বাঙালি ব্রাহ্মণ

(বঙ্গীয় ব্রাহ্মণকুল থেকে পুনর্নির্দেশিত)

বঙ্গের ব্রাহ্মণগন অন্তর্গত ছিল,এই অঞ্চলের অধিবাসীদের হিসেবে পরিচিত ছিল।[১]ভাগবতপুরাণের ২য় পর্বে দুইজন বৈদহ রাজা সমুদ্র সেন এবং চন্দ্র সেন কে পান্ডবপক্ষে যোগদান করতে দেখা যায় এবং বীরসেন নামক ঋষিকে যুধিষ্ঠিরের রাজসূয়যজ্ঞে ঋত্বিকেের ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়। খ্রিস্টপূর্ব ৫০০ অব্দের সময়কালে এখানে জৈনধর্মের প্রভাব বাড়ে এরপর বৌদ্ধ প্রভাবান্বিত হয়।এইসময় ব্রাহ্মণগণ ভারতের হিন্দু শাসিত অঞ্চলে আশ্রয় নেয়।এই সময়ে রচিত সনাতনধর্মগ্রন্থে বঙ্গকে হেয়প্রতিপন্ন হতে দেখা যায়। কর্ণাটকে আশ্রয় নেয়া কিছু ব্রাহ্মণ তাদের পূর্বপুরুষের রাজ্য পুনরুদ্ধারের জন্য পুনরায় বাঙলায় অভিযান চালায় ও "পৌণ্ড্র" রাজ্য জয়লাভ করেন এবং এ রাজ্য "বরেন্দ্র" নামে পরিচিত হয়।এসময় "বরেন্দ্রব্রাহ্মণ" সম্প্রদায়ের উদ্ভব ঘটে। সংখ্যাগরিষ্ঠ বৌদ্ধ রাজাদের জন্য ব্রাহ্মণরা নির্বাচনেজয়লাভ করতে পারেননি কিন্তু পরবর্তীকালে সেনযুগে ব্রাহ্মণরা ক্রমেই শক্তিশালী হয়ে ওঠেন। ব্রাহ্মণরা প্রচুরপরিমাণে রাজকার্যে নিযুক্ত হত এর বাইরে যোগ-যজ্ঞ এবং বেদ অনুসারে বৈদিক ক্রিয়ায় লিপ্ত থাকত। পৌরাণিক পূজার্চনার জন্য পুরোহিত ব্রাহ্মণের সংকট দেখা দিলে কান্যকুঞ্জ হতে ব্রাহ্মণ আনা হয় এবং এদেরকে সারা বঙ্গে অভিবাসন করা হয়। যে ব্রাহ্মণ যে গ্রামে বাস করতেন সেটি থেকে তার গাঞীনাম হয়।গাঞীনামকে পদবী হিসেবে ব্যবহারও দেখা যায়।যেমন ভট্টশালী,চট্টগাঞী,বন্দ্যোঘটি ইত্যাদি গ্রাম থেকে পদবীর উদ্ভব ঘটে। [[চিত্র:Map of Vedic India.png|thumb|400px|মানচিত্রে বৈদিক যুগের ভারতবর্ষ । হিন্দু ধর্মের ব্রাহ্মণ সম্প্রদায় প্রাচীনকালাবধি বঙ্গ অঞ্চলে চিরস্থায়ীভাবে বসবাস করেছেন। বর্তমানে এই সম্প্রদায়ভুক্ত পরিবারবর্গ মূলত অধুনা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা, অসম, এবং সার্বভৌম রাষ্ট্র বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বসবাস করে[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]। ১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দে ব্রিটিশ ভারত বিভাজিত হওয়ার পর বহু ব্রাহ্মণ পরিবার ভূতপূর্ব পূর্ব পাকিস্তান (অধুনা বাংলাদেশ) থেকে শরণার্থী হিসেবে নবগঠিত ভারতীয় প্রজাতন্ত্রে আশ্রয় গ্রহণ করে[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

সাধারণত বঙ্গীয় ব্রাহ্মণগণ সুশিক্ষিত পণ্ডিত হয়ে থাকেন[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] এবং কীর্তিমান ব্যক্তিত্ব বঙ্গীয় ব্রাহ্মণকুলে জন্মগ্রহণ করেছেন[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]কলহন বিরচিত রাজতরঙ্গিণী-র শ্লোকানুসারে ব্রাহ্মণগণ মূলত পঞ্চ-গৌড় এবং পঞ্চ-দ্রাবিড়, এই দুই ভাগে বিভক্ত। কলহন কর্তৃক রচিত শ্লোকটি নিম্নে প্রদত্ত হল :

কর্ণাটকাশ্চ তৈলঙ্গা দ্রাবিড়া মহারাষ্ট্রকাঃ , গুর্জরাশ্চেতি পঞ্চৈব দ্রাবিড়া বিন্ধ্যদক্ষিণে ॥

সারস্বতাঃ কান্যকুব্জা গৌড়া উৎকলামৈথিলাঃ, পঞ্চগৌড়া ইতি খ্যাতা বিন্ধ্স্যোত্তরবাসিনঃ ॥ [২] নামে অবহিত করা হয়।[৩]

ব্রাহ্মণদের পদবীসমূহসম্পাদনা

  • চক্রবর্তী/চক্রবর্ত্তী
  • নাথ /দেবনাথ
  • ভট্ট/ভট্টাচার্য্য/ভট্টাচার্য্যী/ভট্টাচার্য
  • বন্দ্যোপাধ্যায়/ব্যানার্জী/ব্যানার্জি
  • গঙ্গোপাধ্যায়/গাঙ্গুলী
  • চট্টোপাধ্যায়/চ্যাটার্জী/চ্যাটার্জি
  • মুখোপাধ্যায়/মুখার্জী/মুখার্জি
  • উপাধ্যায়
  • গোস্বামী
  • দেবশর্মা/শর্মা
  • সরখেল
  • লাহিড়ী
  • মিশ্র
  • মৈত্র
  • সান্যাল

[৪]

  • রায় নারায়ণ
  • ভাদুড়ী
  • ঘোষাল
  • পুতিতুন্ড
  • তেওয়ারি/ত্রিবেদী (পশ্চিমা)
  • মৌলিক
  • কাঞ্জিলাল
  • শাস্ত্রী
  • আচার্য্য/আচার্য্যী/আচার্য
  • পিরালি

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Raychaudhuri 2006, পৃ. 41–52।
  2. Education in Ancient India By Hartmut Scharfe https://books.google.com.bd/books?id=GMyiDwAAQBAJ&pg=PA263&lpg=PA263&dq=Trija+Thrise+born&source=bl&ots=q-cweeBNRR&sig=ACfU3U1z7hVjcAYduTYoeENPTu68Lv3pog&hl=bn&sa=X&ved=2ahUKEwjN7_L2na_sAhXFeisKHaTwCQoQ6AEwBHoECAYQAQ#v=onepage&q=Trija%20Thrise%20born&f=false
  3. Monier-Williams: inspired, inwardly stirred, wise, learned, etc.
  4. https://bn.m.wikisource.org/wiki/%E0%A6%AA%E0%A6%BE%E0%A6%A4%E0%A6%BE:%E0%A6%AC%E0%A6%99%E0%A7%8D%E0%A6%97%E0%A7%87%E0%A6%B0_%E0%A6%9C%E0%A6%BE%E0%A6%A4%E0%A7%80%E0%A6%AF%E0%A6%BC_%E0%A6%87%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%B8_(%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%AF%E0%A6%BC%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%A5_%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%A3%E0%A7%8D%E0%A6%A1,_%E0%A6%B7%E0%A6%B7%E0%A7%8D%E0%A6%A0%E0%A6%BE%E0%A6%82%E0%A6%B6,_%E0%A6%A6%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%B7%E0%A6%BF%E0%A6%A3%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%A2%E0%A6%BC%E0%A7%80%E0%A6%AF%E0%A6%BC_%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%AF%E0%A6%BC%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%A5_%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%A3%E0%A7%8D%E0%A6%A1,_%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%A5%E0%A6%AE_%E0%A6%96%E0%A6%A3%E0%A7%8D%E0%A6%A1).djvu/%E0%A7%AA%E0%A7%AC