প্রাক-কলম্বীয় জামাইকা

(প্রাক-কলম্বিয়ান জামাইকা থেকে পুনর্নির্দেশিত)


প্রায় ৬৫০ খ্রিস্টাব্দের দিকে, জামাইকা অস্টিওনয়েড সংস্কৃতির লোকেরা (তাইনোদের পূর্বপুরুষ) বসতি স্থাপন করেছিল, সম্ভবত তারা দক্ষিণ আমেরিকা থেকে এসেছিল। ম্যানচেস্টার প্যারিশের কুমির পুকুর এবং সেন্ট. অ্যান প্যারিশের লিটল রিভার হল অস্টিওনয়েড ব্যক্তির প্রথম জ্ঞাত স্থানগুলির মধ্যে অন্যতম, এরা "রেডওয়্যারের মানুষ" নামে পরিচিত। এরা উপকূলের নিকটে বাস করতো এবং কচ্ছপ ও মাছ শিকারের মাধ্যমে জীবনযাপন করতো।[১]

৯৫০ খ্রিস্টাব্দের দিকে, মেলানকান সংস্কৃতির লোকেরা জামাইকার উভয় উপকূল এবং জামাইকার অভ্যন্তরে উভয় স্থানে বসতি স্থাপন করেছিল, হয় তারা রেডওয়্যার সংস্কৃতির মধ্যে মিশে গিয়েছিল অথবা তাদের সাথে দ্বীপে একই সাথে বসবাস করেছিল।[১]

তাইনো সংস্কৃতিটি জামাইকাতে ১২০০ খ্রিস্টাব্দের দিকে বিকশিত হয়েছিল।[১] তারা দক্ষিণ আমেরিকা থেকে ইউকা চাষের একটি ব্যবস্থা নিয়ে আসে যা দ্বীপটিতে "কনুকো" নামে পরিচিত ছিল। মাটিতে পুষ্টি যুক্ত করতে আরাওয়াক স্থানীয় ঝোপঝাড় এবং গাছ পুড়িয়ে সেগুলোর ছাই দিয়ে বড় বড় ঢিপি তৈরী করতো , তাতে তারা কাটা ইউকা গাছ লাগাতো।[২]

তাইনো সমাজ দুটি শ্রেণিতে বিভক্ত ছিলঃ নাবোরিয়াস(সাধারণ) এবং মিতানোস(অভিজাত)। বহিকস নামে পরিচিত পুরোহিত/নিরাময়কারীরা ক্যাসিকস (শুধু পুরুষ) নামে পরিচিত গ্রামপ্রধান পরামর্শদাতা ছিল। ক্যাসিকস গুয়ানান নামক সোনার দুল পরার এবং কাঠের চেয়ারে বসে গৃহীত অতিথির উপরে থাকার সুযোগ ভোগ করেছিল।[৩] বহিকসদের তাদের নিরাময়ের ক্ষমতা এবং দেবতাদের সাথে কথা বলার দক্ষতার জন্য প্রশংসিত করা হতো।

তাইনোর আত্মীয়তা, বংশ এবং উত্তরাধিকার বিষয়ে মাতৃতন্ত্র ব্যবস্থা ছিল। যখন কোনও পুরুষ উত্তরাধিকারী উপস্থিত না থাকে, উত্তরাধিকার বা উত্তরাধিকারটি মৃত বোনের সবচেয়ে বয়স্ক পুরুষ সন্তানের কাছে যায়। তাইনোর নতুন বিবাহিত দম্পতিকে মায়ের বাড়িতে থাকতে হতো। নতুন বিবাহিত দম্পতির বর তার ভাগ্নি সন্তানদের জীবনে তাদের আসল পিতার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিলেন; মূলত মামা তাইনো ছেলেদের পুরুষ সমাজে পরিচয় করিয়ে দিতো।

অধিকাংশ তাইনোরা কাঠের খুঁটি, বোনা খড় এবং তালের পাতায় নির্মিত বড় বৃত্তাকার কুঠীগুলিতে (বোহিওস) বাস করতো। কেন্দ্রীয় চত্বরের চারপাশে নির্মিত এই বাড়িগুলিতে প্রতিটিতে ১০-১৫ টি পরিবার থাকতে পারতো। ক্যাসিকস এবং তার পরিবার কাঠের বারান্দা সহ একই রকমের আয়তক্ষেত্রাকার কুঠীগুলিতে(ক্যানি) বাস করতো। তাইনো বাড়ির গৃহসজ্জার মধ্যে সুতির বিছানাবিশেষ(হামাকা), ঘুমানো এবং বসার জন্য খেজুর পাতার তৈরি পাপোশ, কাঠের চেয়ারগুলি (দুজো বা দুহো) বোনা আসন, মাচা এবং বাচ্চাদের জন্য দোলনা অন্তর্ভুক্ত ছিল।[৪]

তাইনোরা বাতেই (ইংরেজিঃ Batey) নামে একটি আনুষ্ঠানিক বল খেলা খেলতো। বিপক্ষ দলগুলির প্রতি দলে ১০ থেকে ৩০ জন খেলোয়াড় থাকতো এবং একটি শক্ত রাবার বল ব্যবহার করা হতো। সাধারণত দলগুলি পুরুষদের সমন্বয়ে গঠিত হত, তবে মাঝেমধ্যে মহিলারাও খেলাটি খেলত।[৫] খেলাগুলি প্রায়শই গ্রামের কেন্দ্রের চত্বরের দরবারে খেলা হত এবং বিশ্বাস করা হয়েছিল যে এটি সম্প্রদায়ের মধ্যে বিরোধ নিষ্পত্তি করার জন্য ব্যবহৃত হয়েছিল। সর্বাধিক বিস্তৃত বল মাঠগুলি সর্দারদের সীমানায় পাওয়া গিয়েছিল।[৪] প্রায়শই, গ্রামের প্রধানগণ একটি খেলার সম্ভাব্য ফলাফলের উপর বাজি ধরার প্রচলন ছিল।[৫]

তাইনোরা আরওয়াকান ভাষায় কথা বলতো, তবে এই ভাষার কোনো লিখিত রূপ ছিল না। তাদের ব্যবহৃত কিছু শব্দ, যেমন বারবাকোয়া ("বারবিকিউ"), হামাকা ("হ্যামক"), কানোয়া ("ক্যানো"), টাবাকো ("টোবাকো"), ইউকা, বাটাটা ("মিষ্টি আলু") এবং জুরাকান ("হারিকেন"), যা পরবর্তীতে স্পেনীয় এবং ইংরেজি ভাষায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল।

চিত্রসমূহসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Atkinson, Lesley-Gail (২০০৬)। The Earliest Inhabitants: The Dynamics of the Jamaican Taíno। Illustrated edition: University Press of the West Indies। আইএসবিএন 978-9766401498 
  2. Rogoziński, Jan (১৯৯২)। A Brief History of the Caribbean: From the Arawak and the Carib to the Present। Subsequent edition: Plume। আইএসবিএন 978-0452281936 
  3. "Caciques, nobles and their regalia"Taíno: Pre-Columbian Art and Culture from the Caribbean। El Museo del Barrio। ২০০৬-১০-০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. Rouse, Irving (১৯৯২)। The Tainos: rise & decline of the people who greeted Columbus (ইংরেজি ভাষায়)। পৃষ্ঠা 15। আইএসবিএন 978-0-300-05181-0ওসিএলসি 24469325 
  5. Anghiera, Pietro Martire d'; O'Gorman, Edmundo (১৯৬৪)। Décadas del Nuevo Mundo. (স্পেনীয় ভাষায়)। México: J. Porrúa। পৃষ্ঠা 348। আইএসবিএন 9788490013014ওসিএলসি 765443