নাসিরউদ্দিন মাহমুদ

যিনি বাদশাহ্ হয়েও অতি সাধারণ জীবন যাপন করতেন ।

নাসিরউদ্দিন মাহমুদ
দিল্লির সুলতান
রাজত্বকাল১০ জুন ১২৪৬ – ১৮ ফেব্রুয়ারি ১২৬৬
রাজ্যাভিষেক১০ জুন ১২৪৬, দিল্লি
মৃত্যু১৮ ফেব্রুয়ারি ১২৬৬
পূর্বসূরিআলাউদ্দিন মাসুদ
উত্তরসূরিগিয়াসউদ্দিন বলবন
রাজবংশমামলুক
পিতানাসিরউদ্দিন মাহমুদ
মাতাফাতেমা বেগম
নাসিরউদ্দিন মাহমুদের মুদ্রা

নাসিরউদ্দিন মাহমুদ, নাসিরউদ্দিন ফিরোজ শাহ (শাসনকাল: ১২৪৬–১২৬৬) ছিলেন দিল্লির মামলুক সালতানাতের ৮ম সুলতান। তিনি নাসিরউদ্দিন মাহমুদের পুত্র ও সুলতান ইলতুতমিশের পৌত্র ছিলেন। ইলতুতমিশ তাকে তার বাবার নাম প্রদান করেছিলেন। আলাউদ্দিন মাসুদ ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর তিনি মসনদে বসেন।

মাহমুদ ধার্মিক হিসেবে পরিচিত ছিলেন। নামাজ এবং কুরআন লিপিবদ্ধকরণে তিনি অনেক সময় ব্যয় করতেন। তার শ্বশুর গিয়াসউদ্দিন বলবন মূলত শাসনকাজ তদারক করতেন।[১]

১২৬৬ সালে মাহমুদ নিঃসন্তান অবস্থায় মৃত্যুবরণ করার পর বলবন মসনদে বসেন।

ব্যক্তিজীবনসম্পাদনা

নাসিরউদ্দিন মাহমুদ সহজসরল জীবন যাপন করতেন। নিজের হাতে কুরআন বিক্রি করে তিনি ব্যক্তিগত খরচের ব্যস্থা করতেন। তার কোনো চাকর ছিল না এবং তার স্ত্রী পরিবারের জন্য খাবার রান্না করতেন।[২]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Sen, Sailendra (২০১৩)। A Textbook of Medieval Indian History। Primus Books। পৃষ্ঠা 74–76। আইএসবিএন 978-9-38060-734-4 
  2. Vandhargal Vendrargal। Chennai: Vikatan Prasuram। ২০১২। পৃষ্ঠা 27। আইএসবিএন 81-89780-59-X 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

পূর্বসূরী
আলাউদ্দিন মাসুদ
দিল্লির সুলতান
১২৪৬–১২৬৬
উত্তরসূরী
গিয়াসউদ্দিন বলবন