বিজনী নদী

বাংলাদেশের নদী

বিজনী নদী বাংলাদেশ-ভারতের একটি আন্তঃসীমান্ত নদী[১] নদীটির দৈর্ঘ্য ৭ কিলোমিটার, প্রস্থ ২০ মিটার এবং গভীরতা বিজনী রেলওয়ে স্টেশনের নিকট ৩.৫ মিটার। বিজনী নদীর অববাহিকার আয়তন ৭০ বর্গকিলোমিটার। নদীটিতে সারাবছর পানিপ্রবাহ থাকে না এবং জোয়ারভাটার প্রভাব নেই এই নদীতে। বন্যার সময় এই নদীতে বন্যা হয়।[২]

বিজনী নদী
দেশত্রিপুরা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা
প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য
দৈর্ঘ্য৭ কিলোমিটার

উৎপত্তি ও প্রবাহসম্পাদনা

বিজনী নদী ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের পাহাড়ি অঞ্চল থেকে উৎপত্তি লাভ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলা দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। তারপর এটি কিছুদুর প্রবাহিত হয়ে আখাউড়া উপজেলার তিতাস নদীতে পতিত হয়েছে। তাই বিজনী তিতাসের একটি উপনদী।[২]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "আন্তঃসীমান্ত_নদী"বাংলাপিডিয়া। ১৬ জুন ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৪ 
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ২৭২।