"চার্লস, প্রিন্স অব ওয়েলস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্প্রসারণ করা হয়েছে
(ইনফো বক্স তৈরি করা হয়েছে)
(সম্প্রসারণ করা হয়েছে)
 
== প্রারম্ভিক জীবন ==
১৪ নভেম্বর, ১৯৪৮ তারিখে{{sfn|Brandreth|p=120|2007}} গ্রীনিচ মান সময় ৯:১৪ ঘটিকায় বাকিংহাম প্রাসাদে চার্লস জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর জন্মের পূর্বেই ২২ অক্টোবর, ১৯৪৮ তারিখে রাজা [[ষষ্ঠ জর্জ|ষষ্ঠ জর্জের]] রাজাজ্ঞা পত্রের মাধ্যমে ঘোষিত হয়েছিল যে, প্রিন্সেস এলিজাবেথ এবং ডিউক অব এডিনবরার কোন সন্তান জন্মগ্রহণ করলেই সন্তানটি রাজকুমার হিসেবে বিবেচিত হবে। সেইসূত্রে চার্লস জন্মকালীন সময় থেকেই প্রিন্সের মর্যাদাপ্রাপ্ত হন।<ref>{{London Gazette|issue=38452|startpage=5889|date=9 November 1948}}</ref>
বাকিংহাম প্রাসাদের অভ্যন্তরে গৃহশিক্ষা লাভের পর তিনি লন্ডন, হ্যাম্পশায়ার এবং স্কটল্যান্ডে পড়াশোনা করেন। এরপর ১৯৬৭ সালে কেমব্রিজের ট্রিনিটি কলেজে ভর্তি হন। ১৯৭১ সালে সেখান থেকে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি অ্যাবেরিস্টিথ ইউনিভার্সিটি কলেজ অব ওয়েলসে অধ্যয়ন করেন। এরপর রয়্যাল এয়ারফোর্স কলেজ ও ডার্টমাউথের রয়্যাল নেভাল কলেজে ভর্তি হন। ১৯৭১ থেকে ১৯৭৬ মেয়াদকালের রয়্যাল নেভিতে সফরকালীন দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীকালে আধুনিক স্থাপত্যবিদ্যার সমালোচকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন চার্লস। ১৯৮৯ সালে এ ভিশন অব ব্রিটেন নামীয় সাময়িকীতে তিনি এ সম্পর্কীয় মতামত প্রতিফলন করেন। ১৯৯২ সালে তিনি প্রিন্স অব ওয়েলস ইনস্টিটিউট অব আর্কটেকচার নামীয় প্রতিষ্ঠান গঠন করেন। এ প্রতিষ্ঠানটি পরবর্তীতে শহর পুণর্গঠন ও উন্নয়ন প্রকল্প হিসেবে পরিচিত বিআরই ট্রাস্টের সাথে জড়িত হয়।
 
১৯৫৫ সালে বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে ঘোষণা করা হয় যে, চার্লস গৃহ অভ্যন্তরে পড়াশোনা করবেন ও প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষালাভের অধিকারী হবেন। এরফলে তিনিই প্রথম রাজসিংহাসনের দাবীদার হিসেবে প্রথম এ ধরণের শিক্ষার সুযোগ লাভ করেন।<ref name="time 1988">{{Cite news |title = Growing Up Royal |work=Time |date = 25 April 1988 |url = http://www.time.com/time/daily/special/diana/readingroom/8191/4_25.html |accessdate =4 June 2009 }} {{dead link|date=March 2012}}</ref> বাকিংহাম প্রাসাদের অভ্যন্তরে গৃহশিক্ষা লাভের পর তিনি লন্ডন, হ্যাম্পশায়ার এবং স্কটল্যান্ডে পড়াশোনা করেন। এরপর ১৯৬৭ সালে কেমব্রিজের ট্রিনিটি কলেজে ভর্তি হন। ১৯৭১ সালে সেখান থেকে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি অ্যাবেরিস্টিথ ইউনিভার্সিটি কলেজ অব ওয়েলসে অধ্যয়ন করেন। এরপর রয়্যাল এয়ারফোর্স কলেজ ও ডার্টমাউথের রয়্যাল নেভাল কলেজে ভর্তি হন। ১৯৭১ থেকে ১৯৭৬ মেয়াদকালের রয়্যাল নেভিতে সফরকালীন দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীকালে আধুনিক স্থাপত্যবিদ্যার সমালোচকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন চার্লস। ১৯৮৯ সালে এ ভিশন অব ব্রিটেন নামীয় সাময়িকীতে তিনি এ সম্পর্কীয় মতামত প্রতিফলন করেন। ১৯৯২ সালে তিনি প্রিন্স অব ওয়েলস ইনস্টিটিউট অব আর্কটেকচার নামীয় প্রতিষ্ঠান গঠন করেন। এ প্রতিষ্ঠানটি পরবর্তীতে শহর পুণর্গঠন ও উন্নয়ন প্রকল্প হিসেবে পরিচিত বিআরই ট্রাস্টের সাথে জড়িত হয়।
 
== ব্যক্তিগত জীবন ==
যুবক বয়সে চার্লস অনেক নারীর সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। চার্লসের বান্ধবীদের তালিকায় ছিলেন - জর্জিনা রাসেল,{{sfn|Brandreth|p=192|2007}} লেডি জেন ওয়েলেসলে,{{sfn|Brandreth|p=193|2007}} ডেভিনা শেফিল্ড,{{sfn|Brandreth|p=194|2007}} লেডি সারাহ ম্যাককরগুডেল,{{sfn|Brandreth|p=195|2007}} ক্যামিলা{{sfn|Brandreth|p=178|2007}} প্রমূখ। অবশ্য পরবর্তীকালে ক্যামিলা চার্লসের দ্বিতীয় পত্নী হয়েছিলেন।{{sfn|Brandreth|pp=15-17|2007}}
 
ডায়ান, প্রিন্সেস অব ওয়েলসকে ১৯৮১ সালে বিয়ে করেন। কিন্তু ১৯৯৬ সালে তাঁদের মধ্যে বিবাহ-বিচ্ছেদ ঘটে। এ সংসারে [[প্রিন্স উইলিয়াম, ডিউক অব কেমব্রিজ|প্রিন্স উইলিয়াম]] ও [[প্রিন্স হ্যারি অব ওয়েলস|প্রিন্স হ্যারি]] নামীয় দুই পুত্র রয়েছে। পরবর্তীতে ২০০৫ সাল থেকে ক্যামিলা, ডাচেস অব কর্নওয়ালের সাথে সংসারধর্ম পালন করছেন চার্লস।
 
৭৩,৫৬০টি

সম্পাদনা