ফখরুজ্জামান চৌধুরী

ফখরুজ্জামান চৌধুরী (৫ জানুয়ারি, ১৯৪০ - ১২ জুন, ২০১৪) বাংলাদেশের একজন কবি, গল্পকার, অনুবাদক ও গবেষক।[১]

প্রাতিস্বিক জীবনসম্পাদনা

তিনি ১৯৪০ সালের ৫ জানুয়ারি চাঁদপুরে জন্মগ্রহণ করেন।[২] পিতা শিক্ষাবিদ নূরুজ্জামান চৌধুরী। দাম্পত্যসঙ্গী প্রখ্যাত অভিনেত্রী দিলারা জামান। তাঁদের দুই কন্যা সন্তান রয়েছে; তাঁরা হলেন তানিয়া ও যুবায়রা। ফখর বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক (প্রশাসন) ছিলেন।[৩] ২০১৪ সালের ১২ জুন রাজধানী ঢাকাস্থ উত্তরার ১২ নম্বর সেক্টরের নিজ বাসভবনে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।[৪]

শিক্ষাগত পটভূমিসম্পাদনা

১৯৫৭ সালে ঢাকার জগন্নাথ কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক (বিজ্ঞান), ১৯৬০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতক (সম্মান) এবং ১৯৬১ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

সাহিত্যকর্মসম্পাদনা

ফখরুজ্জামান চৌধুরীর বিশ্বসাহিত্যের বহু সাড়াজাগানো গ্রন্থ অনুবাদ করে জনপ্রিয়তা পান।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] পঞ্চাশটির মতো গ্রন্থ রচনা করেছেন তিনি। সাহিত্যকর্মে অবদানের জন্যে তিনি ২০০৫ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার[৫] এবং ১৪০০ বঙ্গাব্দে শিশুসাহিত্যে অবদানের জন্যে অগ্রণী ব্যাংক-শিশু সাহিত্য পুরস্কার অর্জন করেন।[৫]

গ্রন্থনিচয়সম্পাদনা

কবিতাসম্পাদনা

  • আনাবাজ (১৯৮৬)
  • দূরদিগন্ত (১৯৮৬)
  • প্যালেস্টাইন প্রতিরোধের কবিতা (১৯৯৪)

উপন্যাসসম্পাদনা

  • জনারণ্যে কয়েকজন (১৯৯০)
  • ঐরাবত ও অঙ্কুশ (১৯৯৩)
  • একা ও একাকী (১৯৯৪)

নাটকসম্পাদনা

  • ইয়ারমা (১৯৯১)

প্রবন্ধ-গবেষণাসম্পাদনা

  • লেখকের কথা (১ম খণ্ড ১৯৯২, ২য় খণ্ড ২০০৩)

শিশুসাহিত্যসম্পাদনা

  • হাড় কিপটে বুড়ি (১৯৫৬)

জীবনীসম্পাদনা

  • ডিলান টমাস (১৯৮৫)
  • আশরাফ আলী খান (১৯৮৮)
  • আজিজুর রহমান (১৯৮৯)

ইতিহাসসম্পাদনা

  • অবিচার (১৯৮৪)

অনুবাদসম্পাদনা

  • বিকিকিনির প্রেম (১৯৯২)
  • হে দুঃখ বিদায় (১৯৯৩)
  • রবিনসন ক্রুসো (২০০৬)
  • রিপভ্যান উইংকল (১৯৫৬)
  • রাজা আর্থারের দরবারে (১৯৬৮)
  • যাদুর রাজা হুডিনি (১৯৮৮)
  • আঙ্কল টমস কেবিন (১৯৯৩)
  • হাঞ্চব্যাক অফ নটর ডেম (১৯৯৫)
  • ট্রেজার আইল্যান্ড (১৯৯৮)
  • অ্যারাউন্ড দ্য ওয়ার্ল্ড ইন এইটি ডেইজ (১৯৯৩)

তাঁর সর্বশেষ লেখা গ্রন্থের নাম ‘হিরোশিমার অগ্নিশিখা’।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা