প্রধান মেনু খুলুন

ফিলিপাইন জাতীয় ক্রিকেট দল

ফিলিপাইন জাতীয় ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিলিপাইনের প্রতিনিধিত্ব করে। ফিলিপাইন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন, ফিলিপাইনের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা এবং এটি ফিলিপাইনের ক্রিকেটের সংগঠনে কাজ করছে। ফিলিপাইন ২০০৩ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল এর অনুমোদিত সদস্যপদ লাভ করে। বর্তমানে, আইসিসির সভায় অনুমোদিত সদস্যপদ বিলুপ্ত ঘোষণা করায় ফিলিপাইন আইসিসির সহযোগী সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। [২][৩]

ফিলিপাইন
ফিলিপাইন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন এর লোগো
ফিলিপাইন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন এর লোগো
আইসিসি সদস্যপদ অনুমোদন {{{icc_member_year}}}
আইসিসি সদস্য মর্যাদা {{{icc_status}}}
আইসিসি উন্নয়ন অঞ্চল পূর্ব এশিয়া-প্যাসিফিক
বিশ্ব ক্রিকেট লীগ বিভাগ না
অধিনায়ক সৈয়দ তারেক আলি (২০১৭)[১]
কোচ ফয়সাল খান
আনুষ্ঠানিকভাবে ১ম খেলা  ফিলিপাইন বনাম  ইন্দোনেশিয়া at পূর্ব এশিয়া-প্যাসিফিক দ্বিতীয় বিভাগ, অ্যাপিয়া, সামোয়া ৪ এপ্রিল ২০১১
হিসাবে

ইতিহাসসম্পাদনা

২০১১ সালে, ফিলিপাইন দল তাদের প্রথম টুয়েন্টি২০ খেলায় অংশগ্রহণ করে। সামোয়া তে অনুষ্ঠিত পূর্ব এশিয়া-প্যাসিফিক দ্বিতীয় বিভাগ এ অংশগ্রহণ করার সুবাদে তারা এই সুযোগ লাভ করে। টুর্নামেন্টে তারা ইন্দোনেশিয়া, কুক দ্বীপপুঞ্জ, টোঙ্গা, দক্ষিণ কোরিয়া কে হারিয়ে ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। কিন্তু ফাইনালে তারা স্বাগতিক সামোয়া এর কাছে হেরে রানার্স-আপ হয়। এই টুর্নামেন্ট ছিল ফিলিপাইনের জন্য প্রথম কোন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) কর্তৃক স্বীকৃত টুর্নামেন্ট।[৪] এই টুর্নামেন্ট শ্রীলংকায় অনুষ্ঠিত ২০১২ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ এর বাছাইপর্ব এর পিরামিডের একটি অংশ ছিল। এরপর ২০১৪ সালে, ফিলিপাইন অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস এ অনুষ্ঠিত ২০১৪ আইসিসি ইস্ট এশিয়া-প্যাসিফিক মেনস চ্যাম্পিয়নশিপ এ অংশগ্রহণ করে। সেখানে ফিলিপাইন ৮ দলের মধ্যে ৫ম স্থান লাভ করে। এই টুর্নামেন্টে, ভারতীয় বংশোদ্ভূত আওয়াইস মোহাম্মদ, ফিলিপাইন জাতীয় দলের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে কোন আইসিসি স্বীকৃত খেলায় অর্ধশত রান করার গৌরব অর্জন করেন। [৫]

২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত, ২০১৭ আইসিসি বিশ্ব ক্রিকেট লিগ ইস্ট এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চল বাছাইপর্ব তে ফিলিপাইন ৬ দলের মধ্যে ৪র্থ স্থান লাভ করে। কিন্তু এই ফলাফলের জন্য তারা বিশ্ব ক্রিকেট লীগের পঞ্চম বিভাগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয়।

আরও বেশি ফিলিপাইনের খেলোয়াড়, পৃষ্ঠপোষক এবং সরকারি সহায়তা প্রয়োজন বলে ফিলিপাইন দল ২০১৭ সাউথ-ইস্ট এশিয়ান গেমস -এ অংশগ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে তারা একই আয়োজনের ২০১৯ আসরে অংশগ্রহণ করার পরিকল্পনা করছে।[৬]

২০১৭ সালে, ঘোষণা করা হয় যে, বিখ্যাত অস্ট্রেলীয় খেলোয়াড় এবং টুয়ার্ট হিল ক্রিকেট ক্লাব বর্ষসেরা খেলোয়াড় খেতাবধারী খেলোয়াড় রে রোলস, ফিলিপাইনের পরবর্তী সফরের জন্য দলের সাথে যোগ দেবেন।

ঘরের মাঠসম্পাদনা

পূর্বে পারনিয়াগ এর ম্যানিলা নোম্যাডস স্পোর্টস ক্লাব ছিল ফিলিপাইনের ঘরের মাঠ। কিন্তু যখন নোম্যাডস এর মাঠ বন্ধ হয়ে যায়, তখন জাতীয় দল কাভিটে এর অন্তর্ভুক্ত ডাসমারিনিয়াস এর এমিলো অ্যাগুইনালদো কলেজ মাঠকে নিজেদের ঘরের মাঠ হিসেবে বেছে নেয়।[৬]

টুর্নামেন্ট ইতিহাসসম্পাদনা

বিশ্ব ক্রিকেট লীগসম্পাদনা

ইএপি চ্যাম্পিয়নশিপসম্পাদনা

সাউথ-ইস্ট এশিয়ান গেমসসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Llewelyn (২৩ জানুয়ারি ২০১৭)। "PCA Announces the national team for World Cricket League qualifier"ক্রিকেটপ্যাসিফিকা। ফিলিপাইন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। ৩০ জুলাই ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০১৭ 
  2. "Ireland and Afghanistan ICC newest full members amid wide-ranging governance reform"আইসিসি 
  3. Fernandez, Rhoel (৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৪)। "Rise of Azkals, football offers unique blueprint as growth of PH cricket pushed"। স্পোর্ট ইন্টার‍্যাক্টিভ নেটওয়ার্ক ফিলিপাইন। সংগ্রহের তারিখ ১০ এপ্রিল ২০১৪ 
  4. "Philippines Cricket Association"আইসিসি। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০১৭ 
  5. Craig, Mitchell (২১ নভেম্বর ২০১৪)। "Philippines cricket history made at ICC EAP match at Lismore"দ্যা নর্দান স্টার। নর্দান স্টার লিমিটেড। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০১৭ 
  6. Esponga, Alexx (২৯ জুলাই ২০১৭)। "No PH cricket team in SEA Games due to lack of players, funds"র‍্যাপ্লার। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০১৭ 
  7. "ICC, Accessed 30 May 2011" (PDF)। ৮ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা