নন্টে ফন্টে

বাংলা ভাষায় লিখিত জনপ্রিয় একটি চিত্রায়িত কৌতুক কাহিনীমালা বা কমিকস

নন্টে ফন্টে বাংলা ভাষায় লিখিত জনপ্রিয় একটি চিত্রায়িত কৌতুক কাহিনীমালা বা কমিকস। এটি একজন বিখ্যাত ভারতীয় বাঙ্গালী চিত্রশিল্পী নারায়ণ দেবনাথ[১] কর্তৃক উদ্ভাবিত ও অঙ্কিত। এটি প্রথম প্রকাশিত হয় মাসিক পত্রিকা 'কিশোর ভারতী'তে (১৯৬৯)। পরবর্তীতে দেব সাহিত্য কুটির থেকে বই আকারে প্রকাশিত হয়েছে। ২০০৩ খ্রিস্টাব্দ থেকে রঙিন সংষ্করণও প্রকাশিত হচ্ছে। এই কমিক থেকে পরে একটি অ্যানিমেটেড ভিডিও সিরিজও নির্মিত হয়েছে যা আকাশ বাংলা (বর্তমানে আকাশ আট) নামক চ্যানেলে প্রচার করা হতো।

বিবরণসম্পাদনা

নন্টে ও ফন্টে সমবয়সী সহপাঠী দুই বন্ধু, তারা পশ্চিম বাংলার কোনো অজানা মফস্বল শহরের একটি বোর্ডিং স্কুলে থেকে লেখাপড়া করে। তাদের এই বোর্ডিং স্কুলের জীবনের ছোটখাটো বিভিন্ন মজার মজার ঘটনা নিয়েই এই কমিক। তাদের সাথে একই বোর্ডিংয়ে থাকে কেল্টু নামের পাজী ধরনের একটু বেশি বয়সের এক দুষ্টু ছাত্র, "কেল্টুদা" নামে যাকে বোর্ডিংয়ের বাকি ছাত্ররা সম্বোধন করে থাকে। অধিকাংশ গল্পের বিষয়বস্তু কেল্টুর সাথে নন্টে-ফন্টের রেষারেষি, যার পরিসমাপ্তি ঘটে কেল্টুর উচিত সাজার মাধ্যমে।[২]

চরিত্রাবলীসম্পাদনা

কমিকের প্রধান চরিত্ররা সকলেই স্কুল বোর্ডিংয়ের বাসিন্দা। নন্টে ফন্টেসহ আরও কিছু ছাত্র এবং বোর্ডিংয়ের সুপারিন্টেনডেন্ট স্যার হলেন প্রধান চরিত্র। এছাড়াও রয়েছে বোর্ডিংয়ের বাবুর্চি ও অন্যান্য কাজের লোকজন। মাঝেমধ্যে স্কুলের হেডমাস্টার মহাশয়কেও দেখা যায়। গল্পের প্রায় সব চরিত্রের, বিশেষ করে ছাত্রদের রয়েছে হাস্যরস উদ্রেককারী অদ্ভুত সব ডাকনাম।

  • নন্টে:নন্টের বয়স ষোলো বছর নন্টে দেখতে প্রায় ফন্টের মতন তবে চেহারা কিছুটা ছিপছিপে। গল্পে তাকে অধিকাংশ সময় কমলা জামা পরে থাকতে দেখা যায়। তার চুল তুলনামূলক ভাবে বড় এবং পেছনে টিকি আছে । দুজনের চিন্তা ভাবনাও প্রায় একই রকম।নন্টে ও ফন্টে একে অপরের সবচেয়ে ভালো বন্ধু।
  • ফন্টে: পোশাক ও চালচলনে নন্টে ফন্টে অনেকটা এক রকম হলেও মাথার পিছনের টিকি না থাকায় ফন্টেকে আলাদা করা যায়। সাদা-কালো সংষ্করণে দুজনেরই পরনে সবসময় সাদা শার্ট এবং কালো হাফ-প্যান্ট থাকতো, তবে রঙিন সংষ্করণে দেখা যায় নীল শার্ট পরে থাকতে দেখা যায় ।
  • কেল্টু: হোস্টেলের মনিটর কেল্টু নন্টে-ফন্টের থেকে বয়সে বড়, এক ক্লাসে ছয়বার ফেল করা। আর সব ছাত্ররা তাই তাকে "কেল্টুদা" সম্বোধন করে। পুরো নাম ভজহরি ভট্টাচার্য।কেল্টু দেখতে লম্বা, শীর্ণকায় এবং কোঁকড়াচুলো। কমিকে আর-সব ছাত্রদেরকে হাফ-প্যান্ট পরনে দেখা গেলেও কেল্টুকে দেখা যায় ফুল-প্যান্টে, সম্ভবত তার অধিক বয়সের ইঙ্গিত। নন্টে-ফন্টেকে ও অন্যান্য কম বয়সীজন ছাত্রদেরকে দিয়ে সব কাজ করিয়ে নেয়ার জন্য কেল্টু বিভিন্ন রকম ফন্দি-ফিকির করে, ভয়-ভীতিও প্রদর্শন একেবারে বিরল নয়। মূলত সে খাবার হাতিয়ে নেওয়ার ফন্দি করে। তবে তার আঁটা ফন্দিতে প্রায়শই সে নিজে জব্দ হয়। কেল্টু সুপারিন্টেনডেন্ট স্যারকে খুশি রাখতে চায়, তবে অধিকাংশ গল্পেরই সমাপ্তি ঘটে এর উল্টো ঘটনা দিয়ে। প্রত্যেক পর্বে শুরুতে অবশ্য সে বরাবরই স্যারের স্নেহভাজন থাকে।
  • সুপারিন্টেনডেন্ট স্যার: হোস্টেল ও তার ছাত্রদের দেখাশোনার দায়িত্বে আছেন টাক মাথা ও বিশাল বপুর অধিকারী ভোজনরসিক সুপারিন্টেনডেন্ট স্যার। ছাত্রদের কড়া শাসনে রাখতে পছন্দ করেন আর শাস্তি হিসেবে বেত মারাটাই তাঁর প্রিয়। অনেক গল্পেই দেখা যায় রাতে ঘুমানোর আগে তিনি নিয়মিত এক বাটি দুধ খান। অধিকাংশ গল্পেই তাকে নিয়ে বিভিন্ন রকম তামাশা করা হয় এবং প্রায়ই তিনি প্রচন্ড জোরে আছাড় খান। কয়েকটি জায়গায় তাঁর নাম উল্লিখিত হয়েছে "মিঃ হাতিরাম পাতি "।
  • অন্যান্য/অপ্রধান চরিত্র: উল্লেখযোগ্য অপ্রধান চরিত্রের মধ্যে রয়েছে হোস্টেলের রান্নাবান্নার দায়িত্বে নিয়োজিত বাবুর্চী বা ঠাকুর। একে বিভিন্ন গল্পে উড়িয়া, বিহারী বা ঢাকাই টানে কথা বলতে দেখা গেছে। হোস্টেলের অন্যান্য ছাত্রদের মধ্যে নেপচাঁদ, ল্যাংচা, বোঁচা এরকম কয়েকটি নাম ঘুরেফিরে আসতে দেখা গেছে। গল্পের খাতিরেই কখনো দুয়েকটি পোষা বা জংলী জীবজন্তুর আবির্ভাব ঘটলেও কোনটিই নিয়মিত নয়।

গল্পসূচিসম্পাদনা

  • গুপ্তধন
  • নতুন সুপারিন্টেন্ডন্ট
  • লিচু চুরি
  • দূরবীন
  • রাধাকৃষ্ণ
  • মাসির বাড়ি যাওয়া
  • তালের রস চুরি
  • কেল্টুর সংগীত চর্চা
  • চক্রান্ত
  • মাছ ধরা
  • স্যারের সংগীত চর্চা
  • ধুতি কেলেঙ্কারি
  • সুপার দূর হটো
  • গুরুদেব
  • ম্যাজিক
  • দুধ চুরি
  • বক শিকার
  • ক্যারাটে
  • চিংড়ি ভোগ
  • মিঠাই চুরি
  • গাড়ুর গুঁতো
  • প্যানকেক
  • রঙের ভেলকি
  • বিছুটি পাতার খেল
  • গুলতির কেরামতি
  • কেল্টুর অনশন
  • বনমানুষের চাকরি
  • বজ্রনুলো প্রতিযোগিতা
  • দু পেয়ে ইঁদুর
  • স্যার হলেন হিরো
  • গাব্বু সিং-এর গ্রামে
  • বনভোজন কান্ড
  • স্যারের কুকুরআতঙ্ক
  • ইনফর্মার কেল্টু
  • পাহাড়ে চড়া
  • স্যারের ভৌতিক ছাত্র
  • সাপুড়ে বাঁশি
  • যান্ত্রিক গুঁতো
  • গুরুদেব জব্দ
  • কেল্টুর ঘোড়া রোগ
  • স্যারের অভিনয়
  • বোরখার আড়ালে সন্ত্রাস
  • পেটের ব্যামো
  • চুল গজানোর তেল
  • মায়া কাজল
  • কেল্টুর হাজতবাস
  • সারশি পরিস্কার
  • ভবিষ্যত বক্তা
  • গুপ্তচর
  • স্যারের আকাশ যাত্রা
  • সন্দেশের গুঁতো
  • ডিমের গুঁতো
  • স্ট্রবেরি কান্ড
  • কেল্টুর সম্মোহন বিদ্যা
  • ব্রেকফাস্ট কান্ড
  • চকলেটের বিজ্ঞাপন
  • কেল্টুর হলো কুপোকাত
  • ব্যাঙ ভাজা
  • কপাল খারাপ
  • ভূত তাড়ালো নন্টে ফন্টে
  • টাকার ভেলকি
  • কেল্টুর ব্যাবসা বুদ্ধি
  • স্যারের জন্মদিন
  • বড়দিনের কেক
  • স্যারের প্রাতঃ ভ্রমণ
  • ঘোড়ার নালের ভেলকি
  • ওয়েট লিফটিং
  • ঠগবাজ
  • যেমন খুশি সজো
  • বেহালা কান্ড
  • রোবট আবিষ্কার
  • ফিস রোল
  • কাকতাড়ুয়ার কেরামতি
  • আজব সাজা
  • খাবারের সন্ধানে কেল্টু
  • বাঘের ঘরে ঘোগের বাসা
  • কেল্টুর বাঘ শিকার
  • পিকনিক
  • দুম পটাস
  • টনিক খেল কেল্টু
  • বালখিল্য
  • ভৌতিক ইন্দ্রজাল
  • ক্রিকেট প্রতিযোগিতা
  • চুম্বকের ভেলকি
  • মনিটার কেল্টু
  • স্যারের ঘর সাফাই
  • নববর্ষের চড়ুইভাতি
  • স্যারের মূর্তি তৈরি
  • মুক্ত বায়ু সেবন
  • গ্রাম্য অভিজ্ঞতা
  • মুড়ো দিয়ে গুঁড়ো
  • শশা চুরি
  • যাত্রা বিভ্রাট
  • হুতোমপুরে হট্টগোল
  • কেল্টুর পুরুৎগিরি
  • কাউ বয়
  • কেল্টুর কুকুর ট্রেনিং
  • কাজের দিন
  • মাছের বাদলে গাছ
  • গোয়েন্দা গদাই
  • কেল্টুর গোয়েন্দাগিরি
  • চিচিং ফাঁক
  • সাধনার সজ্যা
  • ধ্যাৎ তেরিকা
  • ব্ল্যাক ডায়মন্ড
  • উড়ন্ত চাকী
  • অতিথি আপ্যায়ন
  • মোটর গাড়ির রেস
  • গন্ডগোলে গোয়েন্দা কেল্টু
  • টমেটো যুদ্ধ
  • বাঁশবনে ভূত
  • ভূতুড়ে বই
  • দাতব্য চিকিৎসা
  • হোলি হে
  • জন্মদিনের উপহার
  • ছায়াবাজি
  • ছদ্দবেশী ছেদিলাল
  • কেল্টুর জানালা সাফাই
  • খাবার খোঁজার যন্ত্র
  • স্যারের মালাবদল
  • সম্মোহনের চক্করে
  • দৌড় প্রতিযোগিতা
  • মাছ ভাজা খেতে মজা
  • বাৎসরিক উৎসব
  • কেল্টুর ছানাবড়া
  • কেল্টুর জনসেবা
  • স্যারের বাঘ শিকার
  • খণ্ডযুদ্ধ
  • যেমন কর্ম তেমন ফল
  • ছিপ কেলেঙ্কারি
  • ভূতের ভয়
  • সৎ সাহস
  • নববর্ষের কেক
  • দাদু পেল লটারি
  • ফাঁকিবাজ কে
  • শ্যাডো প্র্যাকটিস
  • খাবারের স্বাদ
  • হাতে নাতে
  • বীরাপ্পন
  • পুষ্প প্রদর্শনী
  • বাগান সাফাই
  • গন্ধ বিচার
  • গণনা
  • গুলতির টিপ

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "পদ্মশ্রী সম্মান পাচ্ছেন'বাঁটুল হাঁদা-ভোঁদা নন্টে-ফন্টে'র শ্রষ্ঠা নারায়ণ দেবনাথ"bengali.news18.com। ২০২১-০১-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০২-১১ 
  2. "আধুলি শতকে ম্লানের পথে বাঙালির নন্টে-ফন্টে"Khas Khobor। ২০২০-০৩-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০২-১১ 

আরও দেখুনসম্পাদনা