নয়নতারা (অভিনেত্রী)

ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী

নয়নতারা (জন্ম: ডাইয়ানা মরিয়ম কুরিয়ান, ১৮ নভেম্বর ১৯৮৪) হলেন একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, যিনি প্রধানত তামিলসহ কিছু মালয়ালমতেলুগু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।[৭] তিনি একাধিক পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী।
নয়নতারা ২০০৩ সালে জয়ারামের সাথে মালয়ালম ছবি মানস্‌সিনাক্কারে দিয়ে অভিনয় জীবন শুরু করেন। তিনি তামিল এবং তেলুগু ছবিতে কাজ করার পূর্বে সুপার হিট মালয়ালম ছবি নাত্থুরাজাভুতে সহশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেন। তিনি তামিল চলচ্চিত্রে ২০০৫ সালে অভ্যএবং ২০০৬ সালে লক্সমি ছবি দিয়ে তেলুগু চলচ্চিত্রে পদার্পণ করেন এবং ছবি দুটিতে সাফল্য পান। পরে ব্যবসায়িক সাফল্যমন্ডিত একাধিক ছবি যেমন চন্দ্রমুখী (২০০৫), দুবাই সেনু (২০০৭), তুলসী (২০০৭), বিল্লা (২০০৭), ইয়ারাদি নি মোহিনী (২০০৮), আদ্ভান (২০০৯), আধূরস্‌ (২০১০), সিংহ (২০১০), বস এনজিরা ভাস্করন (২০১০), শ্রী রামা রাজ্যম (২০১১), রাজা রাণী (২০১৩), আরম্ভাম (২০১৩), থানি অরুভান (২০১৫), মায়া (২০১৫), নানুম রৌডি ধান (২০১৫), বাবু বঙ্গরাম (২০১৬), এবং ইরু মুগান (২০১৬) ছবিগুলোতে তিনি চরিত্র প্রধান হিসেবে অবদান রাখেন, যেগুলো পরে তাকে দক্ষিণাত্যের ভারতীয় চলচ্চিত্রে অনুষ্কা শেট্টির পরে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক গ্রহীতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে।

নয়নতারা
২০২৩ সালে নয়নতারা
জন্ম
ডাইয়ানা মরিয়ম কুরিয়ান

(1984-11-18) ১৮ নভেম্বর ১৯৮৪ (বয়স ৩৯)[১][২][৩]
জাতীয়তাভারতীয়
পেশা
  • অভিনেত্রী
  • মডেল
কর্মজীবন২০০৩ সালে – বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীভিগনেশ শিবম (বি. ২০২২)
সন্তান২ জন
পুরস্কারকালাইমামনি[৬]

প্রাথমিক জীবন

সম্পাদনা

নয়নতারা বেঙ্গালুরু, কর্ণাটক, ভারতে, মালয়ালী গোঁড়াবাদী খ্রিষ্টান[৮] পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন।[৪] পিতা কুরিয়ান কোদিয়াত্তু এবং মা অমানা কুরিয়ান, যিনি তিরুভাল্লা, কেরালার কোদিয়াত সম্ভ্রান্ত পরিবার থেকে আসেন।[৯][১০]

২০১১ সালের ৭ই আগস্ট, তিনি চেন্নাইয়ের আর্য সমাজ মন্দিরে হিন্দুধর্ম গ্রহণ করেন ।[১১]

কর্মজীবন

সম্পাদনা

২০১০ সালে তিনি কর্ণাটক ছবিতে কর্ণাঠক-তেলুগু দোভাষী ছবি সুপার,[১২] দিয়ে পা রাখলেও কর্ণাঠক চলচ্চিত্রে এটাই তার এখন পর্যন্ত একমাত্র ছবি। শ্রী রামা রাজ্যম (২০১১) ছবিতে তিনি সীতার চরিত্রে অভিনয় করে ‘ফিল্মফেয়ার পুরস্কার (সেরা তেলুগু অভিনেত্রী)’ এবং ‘নন্দি পুরস্কার (সেরা অভিনেত্রী)’ পুরস্কার লাভ করেন। রাজা রাণী (২০১৩) ছবিতে তার অনবদ্য অভিনয়ের জন্যও তিনি ‘ফিল্মফেয়ার পুরস্কার (সেরা তামিল অভিনেত্রী)’ পুরস্কার লাভ করেন। কচি টাইমস্‌ অনুসারে সেরা ১৫ চাহিদাময় মহিলা, ২০১৪ সালের তালিকায় স্থান পান।[১৩] তার স্প্রিপ্ট যাচাইশীলতার ও "লেডি সুপারস্টার"-এ তার কাজের জন্য ভক্তের সংখ্যা বাড়তে থাকে।[১৪]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. Sri Birthday Special: Nayanthara Turns 28. Rediff.com (19 November 2012). Retrieved 2012-04-10.
  2. Happy birthday Nayantara. indiatoday.com (5 December 2008). Retrieved 2012-04-10.
  3. Birthday Special Nayantara rediff.com (18 November 2014)
  4. "Nayanthara in Sandalwood now"The Times of India। ১৭ জানুয়ারি ২০১০। 
  5. Chat Transcript of Nayanthara ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ আগস্ট ২০১৩ তারিখে. Sify.com (10 March 2008). Retrieved 2012-04-10.
  6. "70 artists get Kalaimamamani awards"The Hindu। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৫ 
  7. "'Malayalis should be proud of Nayanthara'"। TOI। ২৯ নভেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১৬ 
  8. "Birthday special unknown facts about nayanthara"। filmibeat.com। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০১৫ 
  9. "Tamil filmdom's top stars ' Kerala women"The Telegraph। Calcutta, India। ১৪ মে ২০০৬। 
  10. "Nayanthara: A Dream comes true"। IndiaGlitz। ২৫ জানুয়ারি ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১১ 
  11. "Nayanthara converts to Hinduism"। Behindwoods। ৮ আগস্ট ২০১১। ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১১ 
  12. "Upendra's Super remake rights in great demand"। ১৯ জানুয়ারি ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০১৬ 
  13. TNN (১৭ এপ্রিল ২০১৫)। "Kochi Times 15 Most Desirable Women in 2014"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০১৫ 
  14. https://www.google.co.in/m?q=Lady+superstar

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা