দম্মিকা রানাতুঙ্গা

শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার

দম্মিকা রানাতুঙ্গা (সিংহলি: ධම්මික රණතුංග; জন্ম: ১২ অক্টোবর, ১৯৬২) কলম্বো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক শ্রীলঙ্কান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও প্রশাসক। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৮৯ থেকে ১৯৯০ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে শ্রীলঙ্কার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

দম্মিকা রানাতুঙ্গা
ධම්මික රණතුංග
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামদম্মিকা রানাতুঙ্গা
জন্ম (1962-10-12) ১২ অক্টোবর ১৯৬২ (বয়স ৫৮)
কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান, প্রশাসক
সম্পর্কঅর্জুনা রানাতুঙ্গা (ভ্রাতা)
নিশান্ত রানাতুঙ্গা (ভ্রাতা)
সঞ্জীবা রানাতুঙ্গা (ভ্রাতা)
প্রসন্ন রানাতুঙ্গা (ভ্রাতা)
রুয়ান রানাতুঙ্গা (ভ্রাতা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪৩)
৮ ডিসেম্বর ১৯৮৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১৬ ডিসেম্বর ১৯৮৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৬০)
৫ ডিসেম্বর ১৯৯০ বনাম ভারত
শেষ ওডিআই২১ ডিসেম্বর ১৯৯০ বনাম পাকিস্তান
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ‌ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ৮৭ ৪৯
ব্যাটিং গড় ২৯.০০ ১২.২৫
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান ৪৫ ২৫
বল করেছে - -
উইকেট - -
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ১/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৩১ মার্চ ২০২০

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটে সিংহলীজ স্পোর্টস ক্লাবের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন তিনি।

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

১৯৮৪-৮৫ মৌসুম থেকে ১৯৯৫-৯৬ মৌসুম পর্যন্ত দম্মিকা রানাতুঙ্গা’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্ট ও চারটিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন দম্মিকা রানাতুঙ্গা। ৮ ডিসেম্বর, ১৯৮৯ তারিখে ব্রিসবেনে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৮৯ তারিখে হোবার্টে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯৯০-৯১ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়া গমন করেন। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। তবে, এ সিরিজের মাধ্যমেই তার টেস্ট জীবন শেষ হয়ে যায়। অভিষেক ইনিংসে অপরিসীম ধৈর্য্যের পরিচয় দিয়ে ৪০ রান তুলেন। এরপর, হোবার্টে করেছিলেন ৪৫। তার খেলার ধরন অনেকাংশেই দীর্ঘ সময়ের ক্রিকেটের উপযোগী ছিল।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর প্রশাসনে প্রবেশ করেন। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটে প্রভাবশালী প্রশাসক হিসেবে নিজেকে তুলে ধরেন। এক পর্যায়ে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব পালন করেছেন।

ক্রিকেটপ্রেমী পরিবারে দম্মিকা রানাতুঙ্গা’র জন্ম। শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গা, সঞ্জীবা রানাতুঙ্গা, নিশান্ত রানাতুঙ্গা, প্রসন্ন রানাতুঙ্গা ও রুয়ান রানাতুঙ্গা’র জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা তিনি। তন্মধ্যে, তিন ভাই শ্রীলঙ্কার পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছিলেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. List of Sri Lanka Test Cricketers
  2. "Sri Lanka – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০২০ 
  3. "Sri Lanka – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০২০ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা