নিয়াজ মোহাম্মদ স্টেডিয়াম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় অবস্থিত স্টেডিয়াম

নিয়াজ মোহাম্মদ স্টেডিয়াম বা "ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা স্টেডিয়াম"টি বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার ব্রাহ্মণবাড়িয়া ডায়বেটিক হাসপাতালের পাশেই অবস্থিত একটি স্টেডিয়াম। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার একমাত্র স্টেডিয়াম ও খেলাধুলার প্রাণকেন্দ্র। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলা এখানে অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। এটা ক্রিকেট[২] এবং ফুটবল উভয় খেলার জন্য ব্যবহৃত হয়। ঐতিহ্যবাহী এবং জাতীয় দিবস উপলক্ষে এই স্টেডিয়ামে বিশেষ কর্মসূচী উদ্‌যাপন করা হয়।

নিয়াজ মোহাম্মদ স্টেডিয়াম
ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেডিয়াম
Viewers At Niaz Mohammad Stadium.jpg
নিয়াজ মোহাম্মদ স্টেডিয়ামের দর্শক গ্যালারী
অবস্থানডাউনটাউন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২৩°৫৭′৩৩.৮৭″ উত্তর ৯১°০৬′৪৭.৯৫″ পূর্ব / ২৩.৯৫৯৪০৮৩° উত্তর ৯১.১১৩৩১৯৪° পূর্ব / 23.9594083; 91.1133194
মালিকজাতীয় ক্রীড়া পরিষদ[১]
পরিচালকজাতীয় ক্রীড়া পরিষদ[১]
ধারণক্ষমতা১৫,০০০
আয়তন১৭৫ × ১২২ মি (৫৭৪ × ৪০০ ফু)
আকারডিম্বাকৃতির
উপরিভাগঘাস
স্কোরবোর্ডসাধারণ বোর্ড এবং ইলেক্ট্রনিক বোর্ড
নির্মাণ
নির্মাণাধীন১৯৩৪
উদ্বোধন১৯৩৪
ভাড়াটে
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ক্রিকেট দল
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহিলা ক্রিকেট
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফুটবল দল
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া এক্সপ্রেস

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৩৪ সালে তৎকালীন এসডিও নিয়াজ মোহাম্মদ খান এ স্টেডিয়ামটি প্রতিষ্ঠা করেন[৩]। এটি বাংলাদেশের প্রাচীনতম স্টেডিয়াম[৩]। এখানে দর্শকদের জন্য পূর্ব, পশ্চিম এবং দক্ষিণ দিকে গ্যালারী এবং প্যাভিলিয়ন রয়েছে।[৪]

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ: যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়"। জানুয়ারি ১৬, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  2. "অবশেষে জয় অনূর্ধ্ব ১৪ ক্রিকেট দলের"parbatyachattagram.com। ২০১৬-০২-০৩। ২০২১-০৩-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  3. হোসেন, মনির (২০১৪-১১-০২)। "ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দেশের প্রাচীন স্টেডিয়াম"দৈনিক যুগান্তর। ২০১৯-০৭-০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-০৮ 
  4. "সমস্যায় জর্জরিত নিয়াজ মোহাম্মদ স্টেডিয়াম"The Report24.com। ৮ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা