বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক

বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায় (২৮ অগাস্ট, ১৯৭০ – ০৭ নভেম্বর, ২০১৫) ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রের পরিচালক, প্রযোজক তথা একজন কবি ছিলেন।

বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়
বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়
বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়
জন্ম(১৯৭০-০৮-২৮)২৮ আগস্ট ১৯৭০
মৃত্যু৭ নভেম্বর ২০১৫(2015-11-07) (বয়স ৪৫)
কলকাতা, ভারত
পেশাপরিচালক, প্রযোজক
কর্মজীবন১৯৯৯–২০১৫

কর্মজীবনসম্পাদনা

২০০০ সালে, বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত প্রথম সম্প্রদান নামক চলচ্চিত্রটি ৬ম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের জন্য নির্বাচন করা হয়েছিল। সে বছরই চলচ্চিত্রটি বিএফজেএ-এর প্রধান তিনটি বিভাগে পুরস্কার বিজয়ী হয়; যথা, সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী, সেরা পার্শ্ব অভিনেতা ও সেরা নেপথ্য গায়িকা। এছাড়া চলচ্চিত্রটি সেরা সঙ্গীত পরিচালক বিভাগে দিশারি পুরস্কার বিজয়ী হয়।

২০০৩ সালে বিএফজেএ (বঙ্গীয় চলচ্চিত্র সাংবাদিক সঙ্ঘ) কর্তৃক বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়কে বছরের সর্বাধিক আশাজনক পরিচালক পুরস্কার প্রদান করা হয়। শিল্পান্তর নামক তার দ্বিতীয় চলচ্চিত্র সোফিয়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সর্বপ্রথমে প্রদর্শন করা হয়। ২০০৩ সালে ব্রাতিস্লাভা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে চলচ্চিত্রটি প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে নির্বাচন করা হয়েছিল। দেবদাস ছাড়া এটিই একমাত্র ভারতীয় চলচ্চিত্র যেটি ২০০৩ সালে হেলসিঙ্কি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের জন্য নির্বাচিত করা হয়। উক্ত চলচ্চিত্রে অভিনেয়ের জন্য দেবশ্রী রায়কে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে কলাকার পুরস্কার প্রদান করা হয়।

ইংরেজি ও হিন্দি ভাষায় তার তৃতীয় চলচ্চিত্র দেবকী, এতে বলিউডের দুজন অভিনেত্রী পেরিজাদ জোরাবিয়ানসুমন রঙ্গনাথন অভিনয় করেন যা ২০০৬ সালে মুক্তি পায়। এই চলচ্চিত্রটি ইন্ডিয়ান ওসিয়ান বিভাগে ওসিয়ান সিনেফ্যান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শনীর জন্য নির্বাচন করা হয়। চলচ্চিত্রটি অ্যাসভিল চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার পায়।[১]

কাঁটাতার, তার চতুর্থ চলচ্চিত্র ৭ম ওশিয়ান সিনেফ্যান চলচ্চিত্র উৎসবে এশীয় প্রতিযোগিতায় নির্বাচিত হয়। এছাড়া চলচ্চিত্রটি লন্ডনের রেইনড্যান্স চলচ্চিত্র উৎসব-এ প্রদর্শন করা হয়েছিল।

বাপ্পাদিত্য চলচ্চিত্র ছাড়াও বাংলা চ্যানেল আলফা বাংলার জন্য কলকাতার স্থাপত্যের ইতিহাসের উপর আনন্দনগরীর কথাকাটা নামে একটি দূরদর্শন ধারাবাহিকও পরিচালনা করেছেন। উপজাতীয় মুখোস-উপর তৈরি তার একটি তথ্যচিত্র দূরদর্শন-এ সম্প্রচার করা হয়েছিল।

তার কাগজের বউ চলচ্চিত্রটি শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় রচিত একই নামের একটি উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি এবং এটি ২০১০ সালে মুক্তি পায়।

তিনি সম্পাদক দীপক মণ্ডলের সঙ্গে দীর্ঘ সময় সহযোগী ছিলেন, যার সাথে তিনি ২০০৯ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত কাজ করেন।

বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায় একজন কবিও ছিলেন। তার প্রকাশিত রচনাগুলির মধ্যে পোকাদের আত্মীয়স্বজন উল্লেখ্য। তিনি আধুনিক চলচ্চিত্রের বিভিন্ন দিক নিয়ে নিয়মিত লেখালেখি করতেন।[২]

চলচ্চিত্রসমূহসম্পাদনা

বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত চলচ্চিত্রসমূহ নিম্নে উল্লেখ করা হলো। উল্লেখিত চলচ্চিত্রগুলোর বেশ কয়েকটিতে তিনি পরিচালনাসহ চিত্রনাট্য, সংলাপ ও প্রযোজকের কর্তৃত্ব পালন করেছেন।

পরিচালকসম্পাদনা

সাল চলচ্চিত্র ভাষা কুশীলব
১৯৯৯ সম্প্রদান বাংলা অনাসুয়া মজুমদার, সব্যসাচী চক্রবর্তী, জয় সেনগুপ্ত, পাপিয়া অধিকারী, ইন্দ্রাণী হালদার
২০০২ শিল্পান্তর বাংলা শুভাশিস মুখোপাধ্যায়, দেবশ্রী রায়, নিমাই ঘোষ
২০০৫ দেবকী হিন্দি, ইংরেজি পেরিজাদ জোরাবিয়ান, সুমন রঙ্গনাথন, রাম কাপুর
২০০৬ কাঁটাতার বংলা শ্রীলেখা মিত্র, রুদ্রনীল ঘোষ, সুদীপ মুখোপাধ্যায়, নিমাই ঘোষ
২০০৭ কাল বাংলা চন্দ্রেয়ী ঘোষ, সন্ধ্যা সেট্টি, দোলা চক্রবর্তী, সমাপিকা দেবনাথ, রুদ্রনীল ঘোষ
২০০৯ হাউসফুল বাংলা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, রিমঝিম গুপ্ত, নিত্য গঙ্গোপাধ্যায়, ঋতা দত্ত চক্রবর্তী, শ্রীলেখা মিত্র
২০১১ কাগজের বউ বাংলা পাওলি দাম, রাহুল, প্রিয়াঙ্কা সরকার, রিমঝিম, জয় সেনগুপ্ত, ব্রাত্য বসু, গার্গী রায়চৌধুরী, নন্দিনী সরকার
২০১২ এলার চার অধ্যায় বাংলা ইন্দ্রনীল সেন, পাওলি দাম, দীপঙ্কর দে, বরুণ চন্দ, রুদ্রনীল ঘোষ, অরুণিমা ঘোষ, নিত্য গঙ্গোপাধ্যায়, বিক্রম চট্টোপাধ্যায়
২০১৩ নায়িকা সংবাদ বাংলা অরুণিমা ঘোষ, ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত, মমতাজ সরকার, লকেট চট্টোপাধ্যায়
২০১৬ সোহরা ব্রিজ বাংলা প্রতীক সেন, নীহারিকা সিং, বরুণ চন্দ

মৃত্যুসম্পাদনা

০৭ নভেম্বর ২০১৫ সালে কলকাতায় ৪৫ বছর বয়সে একাধিক অঙ্গ ব্যর্থ হওয়ার কারণে বাপ্পাদিত্যের মৃত্যু হয়।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Sunayana Nadkarni (২২ ডিসেম্বর ২০০৫)। "evaki promotes tale of her trauma"IBN। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  2. "Favorite Links"। kantatar.tripod.com। ৮ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  3. "Film-maker Bappaditya Bandopadhyay passes away"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১০ নভেম্বর ২০১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা