তামান্না

ভারতীয় অভিনেত্রী এবং মডেল

তামান্নাহ্‌ ভাটিয়া (ইংরেজি: Tamannah Bhatia) (জন্মঃ ২১ ডিসেম্বর, ১৯৮৯ সাল[১]) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী,[২] যিনি মূলত তেলুগুতামিল ছবিতে অভিনয় করেন। ২০০৫ সালে চান্দ সা রোশন চেহ্‌রা ছবির মধ্য দিয়ে বলিউডে পা রাখেন এবং একই বছরে তেলুগুতামিল ছবিতে কাজ শুরুর আগে ইন্ডিয়ান আইডল-১ বিজয়ী অভিজিত সাওয়ান্তের ‘আপ্‌কা অভিজিত’ এ্যালবামের ‘লাফ্‌জো মে’ নামের একটি গানে তাকে মডেল হিসেবে দেখা যায়। একই বছরে তেলুগু ছবি শ্রী দিয়ে প্রথমবারের মতন তেলুগু চলচ্চিত্রে পদার্পণ করেন এবং পরবর্তী বছর তিনি তার প্রথম তামিল ছবি কেদিতেও নাম লিখান।

তামান্না
Tamannaah at an event in Cochin, July 2018.jpg
তামান্না (২০১৮ সাল)।
জন্ম
তামান্না ভাটিয়া

(1989-12-21) ২১ ডিসেম্বর ১৯৮৯ (বয়স ৩০)
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাছবির অভিনেত্রী, মডেল
কার্যকাল২০০৫ – বর্তমান
২০১৫ সাল তামান্নাহ্‌ তাঁর জুয়েলারি ব্র্যান্ড উইটেনগোল্ড প্রকাশ অনুষ্ঠানে।

২০০৭ সালে তিনি কলেজ জীবনের উপর ভিত্তি করে নির্মিত তেলুগু ছবি হ্যাপি ডে’স্‌তামিল ছবি কাল্লোরি নামের নাট্যচিত্রেও অভিনয় করেন। তার কাজগুলো হলো তামিল ছবি অয়ন (২০০৯), পাইয়া (২০১০) এবং সিরুথাই (২০১১)। ২০১১ সালে তিনি ১০০% লাভ (২০১১) করে তেলুগু ছবিতে ফিরে আসেন। তার অন্যান্য ছবিগুলো হলো রাছা (২০১২), ক্যামেরামান গঙ্গা থো রামবাবু (২০১২), থাডাকা (2013), আগাডু (২০১৪), বাহুবলীঃ দ্য বিগিনিং, বেঙ্গল টাইগার (২০১৫),ওপিরি (২০১৬) এবং 'বাহুবলী ২ঃ দ্য কনক্লুশন (২০১৭)। অতঃপর তিনি নিজেকে তেলুগু ছবিতে একজন সমসাময়িক অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন।

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

তামান্নাহ্‌ ভাটিয়া ২১ ডিসেম্বর, ১৯৮৯ সালে মুম্বাই, মহারাষ্ট্র, ভারতে সন্তোশ ও রজনীর ঘরে জন্মগ্রহণ করেন এবং তার বড় ভাই হলেন আনন্দ। তাঁর পিতা হলেন একজন ডায়মন্ড ব্যবসায়ী। তিনি হলেন একজন সিন্ধি বংশধর।[২] তিনি তার স্কুল জীবন শেষ করেন ম্যাকেঞ্জি কুপার এডুকেশনাল ট্রাস্ট স্কুল, জুহু, মুম্বাই থেকে। পরে তিনি তার নাম গণনাবিদ্যা (নুমেরোলজি) অনুসারে কিছুটা পরিবর্তন করে ‘তামান্নাহ্‌’ রাখেন।[৩][৪] তিনি ১৩ বছর বয়স থেকে কর্মজীবন শুরু করেন এবং স্কুলের বার্ষিক অনুষ্ঠানে একটি মূল চরিত্র করেন, যা তাঁকে পরিচিতি প্রদান করেন এবং পরে মুম্বাইয়ের পৃথিবী থিয়েটার এক বছর কাজ করেন। ২০০৫ সালে প্রকাশিত ইন্ডিয়ান আইডল বিজয়ী অভিজিত সাওয়ান্তের ‘আপ্‌কা অভিজিত’ এ্যালবামের ‘লাফ্‌জো মে’ নামের গানেও তাঁকে দেখা যায়।[৫]

কর্মজীবনসম্পাদনা

২০০৫– ২০০৮ সালসম্পাদনা

তামান্নাহ্‌ ২০০৫ সালে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন মাত্র ১৫ বছর বয়সে এবং নায়িকা হিসেবে চান্দ সা রোশান চেহ্‌রাতেই অভিনয় করেন। পরে ছবিটি বাণিজ্যিকভাবে বক্স অফিসে সফলতা পেতে ব্যর্থ হয়।[৬] একই বছরে তিনি তেলুগু চলচ্চিত্রে তার প্রথম তেলুগু ছবি ‘শ্রী’ করেন, পরের বছর ২০০৬ সালে তামিল ছবি কেদি করেন। যদিও ছবিদ্বয় বাণিজ্যিকভাবে আলোর মুখ দেখেনি,[৬] তথাপি তাঁর অভিনয় কর্ম তাঁকে অনেক প্রশংসা এনে দেয়।

২০০৯-২০১০ সালসম্পাদনা

২০১১-২০১২ সালসম্পাদনা

২০১৩-২০১৪ সালসম্পাদনা

২০১৫-বর্তমানসম্পাদনা

অন্যান্য কাজসম্পাদনা

তামান্নাহ্‌ মডেল হিসেবে বিভিন্ন বাণিজ্যিক টেলিভিশন চ্যানেলে আত্মপ্রকাশের অভিজ্ঞতা রাখেন।[৭]

চলচ্চিত্র তালিকাসম্পাদনা

পুরস্কারসম্পাদনা

  • হায়দ্রাবাদ টাইমস্‌ চলচ্চিত্র পুরস্কার সেরা অভিনেত্রী – ১০০% লাভ (২০১১)[৮]
  • সাউথ স্কোপ পুরস্কার, সেরা তামিল অভিনেত্রী – কান্ডেন কাধালাই (২০০৯)[৯]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Sify (২১ ডিসেম্বর ২০১০)। "Happy birthday Tamannaah"Sify। ২০১০-১২-২৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৪-২৩ 
  2. "Happy B'day to the Queen of K'wood!"। Sify। ২১ ডিসেম্বর ২০০৯। ১৮ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০১৫ 
  3. "Siren of the Week: Tamannaah Bhatia – 9"। Entertainment.in.msn.com। ২০০৯-১০-০৩। ২০১২-০২-১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১০-০৯ 
  4. "Tamannah's 'secret of success' – Tamil Movie News"। IndiaGlitz। ২০১০-০৬-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১০-০৯ 
  5. "The Tamannaah Bhatia Interview : Of Baahubali and Bollywood"silverscreen। জুন ২৭, ২০১৪। ৭ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  6. "More Happy Days"The Times of India। ২৬ মে ২০০৮। ১৫ মে ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০১৫ 
  7. Article-Tamil-Tamannah in Kandein Kadhalai ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ অক্টোবর ২০০৯ তারিখে. Indiglamour.com (2009-10-17). Retrieved on 2010-12-13.
  8. "The Hyderabad Times Film Awards 2011"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুন ২০১২ 
  9. "Prakash Raj & Tamannaah gets South Scope Awards"। Sify.com। ২০১০-০৯-২০। ২০১৫-০৫-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৭-১১ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা