বিউটি নাজমুন নাহার

বাংলাদেশী ক্রীড়াবিদ

বিউটি নাজমুন নাহার (জন্ম: জানুয়ারি ১,১৯৮৪) একজন বাংলাদেশি ক্রীড়াবিদ। তিনি বাংলাদেশের হয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের অনেক ট্র্যাক এবং ফিল্ড খেলায় অংশগ্রহণ করেছেন।[১]

বিউটি নাজমুন নাহার
ব্যক্তিগত তথ্য
জাতীয়তাবাংলাদেশ
জন্ম (1984-01-01) ১ জানুয়ারি ১৯৮৪ (বয়স ৩৬)
বাংলাদেশ
ক্রীড়া
ক্রীড়াদৌড়বাজী

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

নাজমুন নাহার ১৯৮৪ সালের ১ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। ছোটবেলায় তার বাবা মারা যায়। তিনি নোয়াখালীর সুবর্ণচরে একটি সরকারি শিশু পল্লীতে বড় হন। ২০০৫ সালে তার মা মারা যায়।[২]

পড়াশোনাসম্পাদনা

নাজমুন নাহার নোয়াখালীর মাইজদি বালিকা বিদ্যানিকেতন থেকে এসএসসি, নোয়াখালী সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন।। সোনাপুর ডিগ্রি কলেজ থেকে ডিগ্রী ও নোয়াখালী সরকারি কলেজ থেকে মাস্টার্স পাশ করেন। মাস্টার্স শেষ করার পর তিনি চট্টগ্রাম শারীরিক শিক্ষা কলেজে ভর্তি হন। সেখান থেকে বিপি-এড ডিগ্রি নেন। এরপর এমপি-এড ডিগ্রী নিয়েছেন উত্তরা ইউনিভার্সিটি।[২]

অ্যাথলেটিকসসম্পাদনা

বাংলাদেশের ঘরোয়া অ্যাথলেটিকসে নাজমুন নাহারকে ‘রানী’ উপনামে ডাকা হয়। বাংলাদেশ জাতীয় অ্যাথলেটিকসে ১৯৯৮ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে তিনি প্রতিবার প্রথম হয়েছেন। ২০০৫ সালে ১০০, ২০০ ও ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে স্বর্ণ জয় করেন। পরবর্তী সময়ে ৪০০ মিটার বাদ দিয়ে ১০০ ও ২০০ মিটার স্প্রিন্টেই খেলেছেন তিনি। ২০০৫ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সামার অ্যাথলেটিকসের ৯টি আসরে সাতটি স্বর্ণপদক জয় করেন তিনি।[২] নাজমুন নাহার ২০০৮ সালে অনুষ্ঠিত বেইজিং গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। উক্ত অলিম্পিক খেলায় তিনি ১০০ মিটার স্প্রিন্টে অংশগ্রহণ করেন এবং অষ্টম স্থান অর্জন করেন, যদিও তিনি পরের রাউন্ডে খেলার সুযোগ পান নি। মাত্র ১২.৫২ সেকেন্ডে নাজমুন নাহার ১০০ মিটার দুরত্ব অতিক্রম করেছিলেন।[১]

পরিবারসম্পাদনা

২০১৭ সালে নাজমুন নাহার বিয়ে করেন। তার স্বামীর নাম মো মেহেদী হাসান। তার শশুড়বাড়ী পাবনায়।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

বিউটি নাজমুন নাহারের আইএএএফ প্রোফাইল (ইংরেজি)(ইংরেজি)