"পরীক্ষাগার" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

নিরাপত্তা
(নিরাপত্তা)
কম্পিউটার বিজ্ঞানীরা [[কম্পিউটার]] কিংবা [[সুপার কম্পিউটার]] ব্যবহার করে ডাটা সংগ্রহপূর্বক বিশ্লেষণের জন্য গবেষণাগার ব্যবহার করেন। অন্যান্য বিষয়ের বিজ্ঞানীরাও তাঁদের উপযোগী করে গবেষণাগারে কর্মরত থাকেন। বিভিন্ন গবেষণাগারের মধ্যে বিরাট ধরনের পার্থক্য থাকলেও প্রায় প্রত্যেকটি গবেষণাগারেই [[কার্যোপযোগী বেঞ্চ]] বা [[ওয়ার্কবেঞ্চ]] থাকে। এ ধরনের [[বেঞ্চ]] মূলতঃ স্বাচ্ছন্দ্যে দাঁড়িয়ে কিংবা বসে কাজ করার নিশ্চয়তা বিধানের জন্যে তৈরী করা হয়। কেননা, একজন [[বিজ্ঞানী]] বা গবেষক দিনের অধিকাংশ সময় গবেষণাগারে ব্যয় করে থাকেন।
 
গবেষণাগারের জন্যে প্রয়োজনীয় উপকরণ ও যন্ত্রাংশ সংরক্ষণের জন্যে ছোট ছোট প্রকোষ্ঠের ব্যবস্থা রাখা হয়। সনাতনী পন্থায় বিজ্ঞানীরা [[পরীক্ষণ|পরীক্ষণের]] উন্নতি কিংবা অবনতির জন্যে [[ল্যাবরেটরী নোটবুক]] ব্যবহার করেন। কিন্তু আধুনিককালের গবেষণাগারগুলোয় কমপক্ষে একটি [[কম্পিউটার ওয়ার্কস্টেশন]] থাকে, যাতে করে [[উপাত্ত]] সংগ্রহ ও তথ্য বিশ্লেষণের জন্যে রাখা হয়। == নিরাপত্তা ==
 
== নিরাপত্তা ==
কিছু গবেষণাগারে অন্যান্য কক্ষের তুলনায় সাধারণতঃ তেমন বিপদজনক পরিবেশ সৃষ্টি করা হয় না। কিন্তু অধিকাংশ ল্যাবেই ক্ষতিকর পদার্থ বিরাজমান থাকে। ক্ষতিকর পদার্থের উপস্থিতি নির্ভর করে শিক্ষা বিষয়ের উপর। বিষাক্ত দ্রব্য, সংক্রামক জীবাণু, অগ্নিশিখা, বিস্ফোরক, তেজস্ক্রিয় পদার্থ, যন্ত্রপাতি নড়াচড়া, উচ্চ তাপমাত্রা, লেজার, শক্তিশালী চৌম্বক শক্তি, উচ্চ ভোল্ট, এসিড ইত্যাদি ক্ষতিকর পদার্থ ও উপকরণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।
 
== তথ্যসূত্র ==
৭৭,২৭৩টি

সম্পাদনা