়ার ক্রিকেট দলের]] অধিনায়ক ছিলেন।
 
১৯৭৪ সালে বর্ণাঢ্য ক্রিকেট জীবন থেকে [[অবসর]] গ্রহণ করেন গ্যারি সোবার্স। এ সময়ে তিনি ৮,০৩২ রান করেন যা তৎকালীন সময়ে বিশ্বরেকর্ড ছিল। এছাড়াও তিনি ২৬টি [[সেঞ্চুরি (ক্রিকেট)|সেঞ্চুরি]] করেন। ২০০০ সালে [[উইজডেন অ্যালম্যানাক|উইজডেন]] কর্তৃপক্ষ কর্তৃক তিনি শতাব্দীর সেরা পাঁচ ক্রিকেটারের একজনরূপে মনোনীত হন।
 
সোবার্স ক্রিকেট বিষয়ক বেশ কয়েকটি পুস্তক রচনা করেছেন। এছাড়াও, ১৯৬৭ সালে বোনাভেঞ্চার এন্ড দ্য ফ্ল্যাশিং ব্লেড শীর্ষক উপন্যাস এবং একই বছরে জে.এস. বার্কারের সাথে যৌথভাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেট ইতিহাস নামের বই প্রকাশ করেন।
 
== তথ্যসূত্র ==
৭২,১৬২টি

সম্পাদনা