ফজলে হোসেন বাদশা

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

ফজলে হোসেন বাদশা (জন্ম: ১৫ অক্টোবর, ১৯৫২) একজন বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ।

ফজলে হোসেন বাদশা
রাজশাহী-২ আসনের জাতীয় সংসদ
কাজের মেয়াদ
২০০৮ – ২০২৪
প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা
উত্তরসূরীশফিকুর রহমান বাদশা
সংখ্যাগরিষ্ঠবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1952-10-15) ১৫ অক্টোবর ১৯৫২ (বয়স ৭১)
রাজশাহী, পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ)
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি
শিক্ষাএম.এ (অর্থনীতি), এল.এল.বি
প্রাক্তন শিক্ষার্থীরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাআইনপেশা ও ব্যবসা[১]

কর্মজীবন

সম্পাদনা

ফজলে হোসেন বাদশা পেশায় একজন আইনজীবী। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় হতে অর্থনীতি বিষয়ে স্নাতকোত্তর করেন।

রাজনৈতিক জীবন

সম্পাদনা

২০০৮ সাল থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত রাজশাহী-২ আসনে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির একজন সংসদ সদস্য ছিলেন ফজলে হোসেন বাদশা।[১]

১৯৯১ সালের ৫ এপ্রিল পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ (ইউসিএল) এর মনোনয়নে প্রথম নির্বাচন করেন বাদশা। তিনি ৩৪ হাজার ২৬৭ ভোট পেয়ে তৃতীয় হন। ওই নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী কবির হোসেন ৮১ হাজার ১৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থী আতাউর রহমান পেয়েছিলেন ৪০ হাজার ১৪১ ভোট। [২]

পরবর্তীতে ১৯৯৬ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি ষষ্ঠ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জনের পর ওই বছরের ১২ জুন সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনয়নে নির্বাচন করেন বাদশা। নির্বাচনে ৩ হাজার ৮৩৮ ভোট পেয়ে পঞ্চম হন তিনি। ওই নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী কবির হোসেন ১ লাখ ৮ হাজার ৪৭১ ভোট পেয়ে পুনরায় বিজয়ী হন। [৩]

২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেওয়ার্কার্স পার্টির মনোনয়নে নির্বাচন করেন বাদশা। নির্বাচনে ১১ হাজার ৪৯০ ভোট পেয়ে তৃতীয় হন তিনি। নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী মিজানুর রহমান মিনু ১ লাখ ৭৬ হাজার ৪০৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।[৪]

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনয়নে ও মহাজোটের সমর্থনে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন বাদশা। নির্বাচনে ১ লাখ ১৬ হাজার ৫৯৯ ভোট পেয়ে প্রথম বারের মতো এমপি হন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপির প্রার্থী মিজানুর রহমান মিনু পেয়েছিলেন ৮৯ হাজার ৫০ ভোট।[৫]

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি ও সমমনা বিরোধীদল অংশ না নেওয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য হন বাদশা।[৬]

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনয়নে ও মহাজোটের সমর্থনে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন বাদশা। নির্বাচনে ১ লাখ ১৫ হাজার ৪৫৩ ভোট পেয়ে তৃতীয় বারের মতো এমপি হন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি মনোনীত ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সমর্থিত প্রার্থী মিজানুর রহমান মিনু পেয়েছিলেন ১ লাখ ৩ হাজার ৩২৭ ভোট। [৭]

সবশেষ ২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনয়নে ও আওয়ামী লীগ জোটের সমর্থনে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করলেও ধরাশায়ী হন বাদশা। নির্বাচনে ৩১ হাজার ৪৬৬ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হন তিনি। অপরদিকে ৫৪ হাজার ৯০৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা[৮]




তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "নির্বাচনী এলাকাঃ ৫৩ রাজশাহী- ২"parliament.gov.bd। ২০২১-০৫-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-২৭ 
  2. ""Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics""ভোটমনিটর। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮। ২৬ নভেম্বর ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  3. ""Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics""ভোটমনিটর। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮। ২৬ নভেম্বর ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  4. ""Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics""ভোটমনিটর। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮। ২৬ নভেম্বর ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  5. ""Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics""ভোটমনিটর। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮। ২৬ নভেম্বর ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  6. সমকাল প্রতিবেদক (৪ জানুয়ারি ২০১৪)। "১৫৩ আসনে জয়ী যারা"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  7. নিউজ ডেস্ক (৩১ ডিসে ২০১৮)। "একাদশ সংসদ নির্বাচন: সারা দেশে ভোটের ফল"বিডিনিউজ২৪। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  8. যুগান্তর ডেস্ক (৮ জানুয়ারি ২০২৪)। "কে কোন আসনে নির্বাচিত"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪