ইউরোপ মহাদেশের দক্ষিণ অংশটিকে দক্ষিণ ইউরোপ বলে। এটিকে অনেক সময় ভূমধ্যসাগরীয় ইউরোপ নামেও ডাকা হয়। ভৌগলিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক দৃষ্টিকোণ থেকে দক্ষিণ ইউরোপের একাধিক সংজ্ঞা দেওয়া সম্ভব। তবে বেশির ভাগ সংজ্ঞাতে দক্ষিণ ও পূর্ব স্পেন, দক্ষিণ ফ্রান্স, ইতালি, প্রাক্তন যুগোস্লাভিয়ার আড্রিয়াটিক সাগর উপকূল, আলবেনিয়া, গ্রিস এবং ইউরোপীয় তুরস্কের পূর্ব থ্রাকে অঞ্চলটিকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়; পর্তুগাল ভূমধ্যসাগরের উপকূলবর্তী না হলেও এই দেশটিকেও দক্ষিণ ইউরোপের অংশ গণ্য করা হয়।[১]

ভূমধ্যসাগরকে ঘিরে রাখা দক্ষিণ ইউরোপীয় দেশগুলির ভৌগলিক বৈশিষ্ট্য
ইউরোভক নামক ইউরোপীয় ইউনিয়নের সমার্থশব্দকোষ অনুযায়ী ইউরোপীয় উপ-অঞ্চলগুলির মানচিত্রটিতে দক্ষিণ ইউরোপ হলুদ রঙ দিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে।

এছাড়া ভূমধ্যসাগরের মধ্যে অবস্থিত কর্সিকা দ্বীপ, সার্দিনিয়া দ্বীপ, সিসিলি দ্বীপ, ক্রিট দ্বীপ, বালেয়ারীয় দ্বীপপুঞ্জ এবং দ্বীপরাষ্ট্র সাইপ্রাসমাল্টাকেও দক্ষিণ ইউরোপের অংশ হিসেবে গণ্য করা হয়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Encyclopedia of Social and Cultural Anthropology, Dr Alan Barnard and Jonathan Spence. Retrieved 10 October 2015.