দিগন্ত টেলিভিশন

বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেল

দিগন্ত টেলিভিশন বাংলাদেশের অন্যতম বেসরকারি স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল। এটি ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু করে। এটি ২৮ আগস্ট, ২০০৮-এ বাংলাদেশ ব্রডকাস্ট এর আওতায় পূর্ণ-প্রচার শুরু করে। এম এ রহমান এর মালিকানাধীন দিগন্ত মিডিয়া কর্পরেশন একটি অঙ্গপ্রতিষ্ঠান। এটি এছাড়াও দৈনিক নয়া দিগন্ত নামে একটি দৈনিক পত্রিকা রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানের। এটিতে সংবাদ ও বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়।[১]

দিগন্ত টেলিভিশন
দিগন্ত টেলিভিশন বাংলাদেশের লোগো.jpg
উদ্বোধন২৮ আগস্ট, ২০০৮
মালিকানাদিগন্ত মিডিয়া কর্পরেশন
স্লোগানসত্য ও সুন্দরের পক্ষে
দেশ বাংলাদেশ
ভাষাবাংলা
প্রচারের স্থানবাংলাদেশ
প্রধান কার্যালয়১৬৬ সৈয়দ নজরুল ইসলাম সারণী,আল রাজি কমপ্লেক্স, পুরানা পাল্টান, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ভ্রাতৃপ্রতিম
চ্যানেল(সমূহ)
দৈনিক নয়া দিগন্ত
প্রাপ্তিস্থান
কৃত্রিম উপগ্রহ

দিগন্ত টেলিভিশন ২০১২ সালে বিশ্বজুড়ে তাদের অনুষ্ঠানগুলো সম্প্রচারের লক্ষ্যে সরাসরি-অনলাইন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রচার শুরু করে।

বন্ধসম্পাদনা

মে ৬, ২০১৩ সালের স্থানীয় সময় ৪.২০-এর দিকে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) সরকারী নির্দেশে চ্যানেলটি বন্ধ করে দেয়।[২] দিগন্ত টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক জিয়াউল কবির জানান, ভোর সোয়া চারটায় বিটিআরসির পরিচালক সাজ্জাদ হোসেনের নেতৃত্বে ১২ থেকে ১৫ জনের গোয়েন্দা পুলিশের দল এসে ‘সরকারি উচ্চপর্যায়ের’ বরাত দিয়ে টিভির সম্প্রচার সাময়িক বন্ধের নির্দেশ দেন।[৩] তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু জানান, এটি সম্প্রচার থেকে সরিয়ে নেওয়ার কারণ ছিল হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযানের বিষয়ে চ্যানেলটির প্রতিবেদন "জনমত উত্তপ্ত করার দায়িত্বজ্ঞানহীন অতিরঞ্জিত এবং ভুল তথ্যযুক্ত, যা টিভির লাইসেন্সের শর্ত লঙ্ঘন করে"। সমালোচকরা এটিকে শেখ হাসিনা সরকার কর্তৃক বিরোধীদের নীরব করার জন্য ইসলামপন্থী ইস্যুটি ব্যবহার করার একটি উদাহরণ বলে অভিযোগ করেন।[৪]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. www.digantatv.com, Official Website
  2. "এবার বন্ধ হলো দিগন্ত ও ইসলামিক টেলিভিশন"দৈনিক সংগ্রাম। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০২০ 
  3. "দিগন্ত ও ইসলামিক টিভির সম্প্রচারবন্ধ"প্রথম আলো 
  4. সালাম, মারিয়া; করিম, মহসিনুল; ইসলাম, মুহাম্মদ জাহিদুল (৬ মে ২০১৩)। "Govt closes 2 TV networks"ঢাকা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ১২ ডিসেম্বর ২০১৫