তাহিরা তাহিরোভা

তাহিরা আকবর কিজি তাহিরোভা ( আজারবাইজানি: Tahirə Əkbər qızı Tahirova , রুশ: Таи́ра Акпе́р кызы́ Таи́рова ; ৭ নভেম্বর, ১৯১৩ – ২৬ অক্টোবর, ১৯৯১) ছিলেন একজন সোভিয়েত রাজনীতিবিদ এবং কূটনীতিক। তিনি ১৯৫৯ থেকে ১৯৮৩ সাল পর্যন্ত আজারবাইজান সোভিয়েত সমাজতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। [১]

Tahira Tahirova
Tahirə Əkbər qızı Tahirova
পররাষ্ট্র মন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
১৯৫৯ – ১৯৮৩
পূর্বসূরীমাহমুদ আলিয়েভ
উত্তরসূরীএলমিরা কাফারোভাল
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম(১৯১৩-১১-০৭)৭ নভেম্বর ১৯১৩
রাশিয়া
মৃত্যু২৬ অক্টোবর ১৯৯১(1991-10-26) (বয়স ৭৭)
বাকুল, আজারবাইজান

প্রথম জীবনসম্পাদনা

তাহিরোভা ১৯১৩ সালের ৭ নভেম্বর বায়রাম-আলী (বর্তমানে তুর্কমেনিস্তানে) তে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৩৫ সালে আজারবাইজান স্টেট অয়েল অ্যাকাডেমি ( যা পরে আজারবাইজান ইন্ডাস্ট্রি ইনস্টিটিউট হয়) থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনিই প্রথম আজারবাইজানের পেশাজীবী মহিলা, যিনি তেল শিল্প সম্পর্কিত উচ্চশিক্ষা অর্জন করেছিলেন। ১৯৪০ সালে তিনি আজারবাইজান বিজ্ঞান গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক নিযুক্ত হন। ১৯৪২ সাল থেকে তিনি আজারবাইজান কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটিতে কাজ শুরু করেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ফ্রন্টলাইনে যুদ্ধরত সোভিয়েত সেনাবাহিনীকে সময়মত তেল সরবরাহের দায়িত্ব দেওয়া হয় তাকে। ১৯৪৯ সালে আজারবাইজান তেল একাডেমিতে তেল অনুসন্ধান ও উন্নয়ন বিষয়ক কোর্স শুরু করেন। ১৯৫৩ সালে তিনি পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি তুর্কি, ইংরেজি এবং রাশিয়ান ভাষায় দক্ষ ছিলেন। [১]

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

১৯৫৪ সাল থেকে তাহিরোভা আজারবাইজান কাউন্সিল অব ওয়ার্কার্স ইউনিয়নে বিভিন্ন উচ্চপদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।[২] ১৯৫৭ সালে তিনি আজারবাইজান এসএসআর-এর পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন।[৩] তবে তিনি ১৯৫৯ সালের আগে কাজ শুরু করেন নি। তৎকালীন সোভিয়েত আইন অনুযায়ী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী তার মন্ত্রনালয় ছাড়াও অন্যান্য সরকারী দায়িত্বে থাকতেন। তিনি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে সোভিয়েত কূটনৈতিক দলের সদস্য ছিলেন। [১] এছাড়াও ১৯৮০-১৯৮৮ সালে ইরাক-ইরান যুদ্ধে সোভিয়েত শান্তি দলের নেতৃত্বে ছিলেন তিনি।[৪]

পুরস্কারসম্পাদনা

১৯৭৬ সালে তাহিরোভাকে ইউএসএসআর-এর বিদেশি কার্যালয়ের পাশাপাশি লেবার অফ রেড ব্যানার অফ অর্ডার, অর্ডার অফ লেনিন, অর্ডার অফ দ্যা ব্যাজ অফ অনার এ বিশেষ অবদান রাখার জন্য অর্ডার অফ ফ্রেন্ডশিপ অফ পিপলস প্রদান করা হয়। [৪]

তাহিরোভা ২৬ অক্টোবর, ১৯৮১ সালে মারা যান। [১][৫] তাকে এভিনিউ অফ দ্যা অনার্ড সেমেট্রিতে সমাহিত করা হয়।[৪]

আরো দেখুনসম্পাদনা

  • আজারবাইজান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Ministers of Foreign Affairs of Azerbaijan. Tahira Tahirova"। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৭-০৮ 
  2. "Biographies. Tahira Tahirova"। ২০১১-০৭-০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৭-০৮ 
  3. "Azerbaijan Portal. The history of the Ministry"। ২০১১-০৭-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৭-০৮ 
  4. Galina Mikeladze (২০০৮-০৩-০৮)। "Женщины Азербайджана: Ханум-министр Таира Таирова"। News.az। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৭-০৮ 
  5. "Presidential Library. Tahira Tahirova"। পৃষ্ঠা 75। ২০২০-০৯-১৩ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৭-০৯