প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি

প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার) বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক বাংলাদেশের প্রশাসনিক পুনর্গঠন ও সংস্কারের জন্য গঠিত একটি কমিটি। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও সচিবদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটির বর্তমান আহ্বায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি
Government Seal of Bangladesh.svg
সরকারি কমিটির রূপরেখা
গঠিত১৯৮২ (1982)
সরকারি কমিটির নির্বাহী

ইতিহাসসম্পাদনা

সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের শাসনামলে বেসামরিক প্রশাসন কাঠামো ও সংগঠন পর্যালোচনা এবং ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণ ও প্রশাসনকে জনগণের আরও কাছাকাছি নিয়ে যাবার লক্ষ্যে প্রশাসনিক পুনর্গঠন ও সংস্কার কমিটি নামে একটি কমিটি গঠন করা হয়।[১] উক্ত কমিটির সুপারিশক্রমে ১৯৮২ সালে ‘জাতীয় প্রশাসন পুনর্গঠন-সংস্কার বাস্তবায়ন কমিটি’ নামে নতুন একটি স্থায়ী কমিটি গঠন করা হয়। তৎকালীন উপ-প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক রিয়ার এডমিরাল মাহবুব আলী খান একই বছরের আগস্টে এ কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।[২] গঠিত এ কমিটিতে অর্থ ও পরিকল্পনা, আইন ও আইন-সংস্কার এবং কৃষিমন্ত্রীসহ আরো ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও প্রধান সামরিক আইন প্রশাসকের মুখ্য স্টাফ অফিসার।

পরবর্তীতে আরো বেশ কয়েকজন মন্ত্রী ও জ্যেষ্ঠ সামরিক কর্মকর্তাকে কমিটির সদস্য করা হয়। একই বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়।[২] ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত মাহবুব আলী খান সভাপতির দায়িত্ব পালন করার পর প্রধানমন্ত্রী এর দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তৎকালীন কমিটি বাংলাদেশের থানাসমূহকে উপজেলায় ও মহকুমাকে জেলায় উন্নীত করে এবং বেশ কিছু নতুন জেলা গঠন করে।[২] ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর শেখ হাসিনাকে আহ্বায়ক করে ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি ২৫ সদস্যের নতুন কমিটি গঠিত হয়।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "প্রশাসনিক পুনর্গঠন ও সংস্কার কমিটি"বাংলাপিডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  2. "জাতীয় প্রশাসন পুনর্গঠন-সংস্কার বাস্তবায়ন কমিটি"বাংলাপিডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  3. "প্রধানমন্ত্রীকে আহ্বায়ক করে নিকার গঠন"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা