তারানা হালিম

অভিনেত্রী, আইনজীবী এবং রাজনীতিবিদ

তারানা হালিম (জন্ম: ১৬ আগস্ট ১৯৬৬) একজন বাংলাদেশী টেলিভিশন অভিনেত্রী,রাজনীতিবিদ,নাট্য পরিচালক, লেখক, আইনজীবী এবং সমাজকর্মী।[৩] জানুয়ারি ২০১৮ সালে, তিনি তথ্য প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন।[৪] জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসন ও পরবর্তীতে টাঙ্গাইলের নাগরপুর-দেলদুয়ার আসনের সাবেক সংসদ সদস্য তারানা,[৫][৬][৭] ২০১৩ সালের ২২ জানুয়ারি নির্বাচিত সরকারের সংসদ সদস্য এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছিলেন। তিনি দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আইন উপদেষ্টা হিসেবেও কর্মরত রয়েছেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। [৮]

তারানা হালিম
২০১৭ সালে তারানা
সাবেক প্রতিমন্ত্রী, তথ্য মন্ত্রণালয়
কাজের মেয়াদ
১৪ জুলাই ২০১৫ – ২০১৮
সংসদ সদস্য, জাতীয় সংসদ
কাজের মেয়াদ
১৪ জানুয়ারি ২০১৪ – ২০১৮
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1966-08-16) ১৬ আগস্ট ১৯৬৬ (বয়স ৫৭)
নাগরপুর, টাঙ্গাইল
জাতীয়তাবাংলাদেশী
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ[১]
দাম্পত্য সঙ্গীআহমেদ রুবেল (বিচ্ছেদ)[২]
শিক্ষাএলএলএম
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

প্রাথমিক জীবন ও শিক্ষা

সম্পাদনা

তারানা হালিম আগস্ট ১৬, ১৯৬৬ সালে[৬][৯] টাঙ্গাইল জন্ম নেন। তার পিতা এম এ হালিম ছিলেন আয়কর কমিশনার ও পরবর্তীকালে বাংলাদেশের অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব, এবং মা আখতার হালিম বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। তাদের তিন সন্তানের মধ্যে তারানা কনিষ্ঠ।[৫] পৈত্রিক বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর উপজেলার ধুবরিয়া গ্রামে।[৬]

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্তির পর অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত তিনি উদয়ন বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করেন। ১৯৮২ সালে আজিমপুর অগ্রণী বালিকা বিদ্যালয় থেকে তিনি প্রথম বিভাগে মাধ্যমিক এবং ১৯৮৪ সালে হলিক্রস কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক দুইটি পরীক্ষায় ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে তার অবস্থান ছিল নবম। এরপর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে ভর্তি হন এবং সেখান থেকে এলএলবিএলএলএম সম্পন্ন করেন।[৫]

কর্মজীবন

সম্পাদনা

অভিনয়

সম্পাদনা

বিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে পাঁচ বছর বয়সে ঘুঘু ও শিকারী শিরোনামের একটি নাটকে "পিঁপড়া" চরিত্রে অভিনয়েয় মধ্য দিয়ে অভিনয়ে তারানার হাতেখড়ি ঘটে। পরবর্তীতে কলেজে অধ্যয়নের শুরুতে অভিনয় করেন ঢাকায় থাকি টেলিভিশন নাটকে। চলচ্চিত্র অভিনেতা ফারুকের সঙ্গে তার ছোট বোনের চরিত্রে সাহেব শিরোনামের বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর অলোচনায় আসেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে অয়োময় টেলিভিশন নাটকেে "মদিনা" চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকদের আকৃষ্ট করেন।[৫] তিনি আমজাদ হোসেন পরিচালিত গোলাপী এখন ট্রেনে (১৯৭৮) চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন।

এছাড়াও তিনি চ্যানেল আইতে জীবন যেখানে যেমন শিরোনামের একটি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করছেন।[৫]

রাজনৈতিক জীবন

সম্পাদনা
 
২০১৬ সালে জেনেভায় একটি সম্মেলনে তারানা

কৈশোর বয়স থেকেই রাজনিতীর প্রতি তার ঝোঁক ছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃতীয় বর্ষে অধ্যয়নকালে যুবলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হন তিনি। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন এবং একই সংগঠনের সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।[১০] ২০০৯ সালে তিনি জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্য হিসেবে প্রথম নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। এছাড়া তিনি বাংলাদেশের তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিরও সদস্য ছিলেন।[৫] তিনি ১৪ জুলাই ২০১৫ সালে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব প্রাপ্ত হয়েছিলেন।বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। [১১]

ব্যক্তিগত জীবন

সম্পাদনা

তারানা হালিম প্রথমে বিয়ে করেছিলেন ইরতিজা নাসিম আলী বাবুকে। প্রথম স্বামী হতে বড় ছেলে প্রীতম। আরো এক ছেলে আছে ঐ স্বামী হতে। প্রথম স্বামীর সাথে বিচ্ছেদের পর তারানা হালিম বিয়ে করেছিলেন অভিনেতা আহমেদ রুবেলকে। তার সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এখন একাই জীবন যাপন করছেন।

চলচ্চিত্র তালিকা

সম্পাদনা
শিরোনামের বছর চরিত্র টিকা
সাহেব -
নয়নমনি ১৯৭৬ মনি (কিশোর চরিত্র)
গোলাপী এখন ট্রেনে ১৯৭৮ আলাপী
এখনি সময় ১৯৮০

টেলিভিন নাটক

সম্পাদনা
  • ঘুঘু ও শিকারী
  • ঢাকায় থাকি
  • অয়োময়
  • আমাদের আনন্দবাড়ী (ধারাবাহিক)
  • হিমু (১৯৯৪)

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. Utpaul Roy (২১ জুন ২০১৫)। "তারানা হালিমের অন্য ভুবন"Manab Zamin। ২৩ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৩, ২০১৫ 
  2. "Thoughts for the day"The Daily Star। ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০০৬। নভেম্বর ৫, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টে ৩, ২০১৫ 
  3. আব্দুল্লাহ আল-ফারূক (জুলাই ১৪, ২০১১)। সঞ্জীব বর্মন, সম্পাদক। "প্রত্যেক রাজনীতিকেরই সোশাল ওয়ার্কার হওয়া দরকার: তারানা হালিম"dw.comডয়েচে ভেলে। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৪, ২০১৫ 
  4. "Council of Ministers: Reshuffle comes with surprises"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০১-০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-০৩ 
  5. উৎপল রায় (জুন ২১, ২০১৫)। "তারানা হালিমের অন্য ভুবন"মানবজমিন। ২৩ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৩, ২০১৫ 
  6. "Constituency 308"parliament.gov.bd (ইংরেজি ভাষায়)। parliament.gov.bd। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৪, ২০১৫ 
  7. তৌহিদা শিরোপা (আগস্ট ৬, ২০১৪)। "শৌখিন তারানা হালিম"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৩, ২০১৫ 
  8. "তারানা হালিম"bdnews24.comবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। ১৮ আগস্ট ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৩, ২০১৫ 
  9. আবু সাঈদ খান (জুলাই ২৬, ২০১৫)। "Takeaway for Tarana as new state minister"দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৫ 
  10. "কার বিকল্প হচ্ছেন তারানা হালিম!"রাইজিংবিডি। সেপ্টেম্বর ১, ২০১৪। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৪, ২০১৫ 
  11. "মন্ত্রিসভার আকার বাড়ল"বণিক বার্তা। জুলাই ১৫, ২০১৫। ২০১৫-০৭-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৫, ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা