ফারহদ মেহরাদ (ফার্সি: فرهاد مهراد‎‎) (জানুয়ারি ২০, ১৯৪৪ - আগস্ট ৩১, ২০০২), ইরানে ব্যাপকভাবে ফারহদ নামে পরিচিত, ছিলেন ইরানি পপ, রক, এবং লোক গায়ক, গীতিকার, গিটারবাদক এবং পিয়ানোবাদক,[১] যিনি প্রথম ইংরেজি রক অ্যান্ড রোল অ্যালবাম প্রকাশ করেছিলেন।[২]

فرهاد
ফারহদ
Mehrdad, Farhad.jpg
ফারহদ
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম নামফারহদ মেহরাদ
আরো যে নামে
পরিচিত
ফারহদ
জন্ম(১৯৪৪-০১-২০)২০ জানুয়ারি ১৯৪৪
তেহরান, ইরান
মৃত্যুআগস্ট ৩১, ২০০২(2002-08-31) (বয়স ৫৮)
প্যারিস, ফ্রান্স
ধরন
পেশাগায়ক, গীতিকার, গিটারবাদক, পিয়ানোবাদক
কার্যকাল১৯৬৪–১৯৭৯, ১৯৯৩–২০০২
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট

১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের পূর্বে তিনি ইরানি রক, লোক ও পপ সঙ্গীতশিল্পীদের মধ্যে বিশিষ্টতা অর্জন করেলেও, বিপ্লবের পর তিনি ইরানে বহু বছর ধরে গান গাওয়া থেকে নিষিদ্ধ ছিলেন। বিপ্লব পরবর্তী তার প্রথম কনসার্ট ১৯৯৩ সালে অনুষ্ঠিত হয়। এযাবৎকাল পর্যন্ত তিনি সর্বকালের সবচেয়ে প্রভাবশালী এবং সম্মানিত সমসাময়িক ইরানি শিল্পী হিসেবে বিবেচিত।[৩]

ফারহদ ১৯৭১ সালের খোদাফেজ রাফি চলচ্চিত্রের জন্য গাওয়া "জোমহ" গানের জন্য সুপরিচিত।[৪] এই রাজনৈতিক গানের বিষয়ে গুজব সত্ত্বেও, গীতিকার শাহয়ার ঘনবাড়ি তাপেশ টিভির "আনকাট" আনুষ্ঠানে এই অভিযোগ অস্বীকার করেন।

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

 
ছেলেবেলায় ফরহাদ, আনুমানিক ১৯৪০–৫০-এর দশকে

ফরহাদ ১৯৪৪ সালের ২০ জানুয়ারি ইরানের তেহরানে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা রেজা মেহরাদ ছিলেন একজন ইরানি কূটনীতিক, যিনি ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষে আরবি দেশগুলিতে কাজ করেছিলেন। কনিষ্ঠ সন্তান হবার কারণে তিনি সবসময় তার পরিবারের সদস্যদের থেকে আলাদা আচরণ পেতেন, এবং প্রত্যেকে ধরে নিয়েছিলেন যে তিনি একজন প্রাপ্তবয়স্কের মতো আচরন করার চেষ্টা করছেন।[১]

প্রত্যাবর্তনসম্পাদনা

১৯৯৩ সালে, ১৫ বছর সঙ্গীত পেশায় নিরব থাকার পর, ফরহাদ তার প্রথম অ্যালবাম, খাব দার বিদারি ("জাগ্রত ঘুম") প্রকাশের অনুমতি পেয়েছিল এবং এটি প্রকাশের পরপরই চার্টের শীর্ষে অবস্থান নেয়।

এই অ্যালবামের পরে, ফরহাদ ইরান সরকারের অনুমোদন প্রাপ্তি প্রকিয়ার প্রতি আশাহত হন। ফলে ১৯৯৯ সালে তার পরবর্তী অ্যালবাম বার্ফ ("বরফ") যুক্তরাষ্ট্রে প্রকাশিত হয়। যদিও পরবর্তী বছর বার্ফ ইরানে মুক্তি পায়।

সর্বশেষ অ্যালবামসম্পাদনা

২০০০ সালের বার্ফ অ্যালবামের পরে, ফরহাদ বিভিন্ন দেশ এবং বিভিন্ন ভাষায় গান সহ একটি অ্যালবাম রেকর্ড করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তিনি অ্যালবামটির নাম ঠিক করেছিলেন আমিন; তবে রেকর্ডিং শুরু করলেও অ্যালবামটি শেষ করার আগেই তিনি মারা যান।

মৃত্যুসম্পাদনা

 
ইল-ডি-ফ্রান্স অঞ্চলে ভাল-ডি-মার্নি বিভাগের থিয়াসের কম্যুনে অবস্থিত থিয়াস কবরস্থানে ফরহাদের সমাধি।

২০০০ সালের সেপ্টেম্বরে, ইরান এবং ফ্রান্সে দুই বছর চিকিৎসাধীন থাকার পরে, ফরহাদের অসুস্থতা মারাত্মক হয়ে ওঠে। ২০০২ সালের ৩১ আগস্ট তিনি হেপাটাইটিস সি-এর মারাত্মক রূপের কারণে প্যারিসে মারা যান।

তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে দারিউশ, ইবি এবং পার্সি বিনোদনকারীদের মতো অনেক ইরানি তারকারা অংশ নিয়েছিলেন। পারস্যের গীতিকার শাহায়ার ঘানবাড়ি মন্তব্য করেছেন যে তার একাংশ ফরহাদের সাথে মারা গিয়েছে। ফরিদ জোল্যান্ড বলেছেন, ফরহাদের মৃত্যুর ফলে তিনি বিধ্বস্ত হয়েছিলেন। ইবি বলেছেন যে তিনি তার সেরা বন্ধু এবং প্রিয় গায়ককে হারিয়েছেন।

ফরহাদকে প্যারিসের ঠিক বাইরে সিমেটিয়ার ডি থাইয়াসে (বিভাগ:১১০ লিন:৭ এন দে লা তোম্বে:২৩) সমাহিত করা হয়েছে। তার মৃত্যুর পরে, ইরানের তেহরানের সিনেমা-যাদুঘরে তার ব্যক্তিগত সামগ্রীর একটি সংগ্রহশালা প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল এবং তার সম্পর্কে ফরহাদ'স ফ্রাইডে এবং স্নো নামে দুটি প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করা হয়েছে।

ডিস্কোগ্রাফিসম্পাদনা

স্টুডিও অ্যালবামসম্পাদনা

চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

সঙ্গীত বিভাগ
  • কিপ দা ফ্লাইট ইন মাইন্ড (২০১২, প্রামাণ্যচিত্র) - গায়ক
  • মাহিহা দার খাক মিমিরান্দ (১৯৭৭) - গায়ক
  • গুডবাই ফ্রেন্ড (১৯৭১) - গায়ক
  • রেজা মোটরসাইক্লিস্ট (১৯৭০) - গায়ক

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Farhad Mehrad's Official Website" 
  2. "Farhad Mehrad sings Leonard Cohen"The Leonard Cohen Files। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৮ 
  3. (www.dw.com), Deutsche Welle। "یادی از فرهاد مهراد، صدای "مرد تنها" | DW | 18.01.2014"DW.COM (ফার্সি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-০৫ 
  4. https://www.youtube.com/watch?v=xGn9ymtn_Ts

বহিঃসংযোগসম্পাদনা