ধর্মীয় সাম্যবাদ

ধর্মীয় সাম্যবাদ এমন এক ধরনের সাম্যবাদ যাতে ধর্মীয় মূলনীতিসমূহ ও সাম্যবাদের মূলনীতি একীভূত থাকে। বিশেষজ্ঞরা সম্পদের উপর জনস্বত্বের দিকে ধাবিত করা ইতিহাসের বিভিন্ন সামাজিকধর্মীয় আন্দোলনকে বর্ণনা করতে এই পদটি ব্যবহার করেছেন।

সংজ্ঞাসম্পাদনা

টি.এম ব্রাউনিং "ধর্মীয় সাম্যবাদ" কে "ধর্মের নিজস্ব মূলনীতি হতে নিঃসৃত" সাম্যবাদের একটি রূপ[১] এবং হ্যান্স হিলারব্যান্ড "ধর্মীয় সাম্যবাদ" কে "সম্পদের জনস্বত্ব ও ব্যক্তিগতকরণ বাতিলের দিকে ধাবিত করা ধর্মীয় আন্দোলন" হিসেবে বর্ণনা করেন।[২] ব্রাওনিং ও হিলারব্যান্ড "ধর্মীয় সাম্যবাদ" কে "রাজনৈতিক সাম্যবাদ"[১] ও " অর্থনৈতিক সমাজতন্ত্র" [২] থেকে আলাদা করেছেন। উপরন্তু, হিলারব্যান্ড "ধর্মীয় সাম্যবাদ" কে মার্ক্সবাদের (একটি আদর্শ যা ধর্মের বিলোপের জন্য আহবান করে) বিপরীত হিসেবে বর্ণনা করেছেন। [২] ডোনাল্ড ড্রু এজবার্ট ও স্টো পার্সন্স বলেন যে, "[c]hronologically, religious communism tended to precede secular [communism]".[৩] তবে, অন্যান্য বিশেষজ্ঞ মত দেন যে, প্রচলিত " রাজনৈতিক সাম্যবাদ" বা মার্ক্সবাদের কিছু ধর্মীয় প্রকারভেদ রয়েছে। [৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Browning, T.B. (১৮৭৮)। "Communism"The Canadian Monthly and National Review13: 577। সংগ্রহের তারিখ জুন ২৩, ২০১৬ 
  2. Hillerbrand, Hans J. (২০০৪)। Encyclopedia of Protestantism। Routledge। পৃষ্ঠা 800। আইএসবিএন 978-1135960285 
  3. Egbert, Donald Drew; Persons, Stow (২০১৫)। Socialism and American Life। Princeton University Press। পৃষ্ঠা 91। আইএসবিএন 978-1400879892 
  4. Kula, Marcin (ডিসেম্বর ২০০৫)। "Communism as Religion"। Totalitarian Movements and Political Religions6 (3): 371–381। ডিওআই:10.1080/14690760500317727