বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্লাস ২৮০০

বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্লাস ২৮০০ বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক পরিচালিত বাংলাদেশের মিটার-গেজ ডিজেল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভের একটি শ্রেণী। এই শ্রেণীর মোট ১০টি লোকো ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ রেলওয়ের বহরে যুক্ত হয়।

বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্লাস ২৮০০
ধরন ও উদ্ভব
শক্তির ধরনডিজেল–ইলেক্ট্রিক
নকশাকারঅ্যালকো, ডিএলডব্লিউ
নির্মাণকারীডিএলডব্লিউ, ভারত
মডেলডিএল৫৩৫এ/আরএসডি-৩০ (ওয়াইডিএম-৪বিআর)
নির্মাণের তারিখ১৯৯৬
মোট উৎপাদন১০
সবিস্তার বিবরণী
চাকার বিন্যাস:
 • ইউআইসিসিও-সিও
গেজমিটার-গেজ
বগিঅ্যালকো অ্যাসিমিট্রিক কাস্ট ফ্রেম ট্রাইমাউন্ট
চাকার ব্যাস৯৬৫ মি.মি.
দৈর্ঘ্য১৫.৬ মিটার
প্রস্থ২.৭৩ মি.মি.
উচ্চতা৩.৬৩৫ মি.মি.
অ্যাক্সেল ভার১২,০০০ কেজি
জ্বালানির ধরনডিজেল
জ্বালানি সক্ষমতা৩০০০ লিটার
প্রাইম মুভারঅ্যালকো ২৫১ডি-৬
আরপিএম সীমা৪০০-১১০০ আরপিএম
ইঞ্জিনের ধরনচার-স্ট্রোক ডিজেল
Aspirationটার্বো-সুপারচার্জড
জেনারেটরডিসি
Traction motorsডিসি
সিলিন্ডার
সিলিন্ডারের আকার২২৮ মি.মি. × ২৬৭ মি.মি. (৮.৯৮ ইঞ্চি × ১০.৫১ ইঞ্চি) বোর × স্ট্রোক
সঞ্চালনডিজেল–ইলেক্ট্রিক
গিয়ারের অনুপাত৯২:১৯/৯৩:১৮
লোকোর ব্রেকভ্যাকুয়াম
কাপলারনরওয়েজিয়ান
কার্যক্ষমতা
সর্বোচ্চ গতি৯৬ কিমি/ঘ (৬০ মা/ঘ)
পাওয়ার আউটপুট১,৪০০ অশ্বশক্তি
ট্র্যাকটিভ বলপ্রয়োগ:
 • চলাতে১৬.০৫০ টন (১৬ লং, ১৮ শর্ট) চলমান
Factor of adh.০.২৬৩
কার্যকাল
পরিচালকবাংলাদেশ রেলওয়ে
শ্রেণীএমইডি-১৪
নম্বর২৮০১-২৮১০
বর্তমান মালিকবাংলাদেশ রেলওয়ে
বিলিব্যবস্থা৫টি সচল

সূচনাকাল থেকে এই শ্রেণীর লোকো যাত্রীবাহী ট্রেনে ব্যবহৃত হয়। এদেরকে লোকাল/কমিউটার/মেইল/এক্সপ্রেস ট্রেনে ব্যবহার করা হয়। মালবাহী ট্রেনে এদেরকে ব্যবহার করা হয় না।[১]

প্রস্তুতকারক বিবরণ

সম্পাদনা

২৮০০ শ্রেণীর লোকো ভারতের ডিজেল লোকোমোটিভ ওয়ার্কস (ডিএলডব্লিউ) উৎপাদন করে। এদের মডেল ডিএল-৫৩৫/আরএসডি-৩০[২][৩][৪]

যান্ত্রিক বিবরণ

সম্পাদনা

১৯৯৬ সালে ভারতের ওয়াইডিএম-৪ শ্রেণীর ১০টি লোকোকে হুড ইউনিট থেকে ডুয়েল ক্যাবে রুপান্তর করে ২৮০০ সিরিজ হিসেবে বাংলাদেশে রপ্তানি করা হয়।[৫]

এই লোকোগুলোতে অ্যালকো ২৫১বি-৬ প্রাইম মুভার ব্যবহার করা হয়েছে। এদের ক্ষমতা ১,৪০০ অশ্বশক্তি এবং এরা সর্বোচ্চ ৯৬ কিমি/ঘণ্টা পর্যন্ত চলতে পারে। এদের চাকার বিন্যাস হলো সিও-সিও

এদেরকে বাংলাদেশের অন্যতম ব্যর্থ লোকো শ্রেণী বলা হয়ে থাকে। ২০২০ সাল পর্যন্ত (২৪ বছর পর), ৫টি লোকো এখনও সচল রয়েছে। বাংলাদেশের ২৩০০, ২৪০০২৫০০ শ্রেণীর লোকোগুলোর সাথে এদের মিল রয়েছে। এই মডেলের লোকোমোটিভ বাংলাদেশ ছাড়াও ভারতীয় রেলওয়েতে ওয়াইডিএম-৪ শ্রেণী হিসেবে রয়েছে।

শ্রেণীকরণ ও সংখ্যাকরণ

সম্পাদনা

এই লোকোগুলোর সংখ্যা-সিরিজ/শ্রেণী হচ্ছে ২৮০০, এবং এদেরকে ২৮০১ থেকে ২৮১০ পর্যন্ত সংখ্যায়িত করা হয়েছে। এদের শ্রেণী-নাম/স্পেসিফিকেশন হচ্ছে “এমইডি-১৪”। এখানে, এম = মিটার-গেজ, ই = ডিজেল-ইলেক্ট্রিক, ডি = ডিএলডব্লিউ এবং ১৪ = ১৪ × ১০০ = ১,৪০০ অশ্বশক্তি।

  1. নীল-হলুদ
  2. সবুজ-হলুদ

রক্ষণাবেক্ষণ

সম্পাদনা

এদের মূল রক্ষণাবেক্ষণ দিনাজপুরের পার্বতীপুরের কেন্দ্রীয় লোকোমোটিভ কারখানায় (কেলোকা) হয়। এছাড়া এদেরকে ঢাকা ডিজেল শপে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়।

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "Final Report on Rolling Stock Maintenance" (পিডিএফ)Asian Development Bank [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "Analysis of Problems" (পিডিএফ)Bangladesh Railway। ৩১ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "[IRFCA] Indian Railways FAQ: Locomotives - General Information"www.irfca.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-২০ 
  4. "YDM4-1350 MG / Cape Gauge Mixed Service Locomotives" (পিডিএফ) [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. "[IRFCA] Indian Railways FAQ: Locomotives -- Specific classes : Meter Gauge & Narrow Gauge Diesel"www.irfca.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-২০ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা

  উইকিমিডিয়া কমন্সে Category:Bangladesh Railway Class 2800 সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন।