নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজ

নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজ হলো বাংলাদেশের একটি বেসরকারি মেডিকেল স্কুল। ২০০৫-০৬ শিক্ষাবর্ষে এটি ঢাকার আশুলিয়ায় প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত একটি কলেজ।[১][২]

নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজ
Nightingale Medical College
নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজের লোগো
নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজের লোগো
অন্যান্য নাম
NAMC
ধরনবেসরকারি মেডিকেল স্কুল
স্থাপিত২০০৫ (2005)
প্রাতিষ্ঠানিক অধিভুক্তি
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
চেয়ারম্যানমোহাম্মদ আসাদুজ্জামান চৌধুরী
অধ্যক্ষঅধ্যাপক ডাঃ মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান
অবস্থান
আশুলিয়া, ঢাকা
শিক্ষাঙ্গনশহর
ওয়েবসাইটnmchdhaka.com


কলেজটি পাঁচ বছর মেয়াদী কোর্স শেষে এমবিবিএস ডিগ্রি প্রদান করে। স্নাতক পরবর্তী এক বছরের ইন্টার্নশিপ সমস্ত স্নাতকদের জন্য বাধ্যতামূলক। বর্তমানে এই মেডিকেল কলেজ বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল[৩] থেকে কালো তালিকাভুক্ত মেডিকেল কলেজ।

ইতিহাসসম্পাদনা

নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা হচ্ছেন প্রকৌশলী জনাব আসাদুজ্জামান চৌধুরী। তিনি ২০০৫-০৬ শিক্ষাবর্ষে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন।

ইতিমধ্যে নাইটিংগেল মেডিকেল কলেজ থেকে দুই দুই বার সকল শিক্ষার্থী অন্য সকল মেডিকেল কলেজে মাইগ্রেশন/বদলি হয়েছে।কারণ এই মেডিকেল কলেজের পরিচালনা পরিষদ নানা রকম অন্যায় অত্যাচার আশ্রয় প্রশ্রয় দিত যার ফলে কলেজের ভেতরের মালিকপক্ষের চাকর এবং বহিরাগতরা মেডিকেল শিক্ষার্থীদের নানা ভাবে অন্যায় অত্যাচার করতো।যার ফলে সকল শিক্ষার্থী আন্দোলন করে নাইটিংগেল মেডিকেল কলেজ থেকে দুইবার আলাদাভাবে বদলি হয়ে অন্য মেডিকেল কলেজে MBBS ডিগ্রী অর্জন করছে।বর্তমানে এটি BMDC কালোতালিকাভুক্ত সেই সাথে এই মেডিকেল কলেজ এখনও Wrold directory of medical school এর অর্ন্তভুক্ত হতে পারেনি।যার ফলে এখান থেকে পাশ করা কোন মেডিকেল শিক্ষার্থী বিদেশী ডিগ্রী নিতে/বিদেশে ডাক্তারি বিষয়ে উচ্চতর পড়াশোনা করতে পারবে না।


নামকরণসম্পাদনা

নাইটিংগেল মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালের নাম ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেল, নামকরা নার্স যিনি চিকিৎসা ও মানব সেবার প্রতি তাঁর দায়বদ্ধতা ও নিষ্ঠার জন্য চিকিৎসা সেবা ও নার্সিংয়ের ইতিহাসে কিংবদন্তি হয়ে উঠেছিলেন, তার নামানুসারে নামকরণ করা হয়েছিল। তিনি বিশ্বাস করতেন যে একজন অসুস্থকে নার্সিংয়ের মাধ্যমে ঈশ্বরের সেবা করা যায়। অসুস্থ মানুষের প্রতি তার আন্তরিক ও নিঃস্বার্থ সেবার জন্য তিনি কেবল ব্রিটিশ জনসাধারণের কাছেই নয় বিশ্বজুড়ে পরিচিত হয়েছিলেন। পরবর্তী বছরগুলিতে ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেল "দি লেডি উইথ দ্য ল্যাম্প" নামে বিশ্বব্যাপী খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। ১৯০৭ সালে নাইটিংগেল ব্রিটিশ সরকারের "অর্ডার অফ মেরিট" উপাধি প্রাপ্ত হন।

অবকাঠামোসম্পাদনা

কলেজটি ১২ বিঘা জমির উপর ঢাকার আশুলিয়ায় স্থাপিত।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Nightingale Medical College & Hospital"www.nmchdhaka.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-২৮ 
  2. "নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-২৮ 
  3. BM&DC (info@bmdc.org.bd)। "BM&DC"Bangladesh Medical & Dental Council (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১০-২৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-১০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা