সাবাশ বাংলাদেশ: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

copied directly from here- http://bengali.cri.cn/461/2012/03/23/41s122049.htm
(ক্লিন)
(copied directly from here- http://bengali.cri.cn/461/2012/03/23/41s122049.htm)
'''তবু মাথা নোয়াবার নয়।''''''
 
=== বিবরণ===
 
৪০ বর্গফুট জায়গা নিয়ে ভাস্কর্যটি নির্মাণ করা হয়েছে। পুরো ভাস্কর্যটি একট বিশাল বেদীর ওপর স্থাপিত। কয়েকধাপ সিঁড়ি দিয়ে ভাস্কর্যের মূল বেদীতে উঠতে হয়।ভাস্কর্যের কেন্দ্রীয় অংশে রয়েছে দু'জন বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রতিকৃতি। একজন তরুণ মুক্তিযোদ্ধা রাইফেল হাতে এগিয়ে যাওয়ার ভঙ্গিতে বাঁ পা বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর এক হাতে রাইফেল, অন্য হাত মাথার সামান্য উপরে দৃঢ় মুষ্টিবদ্ধভাবে রয়েছে।তাঁর পরনে লুঙ্গি। উর্ধাংগ উন্মুক্ত। তরুণ মুক্তিযোদ্ধার পেশীবহুল দেহ অমিত শক্তির আভাস দিচ্ছে। তরুণের চুল ঘন ও প্রশস্ত ললাট দৃঢ়তা ও উদারতার প্রতীক। এই মুক্তিযোদ্ধা সাধারণ গ্রামীণ তরুণের প্রতীক যাঁরা দেশকে স্বাধীন করার জন্য বীরবিক্রমে মরণপণ যুদ্ধ করেছেন। অন্য প্রতিকৃতিতে তরুণ মুক্তিযোদ্ধা দুহাতে দৃঢ়ভাবে রাইফেলধরে দৌড়ের ভঙ্গিতে রয়েছেন। এই তরুণ মুক্তিযোদ্ধার পরণে প্যান্ট ও হাফ হাতা শার্ট। বুকের কাছে শার্টের বোতাম কিছুটা খোলা।তরুণের মাথায় এলোমেলো চুলের প্রাচুর্য। চোখের শাণিত দৃষ্টিতে মেধা ও সাহসের ছাপ। দৌড়ের ভঙ্গিতে রয়েছে গতি,সাহস ও বীরত্বের প্রকাশ। তরুণের ঝাকড়া চুল আধুনিক সভ্যতার প্রতীক। এই তরুণ বাংলাদেশের নগরের শিক্ষার্থী মুক্তিযোদ্ধার প্রতীক। মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বিপুল সংখ্যায় অংশগ্রহণ করেছিলেন। বস্তুত মুক্তিযোদ্ধাদের একটি বড় অংশই ছিল তরুণ ছাত্রসমাজ। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়েরও বহু ছাত্র যুদ্ধে অংশ নেন,বীরত্বের সঙ্গে যুদ্ধ করেন। ছাত্র যোদ্ধাদের প্রতীক এই ভাস্কর্যের তরুণ।
 
এ দুজন মুক্তিযোদ্ধার প্রতিকৃতির পিছনে রয়েছে ৩৬ ফুট উঁচু একটি দেয়াল। দেয়ালে উপরের অংশে রয়েছে একটি বৃত্ত। এই বৃত্ত স্বাধীনতার সূর্যের প্রতীক। ভাস্কর্যটির নিচের দিকে ডান ও বাম উভয় পাশে ৬ ফুট বাই ৫ ফুট আয়তাকার দুটি দেয়াল চিত্র রয়েছে। দেয়ালে খোদাই করা রয়েছে দুটি ভিন্ন চিত্র।ডানদিকের দেয়ালে রয়েছে দু'জন যুবক যুবতী। যুবকের কাঁধে রাইফেল,মুখে কালো দাঁড়ি,কোমরে গামছা বাঁধা।এই যুবক মুক্তিযোদ্ধা বাউলের প্রতীক। মুক্তিযুদ্ধে বাউল,লোকজ শিল্পীসহ বাংলাদেশের যে সর্বস্তরের মানুষ অংশ নিয়েছিলেন তা তুলে ধরা হয়েছে এখানে। বাউল তরুনের পাশে রয়েছে একতারা হাতে বাউল তরুণী। ডানদিকের দেয়ালে রয়েছে মায়ের কোলে শিশু,দু'জন তরুণী একজনের হাতে পতাকা।পতাকার দিকে অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রয়েছে গেঞ্জি পরা এক কিশোর। ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ ছিল একটি জনযুদ্ধ। এ জনযুদ্ধে নারী শিশু সহ সর্ব স্তরের জনগণের সক্রিয় অংশগ্রহণ ও সমর্থন ছিল। এই জনতার প্রতীক হলো দেয়ালের প্রতিকৃতিগুলো।
 
বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের চিরন্তন স্মৃতি বহণ করছে স্মারক ভাস্কর্য সাবাশ বাংলাদেশ।
 
=তথ্য সূত্র=