পৃষ্ঠাসজ্জা বা পৃষ্ঠাবিন্যাস বলতে চিত্রলৈখিক নকশা প্রণয়ন প্রক্রিয়ার একটি অংশকে বোঝায় যেখানে মুদ্রণের আগে কোন পৃষ্ঠার দৃশ্যমান উপাদানগুলিকে সাজানো বা বিন্যস্ত করা হয়। এই প্রক্রিয়াতে বিশেষ কোনও যোগাযোগের উদ্দেশ্য পূরণের লক্ষ্যে গ্রন্থনার সাংগঠনিক মূলনীতিগুলি প্রয়োগ করা হয়।[১]

ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ ও বিজ্ঞাপনের পৃষ্ঠাগুলিতে পাঠক তথা ভোক্তার দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য পেশাদারী স্তরের পৃষ্ঠাসজ্জা করার দক্ষতার প্রয়োজন হয়।

উচ্চস্তরের পৃষ্ঠাসজ্জাতে প্রকাশনা মাধ্যমের আকার-আকৃতির পাশাপাশি পাঠ্য বিষয়বস্তু ও চিত্রসমূহের সামগ্রিক বিন্যাস সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে সংস্কৃতি ও মনোবিজ্ঞানের সম্যক জ্ঞান থাকার পাশাপাশি বুদ্ধি, সংবেদনশীলতা ও সৃষ্টিশীলতার দক্ষ ব্যবহার প্রয়োজন হয় এবং রচয়িতা ও সম্পাদক কীভাবে ভাব বিনিময় করতে চান ও কীসের উপর জোর দিতে চান, সেগুলি বিবেচনা করতে হয়।

নিম্নস্তরের পৃষ্ঠাসজ্জাতে পৃষ্ঠাসংখ্যা স্থাপন এবং মুদ্রাক্ষর স্থাপন প্রক্রিয়াগুলি অনেক বেশি যান্ত্রিক। কিছু পরামিতি বা মানদণ্ড আগে থেকে দেওয়া থাকলে পাঠ্য বিষয়বস্তুসমৃদ্ধ এলাকার সীমানা, মুদ্রাক্ষর ছাঁদ, মুদ্রাক্ষর ছাঁদের আকার, প্রান্তের সাথে সামঞ্জস্যবিধানের পছন্দ, ইত্যাদি খুব সহজেই করা সম্ভব।

কম্পিউটারের মাধ্যমে প্রকাশনা আধিপত্য বিস্তার করার আগে এই সবগুলি প্রক্রিয়াই হাতে করা হত, কিন্তু আধুনিক কম্পিউটারভিত্তিক প্রকাশনা ব্যবস্থায় এগুলি প্রায় সবক্ষেত্রেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে সম্পাদন করা হয়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. O'Connor, Z (২০১৪)। Elements and principles of design: Tools for digital imagery, art and design