"আল-কিন্দি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

Using {{lang}}
(r2.7.1) (বট যোগ করছে: no:Al-Kindi)
(Using {{lang}})
| notable_ideas =
}}
'''আবু ইউসুফ ইয়াকুব ইবনে ইসহাক আল-কিন্দি''' ([[আরবি ভাষা{{lang-ar|আরবি ভাষায়]]: أبو يوسف يعقوب بن إسحاق الكندي‎}}) ([[৮০১]] - [[৮৭৩]]) প্রখ্যাত আরব পণ্ডিত। পাশ্চাত্য বিশ্বে তিনি লাতিনিকৃত "আলকিন্ডাস" (Alkindus) নামে পরিচিত। তিনি ছিলেন একাধারে দার্শনিক, বিজ্ঞানী, জ্যোতিষী, জ্যোতির্বিজ্ঞানী, বিশ্বতত্ত্ববিদ, রসায়নবিদ, যুক্তিবিদ, গণিতজ্ঞ, সঙ্গীতজ্ঞ, পদার্থবিজ্ঞানী, মনোবিজ্ঞানী এবং আবহবিজ্ঞানী। মুসলিম পেরিপ্যাটেটিক দার্শনিকদের মধ্যে তিনিই প্রথম। তাই তাকে মুসলিম পেরিপ্যাটেটিক দর্শনের জনক বলা যায়। তার অনেক অর্জনের মধ্যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য ছিল [[গ্রিক দর্শন|গ্রিক]] এবং [[হেলেনীয় দর্শন|হেলেনীয় দর্শনকে]] আরব জগতে পরিচিত করে তোলা। এছাড়া বিজ্ঞানের অনেকগুলো শাখায় তিনি অগ্রদূতের ভূমিকা পালন করেছেন।
 
আল-কিন্দি কিন্দা গোষ্ঠীর লোক। তার জন্ম [[কুফা]] নগরীতে এবং এখানেই শিক্ষা জীবন অতিবাহিত করেছেন। এরপর উচ্চশিক্ষার জন্য [[বাগদাদ]] যান। [[বাইতুল হিকমা|বাইতুল হিকমায়]] তার বিশেষ গুরুত্ব ছিল। আব্বাসীয় বংশের খলিফারা তাকে গ্রিক বিজ্ঞান ও দর্শন গ্রন্থসমূহ আরবিতে অনুবাদের দায়িত্ব দিয়েছিলেন। মুসলিমরা এই গ্রিক ও হেলেনীয় দর্শনকে "প্রাচীনের দর্শন" নামে অভিহিত করতো। প্রাচীনের দর্শন নিয়ে পড়াশোনা করতে গিয়ে আল-কিন্দি নিজস্ব দার্শনিক ও বৈজ্ঞানিক ধারণা প্রতিষ্ঠিত করেন। এই জ্ঞানই তাকে ইসলামী নীতিবিদ্যা থেকে অধিবিদ্যা এবং ইসলামী গণিত থেকে ঔষধবিজ্ঞানের মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মৌলিক গ্রন্থ ও ভাষ্য রচনায় অনুপ্রাণিত করেছিল।
২,০০,১০৩টি

সম্পাদনা