ফিন ব্যালর

আইরিশ পেশাদার কুস্তিগীর

ফেরগাল ডেবিট (জন্ম-২৫ জুলাই ১৯৮১) আইরিশ পেশাদার কুস্তিগীর। তিনি বর্তমানে ডাব্লিউডাব্লিউই এর সাথে চুক্তিবদ্ধ আছেন এবং এনএক্সটি ব্র্যান্ডের হয়ে কাজ করছেন, যেখানে তার রিং নেম ফিন ব্যালর

ফিন ব্যালর
Finn Bálor Backstage cropped.jpg
২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে ডেবিট
জন্ম নামফেরগাল ডেবিট
জন্ম (1981-07-25) ২৫ জুলাই ১৯৮১ (বয়স ৩৮)[১]
ব্রে, কান্ট্রি উইকিলো, আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্র[২]
বাসস্থানব্রুকলিন, নিউ ইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র
পেশাদারি কুস্তি ক্যারিয়ার
রিংয়ে নামসি.টি.ইউ রেঞ্জার রেড (II)
ফেরগাল ডেবিট
ফিন ব্যালর
পেগাসুস কিড (II)
প্রিন্স ডেবিট
কথিত উচ্চতা৫ ফুট ১১ ইঞ্চি (১.৮০ মিটার)[৩]
কথিত ওজন১৯০ পা (৮৬ কেজি)[৩]
কথিত
প্রশিক্ষণকেন্দ্র
ব্রে কান্ট্রি উইকলো, আয়ারল্যান্ড
প্রশিক্ষকআন্দ্রে বাকের
জনি মস
জন রায়ান[৪]
নিউ জাপান ইনোকি ডোজো
এনডাব্লিউএ ইউকে হ্যামারলক
অভিষেকফেব্রুয়ারি ২০০১

ফিন ব্যাপকভাবে পরিচিত নিউ জাপান প্রো রেসলিং এ রেসলিং করার জন্য। যেখানে তিনি তিনবার আইডাব্লিউজিপি জুনিয়র হেবিওয়েট চ্যাম্পিয়ন ছয়বারের আইডাব্লিউজিপি জুনিয়র হেবিওয়েট ট্যাগ টিম চ্যাম্পিয়নশীপ জিতেছেন। এছাড়াও তিনি দুইবারের বেস্ট অফ দ্য সুপার জুনিয়র টুর্নামেন্ট জয়ী। তিনি শক্তিশালী স্টেবল বুলেট ক্লাব এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং প্রথম নেতা। এনএক্সটি তে সাইন করার পর ডেবিট তার নাম ব্যালর রাখেন। সে এবং সামোয়া জো প্রথমবারের মতো ডাস্টি রোডস ট্যাগ টিম ক্লাসিক চ্যাম্পিয়ন হয়। তিনি একবারের এনক্সটি চ্যাম্পিয়ন। এবং তিনি টাইটেলটি সবচেয়ে বেশি দিন তার কাছে রেখেছন (২৯২ দিন)। সে মেইন রোস্টারে অভিষেকের ২৭ দিনের মধ্যেই প্রথম ইউনিভার্সেল চ্যাম্পিয়ন হয়। সে প্রথম কোনো রেসলার হিসেবে তার প্রথম পিপিভিতেই কোনো ওয়ার্ল্ড টাইটেল জিতে। যা একটি রেকর্ড।

পেশাদারি কুস্তি ক্যারিয়ারসম্পাদনা

প্রাথমিক ক্যারিয়ার (২০০০-২০০৭)সম্পাদনা

এনডাব্লিউএ ইউকে হ্যামারলক এ ট্রেনিং নেওয়ার পর ১৮ বছর বয়সে ২০০০ সালে তাদের জন্য ডেবিট রেসলিং করা শুরু করে। এবং অনেক তাড়াতাড়ি সে এনডাব্লিউএ কমনওয়েলথ হেবিওয়েট চ্যাম্পিয়নশীপ জিতে। ২০০২ সালের মাঝামাঝি সে এবং পল ট্রেসি মিলে নিজেদের এনডাব্লিউএ আয়ারল্যান্ড নামে রেসলিং প্রোমোশন চালু করে। এনডাব্লিউএ আয়ারল্যান্ড এর অংশ হিসেবে তিনি ভবিষ্যৎ সুপারস্টার বেকি লিঞ্চ কে প্রশিক্ষণ দেন।

 
ড্রু অনিক্স এর সাথে মুখোমুখি ডেবিট

অক্টোবর ৮ ২০০৫ সালে ডেবিট এনডাব্লিউএ ৫৭ তম বার্ষিকী শো তে ড্রু অনিক্স কে হারিয়ে দ্বিতীয় কমনওয়েলথ টাইটেল জিতে। এই ম্যাচ এর পরে তাদের দুইজনকেই নিউ জাপান ইনোকি ডোজো তে ট্রেনিং করার জন্য আমন্ত্রন জানানো হয়। তার পারফরমেন্স এ মুগ্ধ হয়ে অনেকেই তাকে আমন্ত্রন জানায়। এরপর সে মেইন ডোজো তে যায় কিভাবে জাপানিজ স্টাইল প্রোফেশনাল রেসলিং করতে হয় তা শেখার জন্যে। এর মধ্যে মার্চ ২০০৭ সালে সে তার কমনওয়েলথ টাইটেল কার্ল অ্যান্ডারসন এর কাছে হারায়।

জুন ২০০৭ এ সে নতুন এনডাব্লিউএ ওয়ার্ল্ড হেবিওয়েট চ্যাম্পিয়নশীপ এর জন্য একটি টুর্নামেন্টে অংশ নেয়। এই চ্যাম্পিয়নশীপটি টিএনএ এর আওতাধীন ছিল। যেখানে সে প্রথম রাউন্ডে অস্ট্রেলিয়ান রেসলার মিকি নিকোলাস কে হারায় কিন্তু দ্বিতীয় রাউন্ডে ব্রায়ান ড্যানিয়েলসন এর কাছে হেরে যায়।

নিউ জাপান প্রো রেসলিংসম্পাদনা

কন্ট্রোল টেরিসম ইউনিট এন্ড রাইজ (২০০৬-২০০৮)সম্পাদনা

কমনওয়েলথ চ্যাম্পিয়নশীপ হারানোর একদিন পর মার্চ ২০০৬ ফেরগাল ডেবিট নিউ জাপান প্রো রেসলিং এর সাথে কন্ট্রাক্ট সাইন করে। তখন তার রিং নেম হয় প্রিন্স ডেবিট। ডেবিট তার প্রথম ম্যাচ খেলে এল সামুরাই এর বিপক্ষে। পাওয়ার স্ল্যাম ম্যাগ এর সাথে একটি সাক্ষাতকারে ডেবিট তার নতুন নাম রাখার কারণ বলে। সে বলে জাপানিজ রা তার নাম ঠিকমতো উচ্চারন করতে পারে না। তাই সে তার এই নাম দেয়। মূলত তার নাম ছিল কিং ডেবিট। কিন্তু ২৪ বছর বয়সী ছেলে কিভাবে রাজা হয় তাই তার নাম প্রিন্স ডেবিট রাখা হয়। তখন তাকে একটি মাস্ক পড়িয়ে দেয়া হয়। এবং তাকে দ্বিতীয় পেগাসুস কিড বলা হয়। প্রথম পেগাসুস কিড ছিল ক্রিস বেনোয়িট

২০০৭ সালের জানুয়ারিতে সে হাঁটুর ইঞ্জুরিতে পড়ে। মে মাসে সে আবার ফিরে আসে। এবং তার পারফরমেন্সে আরো উন্নতি দেখা যায়।

জানুৃয়ারি ২৭ ২০০৮ সালে ডেবিট এবং মিনোরো আইডাব্লিউজিপি জুনিয়র হেবিওয়েট ট্যাগ টিম চ্যাম্পিয়নশীপ জিতে। এটি ছিল ডেবিট এর প্রথম বড় টাইটেল। ফেব্রুয়ারিতে তারা তাদের টাইটেল আকিরা এবং জুসিন থান্ডার লিগার এর কাছে হারায়। জুলাই তারা তাদের টাইটেল আবার পুনুরূদ্ধার করে। অক্টোবরে তারা তাদের চ্যাম্পিয়নশীপ নো লিমিট এর কাছে হারায়।

অ্যাপোলো ৫৫ (২০০৯-২০১৩)সম্পাদনা

ডেবিট রেয়াসুকে তাগুচির সাথে মিলে অ্যাপোলো ৫৫ গঠন করে। তারা দ্য মোটর সিটি মেশিন গান কে হারিয়ে আইডাব্লিউজিপি জুনিয়র হেবিওয়েট ট্যাগ টিম চ্যাম্পিয়নশীপ জিতে। মে ৩০ তারিখে ডেবিট বেস্ট অফ দ্য সুপার জুনিয়র ২০০৯ টুর্নামেন্টে প্রবেশ করে। যেটি সে জিতে যায়।

বুলেট ক্লাব (২০১৩-২০১৪)সম্পাদনা

ডব্লিউডব্লিউইসম্পাদনা

 
২০১৫ সালের মার্চ মাসে এনএক্সটিতে ফিন ব্যালর

চ্যাম্পিয়ানশিপ ও অর্জনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. プリンス・デヴィットNew Japan Pro Wrestling (Japanese ভাষায়)। ৫ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১০ 
  2. Kierans, Katie (১২ জানুয়ারি ২০১৪)। "Wrestling superstar Fergal: I'm an ordinary guy at home...in Japan I'm a high flier"Irish Mirror। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০১৭ 
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; WWE নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  4. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; OWOW নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি

বহিঃসংযোগসম্পাদনা